বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর, ২০১৮
সংবাদ শিরোনাম

গুইমারাতে ৫ নারী সংগঠনের সমাবেশ অনুষ্ঠিত

গুইমারা: সকল প্রকার নারী নির্যাতন, ধর্ষণ ও খুনের বিচার কর! রমেল খুনিদের সাজা দাও! নারী ধর্ষণের মেডিকেল টেস্ট রিপোর্ট প্রদানে পার্বত্য চট্টগ্রামে জারিকৃত গোপন নিষেধাজ্ঞা বাতিলের দাবিতে আজ ২৮ এ্রপ্রিল ২০১৭ (শুক্রবার) গুইমারা উপজেলায় বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে পার্বত্য চট্টগ্রামে ৫ নারী সংগঠন।

সমাবেশ শুরুতে সেনাবাহিনী পুলিশকে সাথে নিয়ে বাধাপ্রদানের চেষ্টা চালায়। তাদের সে বাধা তোয়াক্কা না করে গুইমারা টাউন হল থেকে মিছিলটি শুরু হয়। এরপর গুইমারা মডেল উচ্চ বিদ্যালয় গেইটের সামনে সমাবেশে মিলিত হয়।18197835_1918826448393376_206974481_n

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন নারী আত্নরক্ষা কমিটি সদস্য সচিব উক্রাচিং মারমা, হিল উইমেন্স ফেডারেশন খাগড়াছড়ি জেলা শাখা সভাপতি দ্বিতীয়া চাকমা। সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট মাটিরাংগা উপজেলা শাখার সদস্য পদ্ম রানী ত্রিপুরা।

বক্তারা বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে পাহাড়ি নারীরা অহরহ যৌন নির্যাতনের শিকার হচ্ছে ও ধর্ষনের শিকার হচ্ছে। কিন্ত ভিকটিমরা কোনো বিচার চেয়েও সঠিক বিচার পাচ্ছে না। এমনকি ধর্ষণের মেডিকেল পরীক্ষার রিপোর্টের উপর সরকারের গোপন নিষেধাজ্ঞা জারি থাকায় অপরাধীরা পার পেয়ে যাচ্ছে এবং ভূক্তভূগীরা ন্যায় বিচার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। ফলে দিনের পর দিন নারী নির্যাতন, ধর্ষণ ও খুনের মতো অপরাধের মাত্রা বৃদ্ধি পাচ্ছে।18197802_1918826335060054_1889950137_n

সমাবেশে দ্বিতীয়া চাকমা বলেন, দেশের অন্যান্য জায়গার তুলনায় পাহাড়ে নারীরা সবচেয়ে বেশী অনিরাপদ। এখানে অঘোষিতে সেনা শাসন জারি রয়েছে। তার উপর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের দমনমূলক অগণতান্ত্রিক “১১ নির্দেশনা” জারি করে পার্বত্য চট্ট্রগামে সেনাবহিনীর হাতে অধিকতর ক্ষমতা দেয়ার মাধ্যমে জাতিগত নিপীড়ন ও দমন-নির্যাতনকে বৈধতা দেয়া হয়েছে। ৫ নারী সংগঠন এর অবসান চাই।

সমাবেশ থেকে পার্বত্য চট্টগ্রামে ধধর্ষণের মেডিকেল পরীক্ষার সঠিক রিপোর্ট প্রদানে সরকারের গোপন নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের দাবী জানানো হয়। এছাড়াও পিসিপি নেতা রমেল চাকমা সেনাবাহিনীর নির্যাতনে মৃত্যুর তীব্র নিন্দা এবং অবিলম্বে সু্ষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠনের দাবী জানানো হয়।

সমাবেশ শেষে মিছিল নিয়ে স্কুল গেইট থেকে টাউন হলে ফিরে এসে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দিয়ে শেষ হয়।

সমাবেশে গুইমারা উপজেলার বিভিন্ন গ্রাম থেকে দুই শতাধিক নারী অংশ গ্রহন করে।
__________
সিএইচটি নিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.