খাগড়াছড়ির রোওয়াছায় পাড়ায় ভূমি বেদখল পাঁয়তারা, জনগণকে প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহবান

0
0

Khagrachariখাগড়াছড়ি : খাগড়াছড়ি সদরের দক্ষিণ পুর্বে তেঁতুলতলা গ্রামের পাশে অবস্থিত রোওয়াছায় পাড়ার ভুমি বেদখল করার ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে বলে খবর পাওয়া গেছে। সেনাবাহিনীর প্রত্যক্ষ সহায়তায় সেটলাররা এই গ্রামের ভুমি দখল করার জন্য চেষ্টা করছে। এই বেদখল প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে গত ১৩ আগস্ট রবিবার সেনাবাহিনীর প্রায় ৫/৬ টি গাড়িতে করে সেনা সদস্য ও সেটলাররা উক্ত গ্রামে যায়ন সেখানে তারা গ্রামবাসী ও গ্রাম প্রধানের সাথে কোনো ধরণের আলোচনা না করে গ্রামের জায়গা ঘুরতে থাকে ও ছবি তুলতে থাকে। গ্রামবাসীরা কৌতূহলবশতঃ তাদেরকে গ্রামে কেন ছবি তুলছে এই প্রশ্ন করলে তারা জানায়, ‘উপর মহলের নির্দেশে’ তারা এই কাজ করছে। খাগড়াছড়ি সদরস্থ সেনাক্যাম্প থেকে উক্ত সেনাদলটি রোওয়াছায় পাড়ায় যায় বলে খবর পাওয়া গেছে। সেনাদলটির নেতৃত্বে কোন সেনা অফিসার ছিল তা জানা সম্ভব হয়নি। তবে উক্ত টিমের সাথে শালবাগান ও ভুয়াছড়ি সেটলার পাড়ার বেশ কয়েকজন সেটলার ছিল বলে খবর পাওয়া গেছে।

এদিকে বেশ কয়েকদিন ধরে রোওয়াছায় পাড়া ও তার আশেপাশের পাহাড়ি গ্রামে এই গুজব ও ভীতি ছড়িয়ে দেয়া হচ্ছে যে, সেটলাররা কিছুদিনের মধ্যে সেনাবাহিনীর সহায়তা নিয়ে ঐক্যবদ্ধ হয়ে উক্ত গ্রামে হামলা চালাবে এবং জোর করে পাহাড়িদের জায়গা কেড়ে নেয়ার চেষ্টা চালাবে।

তবে এদিকে পাহাড়ি গ্রামের জনগণ এই গুজব শোনার পর থেকে ভুমি বেদখল প্রচেষ্টাকে প্রতিরোধ করতে ঐক্যবদ্ধ হচ্ছে। রোওয়াছায় পাড়া এলাকার জনগণও এই ভুমি বেদখল প্রচেষ্টার বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে আশেপাশের এলাকাসহ পার্বত্য চট্টগ্রামের সকলের প্রতি উদাত্ত আহবান জানিয়েছে।

এখানে বলা প্রয়োজন যে, দুই এক বছর আগেও সেটলাররা উক্ত গ্রামে এসে জায়গা দখল করতে চেষ্টা করেছিল। তবে পাহাড়ি জনগণ প্রতিরোধ গড়ে তোলায় পরে পুলিশ প্রশাসনের হস্তক্ষেপে সেটলাররা গ্রাম থেকে চলে যেতে বাধ্য হয়।
—————–
সিএইচটিনিউজ.কম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.