আবুল কালাম, রাব্বী ও তোফায়েলই মানিকছড়িতে সৃষ্ট ভূমি সমস্যার আসল নাটের গুরু!

0
1

সিএইচটি নিউজ ডটকম
মানিকছড়ি প্রতিনিধি ॥ খাগড়াছড়ি জেলার মানিকছড়ি ও রামগড়ের বিভিন্ন জায়গায় পাহাড়ি-বাঙালিদের মধ্যে একের পর এক ভূমি সংক্রান্ত যেসব ঘটনা ঘটছে তার পেছনে ১নং মানিকছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান কুখ্যাত ভূমি দস্যু আবুল কালাম-ই জড়িত রয়েছেন। আর তাকে এসব কাজে প্রত্যক্ষ-পরোক্ষভাবে সহযোগিতা করছেন সিন্দুকছড়ি জোন কমান্ডার রাব্বী আহসান ও গুইমারা ব্রিগেড কমান্ডার তোফায়েল আহমেদ। মানিকছড়ি উপজেলার গচ্ছাবিল এলাকার কয়েকজন বাঙালির সাথে কথা বলে এবং এলাকায় খোঁজ নিয়ে এসব তথ্য জানা গেছে।

মানিকছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম
মানিকছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম

গত ২ জুলাই থেকে মানিকছড়ি-রামগড় উপজেলার মনাদং পাড়া, বকরি পাড়া, মরা ডলু ও হাফছড়ির বিভিন্ন এলাকায় পাহাড়ি ও বাঙালিদের মধ্যে ভূমি বিরোধ নিয়ে দাঙ্গা-হাঙ্গামার মতো উত্তেজনাকর পরিস্থিতি চলছে। এ বিষয়ে গচ্ছাবিল এলাকার বাসিন্দা কয়েকজন বাঙালির সাথে (নাম গোপন রাখা হলো) মোবাইলে কথা হয় এ প্রতিবেদকের। তারা দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, এসব ঘটনার পেছনে মূলত চেয়ারম্যান আবুল কালাম-ই জড়িত রয়েছেন।

আবুল কালামের এতই দাপট যে, তিনি ইউপি চেয়ারম্যান হলেও উপজেলা পরিষদের যাবতীয় কার্যক্রমও পরিচালনা করছেন। উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে ¤্রাগ্য মারমা দায়িত্বে থাকলেও তিনি আসলে স্বাক্ষী গোপাল মাত্র! আবুল কালাম ছাড়া তিনি কোন সিদ্ধান্তই দিতে পারেন না- এমন অভিযোগও পাওয়া গেছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এলাকার স্থানীয় পাহাড়ি-বাঙালিদের নিকট চেয়ারম্যান আবুল কালাম একজন ‘ভূমি দস্যু’ হিসেবে পরিচিত। আবুল কালাম এত দাপুটে হওয়ার পেছনে রয়েছে তাঁর দুটি যাদুর কাঠি। একটি হচ্ছে- ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের একজন খুবই প্রভাবশালী মস্তান আর অন্যটি হচ্ছে গুইমারা ব্রিগেড কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল তোফায়েল আহমেদ ও সিন্দুক ছড়ি জোন কমান্ডার লে. ক. রাব্বী আহসান। তাদের সাথে রয়েছে চেয়ারম্যান আবুল কালামের সখ্যতা। এই তিনজনের দ্বারাই মানিকছড়ি ও রামগড়ে জায়গা-জমি নিয়ে পাহাড়ি-বাঙালির মধ্যে মারামারি, খুনোখুনি হচ্ছে। মুলত: এরাই নাটের গুরু হিসেবে মানিকছড়ি-রামগড়ের বিভিন্ন এলাকায় ভূমি বেদখল কাজে সেটলারদের উস্কে দিয়ে পরিস্থিতি ঘোলাটে করতে চাচ্ছেন।

এ বিষয়ে মানিকছড়ি সদর ও তার পার্শ্ববতী এলাকার কয়েকজন পাহাড়ি জনপ্রতিনিধি ও মুরুব্বীর কাছ থেকে জানতে চাইলে তারাও গচ্ছাবিল এলাকার বাঙালিদের এসব অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
——————

সিএইচটিনিউজ.কম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.