শনিবার, ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৭
সংবাদ শিরোনাম

ছাত্র নেতা রমেল চাকমা হত্যার বিচারের দাবিতে বান্দরবানে ইউপিডিএফ ও যুব ফোরামের মানববন্ধন

বান্দরবান প্রতিনিধি: সেনাবাহিনী  কর্তৃক ছাত্র নেতা রমেল চাকমাকে হত্যার প্রতিবাদে এবং হত্যাকারী নান্যাচর জোন কমান্ডার বাহালুল আলম ও মেজর তানভীরসহ জড়িত সেনাদের দ্রুত গ্রেপ্তার, বিচার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে সোমবার (৮ মে ২০১৭ইং) সকাল ১১টায় বান্দরবান প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন করেছে ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট ( ইউপিডিএফ) বান্দরবান জেলা ইউনিট ও গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম ।

Bandarban

উক্ত মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন ইউপিডিএফ বান্দরবান জেলার প্রধান সংগঠক ছোটন কান্তি তঞ্চঙ্গ্যা। এতে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন পিসিপির চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সম্পাদক রুপন চাকমা, গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের চট্টগ্রাম মহানগর শাখা সহ-সভাপতি উচিংশৈ চাক(শুভ) ও যুব ফোরামের বান্দরবান জেলা কমিটির সদস্য পাইমং মারমা প্রমুখ।  সঞ্চালনা করেন যুব নেতা প্রতিম চাকমা।

ইউপিডিএফ নেতা,ছোটন কান্তি তঞ্চঙ্গ্যা বলেন, শহীদ রমেল চাকমা’র আজ নিপীড়িত জনগণের আন্দোলনের প্রতীক। এই আন্দোলন পাহাড় সমতলসহ সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে। কোন জাতিকে হত্যা করে তার ন্যায্য আন্দোলনকে কখনো স্তব্ধ করা যাবেনা। সেনাবাহিনীর কর্তৃক বিচারবর্হিভূত হত্যাকাণ্ড কখনো মেনে নেয়া যায় না। এর অবশ্যই বিচার হতে হবে।

Bandarban3

বক্তারা অবিলম্বে বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটির গঠন করে দায়ী নান্যাচর জোন কমান্ডার বাহালুল আলম ও মেজর তানভীরসহ জড়িত সেনাদের গ্রেপ্তার-বিচার ও শাস্তি প্রদানসহ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কর্তৃক জারীকৃত দমনমূলক ১১নির্দেশনা ও পাহাড় থেকে সেনা ক্যাম্প প্রত্যাহারপূর্বক সেনাশাসন অবসানের জোর দাবি জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, গত ৫এপ্রিল নান্যাচর কলেজের এইচএসসি পরীক্ষার্থী ও পিসিপি’র নান্যাচর থানা শাখার সাধারণ সম্পাদক  রমেল চাকমাকে বিনা কারণে আটক করে সেনাজোনে নিয়ে অমানুষিক নির্যাতন করা হয়। এরপর অসুস্থ অবস্থায় সেনা নজরদারিতে চট্টগ্রাম মেডিকেলে ১৪দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর ১৯ এপ্রিল তার মৃত্যু হয়।
—————–
সিএইচটি নিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *