খাগড়াছড়িতে পিসিপি’র সংবাদ সম্মেলন: বিপুল চাকমা’র মুক্তির দাবিতে লাগাতার কর্মসূচি ঘোষণা

0
1

৯ নভেম্বর হ’তে খাগড়াছড়িসহ বিভিন্ন স্থানে সংহতি সমাবেশ,  ১৩ নভেম্বর ঢাকায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন

pcp-press-conference2-11-16খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: সম্প্রতি গুরুতর অসুস্থ মায়ের সামনে থেকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে চরম অমানবিকভাবে গ্রেফতারকৃত সাধারণ সম্পাদক বিপুল চাকমার মুক্তির দাবিতে লাগাতার কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ(পিসিপি)।

আজ বুধবার (২ নভেম্বর) বিকাল তিনটায় খাগড়াছড়ি জেলা সদরের স্বনির্ভরস্থ ইউপিডিএফ কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন থেকে এ কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন পিসিপি’র সহ-সভাপতি বিনয়ন চাকমা সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন। এছাড়া এতে আরো উপস্থিত ছিলেন, পিসিপি’র ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক বিপুল চাকমা ও সাংগঠনিক সম্পাদক অনিল চাকমা।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, পিসিপি নেতা বিপুলে’র গ্রেফতার আর তার পরে পরে মায়ের মৃত্যু–ঘটনাটি এতই হৃদয় বিদারক মর্মস্পর্শী, তা যে কোন বিবেকবান মানুষকে নাড়া দিতে বাধ্য। ২৫ অক্টোবর দাহক্রিয়ার দিনে যে শোকাবহ দৃশ্যের সৃষ্টি হয়, তাতে শুধু এলাকাবাসী নয় এমনকী ডিউটিরত পুলিশ সদস্যদের মধ্যে কেউ কেউ চোখের জল ধরে রাখতে পারেনি। নিরবে তারা জনতার আবেগের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করে। এছাড়া আরো বলা হয়, বিপুল চাকমা’কে অসুস্থ মায়ের কাছ থেকে ছিনিয়ে নিয়ে গ্রেফতার এবং মায়ের সম্মুখে গালি গালাজের ঘটনা, মায়ের মৃত্যুর পরও বিপুলের প্রতি অবিচার থামে নি। মায়ের দাহক্রিয়ায় তাকে দাগী আসামীর মত হাতে হাতকড়া-পায়ে ডান্ডাবেড়ি পরিয়ে নেয়া হয়েছে, যা বিবেকবানদের মর্মাহত করেছে। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে লেখালেখি হয়েছে এবং এখনও হচ্ছে। বলতে গেলে প্রতিবাদ অব্যাহত আছে।

পার্বত্য চট্টগ্রামের বর্তমান অসহনীয় পরিস্থিতি তুলে ধরে সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়,  এখানে শাসকগোষ্ঠী আইন বিধি জারি করে রাষ্ট্রীয় পলিসি মাফিক দমন-পীড়ন চালাচ্ছে। এই অন্যায় কর্তৃত্বকে জায়েজ করতে শাসকগোষ্ঠীর ষড়যন্ত্রের শেষ নেই। সেই ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে পাহাড়ে উগ্র বাঙালি জাতীয়তাবাদী কায়েমী স্বার্থবাদী দুর্নীতিবাজ আমলা-সেনা-ব্যবসায়ীরা সেটলারদের সাম্প্রদায়িক উসকানী দেয় বলে পিসিপি নেতৃবৃন্দ সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে বিপুল চাকমার মুক্তির দাবিতে পানছড়ি এলাকাবাসীর আহূত আগামীকালের ৩ নভেম্বরের হরতালের প্রতি পূর্ণ সমর্থন ব্যক্ত করা হয় এবং পিসিপি’র কেন্দ্রীয় কমিটির পক্ষ থেকে নিম্নোক্ত কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।

কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে- বিপুল’কে অমানবিক পন্থায় গ্রেফতারের নিন্দা, ওসি’র বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ, ধরপাকড় বন্ধ ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের ১১দফা নির্দেশনা প্রত্যাহার দাবির সপক্ষে ৩ নভেম্বর হতে গণ স্বাক্ষর সংগ্রহ অভিযান;  ৯ নভেম্বর ২০১৬ খাগড়াছড়ি সদরে সংহতি সমাবেশ; ১২ নভেম্বর, ২০১৬ রাঙ্গামাটিতে সংহতি সমাবেশ;  ১১ নভেম্বর ২০১৬ চট্টগ্রামে সংহতি সমাবেশ ও ১৩ নভেম্বর ঢাকায় সংহতি সমাবেশ ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন, স্মারকলিপি পেশ।

এদিকে, সংবাদ সম্মেলন শেষে সেনাবাহিনীর একটি দল ইউপিডিএফ কার্যালয়ে ঢুকে সাংবাদিকদের সামনে থেকে পিসিপি’র কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি বিনয়ন চাকমা ও সাংগঠনিক সম্পাদক অনিল চাকমাকে আটক করে নিয়ে যায়। এ ঘটনার তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া জানিয়ে পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক বিপুল চাকমা আজকের মধ্যে আটককৃতদের মুক্তি দেওয়া না হলে আগামীকাল ৩ নভেম্বর ২০১৬ বৃহস্পতিবার খাগড়াছড়ি জেলায় সকাল-সন্ধ্যা সড়ক অবরোধ পালনের ঘোষণা দেন।
—————

সিএইচটি নিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.