খাগড়াছড়িতে হরতাল চলাকালে পাহাড়ি-বাঙালি ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া

0
0
খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি
সিএইচটিনিউজ.কম

* বাঙালিদের হামলায় আহত এক পাহাড়ি।
  ছবি  সৌজন্যে: সিএইচটি নিউজ বাংলা
খাগড়াছড়ি: খাগড়াছড়িতে বহিরাগত বাঙালিদের সংগঠন সমঅধিকার আন্দোলন ও বাঙালি ছাত্র পরিষদের ডাকা সকাল-সন্ধ্যা হরতাল চলাকালে উপজেলা ও সাংস্কৃতিক ইনস্টিটিউট এলাকায় হরতাল সমর্থক পিকেটারদের গাড়ি ভাঙচুর ও চালকদের মারধর করাকে কেন্দ্র করে বাঙালি ও পাহাড়ি ছেলেদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। আজ ২ জুন রবিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এতে কমপক্ষে ৫ জন পাহাড়ি আহত হয়েছেন।
জানা যায়, রবিবার সকালে হরতাল সমর্থক পিকেটাররা উপজেলা পরিষদ ও সাংস্কৃতিক ইনস্টিটিউট এলাকায়  ব্যাটারি চালিত অটো রিক্সা(টমটম) ভাঙচুর ও চালকদের মারধর করতে থাকলে স্থানীয় পাহাড়ি ছেলেরা এতে বাধা দেয়।  এতে বাঙালি ছেলেরা উত্তেজিত হয়ে পাহাড়ি ছেলেদের উপর হামলার চেষ্টা করলে এ ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।  পাহাড়ি ছেলেদের ধাওয়া খেয়ে বাঙালি ছেলেরা প্রথমে সরে গিয়ে কলেজ গেট এলাকায় চলে যায়। পরে তারা আবারো সংগঠিত হয়ে এসে পিকেটিং করার চেষ্টা চালালে আরেক দফা ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।
এ ঘটনার কিছুক্ষণ পর উপজেলার কাছাকাছি সবুজবাগ এলাকার দিক থেকে শতশত বহিরাগত বাঙালি পরিকল্পিতভাবে লাঠিসোটা নিয়ে পাহাড়িদের এলাকায় প্রবেশের চেষ্টা চালায়। এসময় পাহাড়িরাও নিজেদের এলাকায় সংগঠিত হয়ে প্রতিরোধের চেষ্টা করলে উভয় পক্ষ মূখোমূখি অবস্থানে চলে যায়। এমন পরিস্থিতিতে স্থানীয় পাহাড়িরা পরিস্থিতি শান্ত করার জন্য এগিয়ে গেলে তাঁদের উপর অতর্কিতে হামলা চালানো হয়। এতে কমপক্ষে ৫জন পাহাড়ি আহত হয়।

এ ঘটনার পর পাহাড়িরা সংগঠিত হয়ে বাড়িঘর ও জানমাল রক্ষার্থে প্রতিরোধ জোরদার করলে বাঙালিরা পিছু হটতে বাধ্য হয়। পরে পুলিশ ও সেনাবহিনী ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসে। বর্তমানে পরিস্থিতি কিছুটা শান্ত রয়েছে।

উল্লেখ্য, পার্বত্য চট্টগ্রাম ভূমি বিরোধ নিষ্পত্তি কমিশন (সংশোধনী) আইনের খসড়া মন্ত্রীসভায় অনুমোদন দেওয়ার প্রতিবাদে পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদসহ বাঙালিদের কয়েকটি সংগঠন খাগড়াছড়ি সহ তিন পার্বত্য জেলায় সকাল-সন্ধ্যা এ হরতাল পালন করছে।

এ হরতাল কর্মসূচিকে পুঁজি করে বাঙালিরা(সেটলাররা) সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা সৃষ্টির চক্রান্ত চালাচ্ছে বলে অভিজ্ঞ মহল মনে করছেন।
—–


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.