খাগড়াছড়িতে চাবাই মগের ২৭তম মৃত্যুবার্ষিকীতে স্মরণসভা অনুষ্ঠিত

0
1

 খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি, সিএইচটিনিউজ.কম
“নিঃশেষে প্রাণ-করিবে যে দান, ক্ষয় নাই-তার ক্ষয় নাই” শ্লোগানে মারমা উন্নয়ন সংসদে প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক চাবাই মগের ২৭তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে স্মরণসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ ৩ জানুয়ারি শুক্রবার সকালে মারমা উন্নয়ন সংসদ হল রুমে মারমা উন্নয়ন সংসদ সদর শাখার সভাপতি উচিংমং মারমা’র সভাপতিত্বে স্মরণসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও মারমা উন্নয়ন সংসদের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি চাইথোঅং মারমা। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে স্মরণসভায় স্মৃতিচারণ করেন যথাক্রমে চাবাই মগের সহ-ধর্মিনী রেডামা চৌধুরী, মারমা উন্নয়ন সংসদের সদস্য অংসুই মারমা, সদর উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান মিসেস বাশরী মারমা, সম্পাদক সাথোয়ই প্রু মারমা, সদস্য ক্যজরী মারমা, মারমা যুব কল্যান সংসদের সম্পাদক মংসাপ্রু মারমা, বাংলাদেশ মারমা ষ্টুডেষ্টস কাউন্সিলের জেলা শাখার সভাপতি সাচিং মারমা ও সহ-সভাপতি চাইহ্লাউ মারমা প্রমুখ । সভায় মারমা ষ্টুডেন্টস কাউন্সিল ও মারমা যুব কল্যান সংসদ নেতৃবৃন্দসহ মারমা সমাজের বিভিন্ন এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিগণ উপস্থিত ছিলেন। এর আগে চাবাই মগের অস্থায়ী স্মৃতিস্তম্ভে ফুলদিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়।

বক্তারা বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামের মারমাদের সামাজিক উন্মেষ ও অগ্রগতির পথিক চাবাই মগ । মেধা আর শ্রমের মধ্য দিয়ে তার অগ্রযাত্রা শুরু হয়েছিল । চাবাই মগ একজন সাধারন ব্যক্তি নন, তিনি এক অনন্য ইতিহাস । মারমা সমাজের কাছে তিনি অবিস্মরণীয় ও অবিসংবাদিত নেতা । চাবাই মগ ছাত্র জীবনেই সমাজ ও রাজনৈতিক সচেতন হয়ে উঠেন  এবং রাংগামাটিতে প্রথম ছাত্র সংগঠন “পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ী ছাত্র সমিতি”তে প্রথমে সাধারন সম্পাদক ও পরে সহ-সভাপতি নিযুক্ত হন । চাবাই মগ খাগড়াছড়ির পিছিয়ে থাকা মারমা সম্প্রদায়কে রাজনৈতিক আন্দোলনের পরিবর্তে সামাজিক আন্দোলনের মাধ্যমে সমাজকে কলুষমুক্ত করে উন্নয়নের দিকে ধাবিত করতে এবং সমাজে সৃজনশীল কর্মের উন্মেষ ঘটাতে চেয়েছিলেন। সে লক্ষে তিনি প্রথমে পানখাইয়া পাড়ার যুবকদের নিয়ে ১৯৮১সালে “পার্বত্য চট্টগ্রাম মারমা যুব কল্যান সমিতি” নামে একটি সামাজিক সংগঠন প্রতিষ্ঠা  করেন । স্বল্প সময়ে উক্ত সংগঠনটির গুরুত্ব বৃদ্ধি পায় । ১৯৮২সালে ২১ফেব্রুয়ারী তারিখে ‍“মারমা উন্নয়ন সংসদ” নামে বৃহৎ সামাজিক সংগঠনে রুপান্তরিত করা হয় । তার একক প্রচেষ্টা ১৯৮৪সালে খাগড়াছড়িতে প্রথম মারমা সম্মেলন অনষ্ঠিত হয় । তিনি কঠোর পরিশ্রম ও সাংগঠনিক চেষ্টা চালিয়ে উপজেলা পর্যায়ে ৯টি শাখা সংগঠন সৃষ্টি করে জেলাব্যাপী এর কার্যক্রম বিস্তৃত করেন ।

উল্লেখ্য, ১৯৮৭সালে ৩ জানুয়ারি খাগড়াছড়ি সদর উপজেলাধীন ভাইবোনছড়ার জুরমরমে সরকারী দায়িত্ব পালনকালে রাবার বাগান হতে একদল দুস্কৃতিকারী কর্তৃক অপহরন হয়ে নিঁখোজ হন চাবাই মগ। বহু অনুসন্ধান করেও অদ্যাবধি তার কোন হদিস মিলেনি । চাবাই মগের ৩৯ বৎসরে জীবনকালে মাত্র ৫বৎসর খাগড়াছড়িতে ছিলেন। কিন্তু এ স্বল্পকালে তিনি মারমা সমাজের প্রগতিকে অনেকদূর এগিয়ে নিয়ে গেছেন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.