শনিবার, ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৭
সংবাদ শিরোনাম

নান্যাচরে ‘নব্য মুখোশ বাহিনী’র মধ্য যুগীয় উল্লাস !

অনাদিরঞ্জন চাকমা’র হত্যার প্রতিবাদে খাগড়াছড়িতে ডিওয়াইএফ-এর বিক্ষোভ

রাঙ্গামাটি : নান্যাচর ‘নব্য মুখোশ’ বাহিনী কর্তৃক সাবেক ইউপি সদস্য অনাদি রঞ্জন চাকমাকে হত্যার প্রতিবাদ ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে খাগড়াছড়ি জেলা শহরে বিক্ষোভ মিছিল করেছে গণতান্তিক যুব ফোরাম(ডিওয়াইএফ)।

আজ মঙ্গলবার, ৫ ডিসেম্বর ২০১৭ বিকাল ৩টায় খাগড়াছড়ি জেলা সদর স্বনির্ভর বাজারস্থ ইউনাইটেড পিপলস্ ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) কার্যালয়ের সামনে থেকে মিছিল শুরু হয়ে চেঙ্গী স্কোয়ার ঘুুরে এসে স্বনির্ভর বাজারের খাগড়াছড়ি-পানছড়ি সিএনজি স্টেশনে এসে এক প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এসময় সেনাবাহিনীর সদস্যরা স্বনির্ভর এলাকায় বিভিন্নস্থানে অবস্থান নিয়ে এবং গাড়ি তল্লাসি চালিয়ে জনমনে আতংক সৃষ্টির চেষ্টা চালায়।

প্রতিবাদ সমাবেশে ডিওয়াইএফ খাগড়াছড়ি জেলা শাখার প্রতিনিধি অতুল চাকমার সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি) খাগড়াছড়ি জেলা শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি তপন চাকমা ও সহ-সাধারণ সম্পাদক এলটনা চাকমা।
সমাবেশ থেকে বক্তারা বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে নিয়োজিত এক শ্রেণির দুর্নীতিবাজ, উগ্র-সাম্প্রদায়িক ও প্রমোশন বাণিজ্যের সাথে জড়িত সেনা কর্মকর্তারা সমাজের দাগি অপরাধী ও দুষ্কৃতিকারীদের জড়ো করে সন্ত্রাসী তৎপরতা শুরু চালাচ্ছে। গত ১৫ নভেম্বর ২০১৭ রাষ্ট্রীয় বাহিনীর পৃষ্টপোষকতায় খাগড়াপুর কমিউনিটি সেন্টারে ইউপিডিএফ-এর নাম ভাঙ্গিয়ে তথাকথিত ‘ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিক’ নামে ‘নব্য মুখোশ’ বাহিনী সৃষ্টি করা হয়েছে। একইদিন রাষ্ট্রীয় বাহিনীর কড়া নিরাপত্তায় নব্য মুখোশ সর্দার বর্মাসহ ৯ জন সন্ত্রাসীকে নান্যাচর উপজেলায় পৌঁছে দেয়। পরে প্রশাসনের আশ্রয় প্রশ্রয়ে তাদেরকে দিয়ে নান্যাচর এলাকায় প্রকাশ্যে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালানো হচ্ছে। দীর্ঘদিন অপহরণ, চাঁদাবাজি ও চাঁদার জন্য জনগণকে বিভিন্ন হুমকি-ধামকি দেয়ার পর আজ ৫ ডিসেম্বর (মঙ্গলবার) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে নব্য মুখোশ বাহিনীর সন্ত্রাসীরা ২ নং নান্যাচর ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের সাবেক মেম্বার অনাদি রঞ্জন চাকমাকে খুন করে।
বক্তারা উক্ত ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, ইউপিডিএফ-এর নেতৃত্বে জুম্ম জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠার ন্যার্য আন্দোলনকে বাধাাগ্রস্ত করতে রাষ্ট্রযন্ত্র নানা রকম চক্রান্ত ও ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে। সমাবেশ থেকে সরকারের প্রতি হুঁশিয়ারী উচ্চারণ করে বক্তারা বলেন, শাসকগোষ্ঠী পার্বত্য চট্টগ্রাম নিয়ে যে ঘৃন্য সন্ত্রাসের খেলা শুরু করেছে তার ফলাফল শুভ হবে না। অন্যথায় পার্বত্য চট্টগ্রামের আপামর জনতাকে সাথে নিয়ে ছাত্র-যুব-নারী সমাজ তার দাঁত ভাঙ্গা জবাব দেবে। সমাবেশ থেকে বক্তারা নব্য মুখোশ সর্দার বর্মা-তরু গংকে ক্যান্টনমেন্টের ভেতর থেকে বেড়িয়ে এসে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসারও আহ্বান জানান। এছাড়াও আগামী বৃহষ্পতিবার ‘নব্য মুখোশ বাহিনী প্রতিরোধ কমিটি’ কর্তৃক আহুত রাঙামাটি জেলায় অর্ধ দিবস সড়ক ও নৌপথ অবরোধের প্রতি সমর্থন জানানো হয়।

উক্ত বিক্ষোভ সমাবেশে বিভিন্ন এলাকা থেকে শতাধিক ছাত্র যুবক নারী উপস্থিত ছিলেন।
_______
সিএইচটি নিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *