জাতিগত বিভেদ-বিবাদের বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলুন- সচেতন ছাত্র সমাজ

1
0

সিএইচটিনিউজ.কম
humancharinkhagrachari,8.12.2014খাগড়াছড়ি: “স্বার্থান্বেষী কুচক্রী মহলের চক্রান্ত রুখে দিন, জাতিগত বিভেদ-বিবাদের বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলুন” এই আহ্বানে সচেতন ছাত্র সমাজের ব্যানারে খাগড়াছড়িতে মানববন্ধন অনষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার (৮ ডিসেম্বর ২০১৪) বিকাল ৪টার সময় খাগড়াছড়ি শহরের চেঙ্গী স্কোয়ারে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে অনার্স ৩য় বর্ষের ছাত্র উক্যসিং মারমার সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন পাইচিমং মারমা, ওয়াকিমং চৌধুরী, সাপ্রু মারমা, কৃষ্টি চাকমা, পূর্ণকিশোর চাকমা প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, গত ৬ ডিসেম্বর মানিকছড়ি উপজেলার গচ্ছাবিল কলেজিয়েট হাইস্কুলের শিক্ষক চিংসামং মারমার মৃত্যুকে কেন্দ্র করে সুবিধাবাদী অংশটির মধুপুর বাজারে ও মহাজন পাড়ায় ঘরবাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভাংচুরের মাধ্যমে সাম্প্রদায়িক পরিস্থিতি সৃষ্টির চেষ্টা শাসকগোষ্ঠীর প্রত্যক্ষ মদদ ছিল।

বক্তারা আরো বলেন, পার্বত্য চট্টগ্র্রামে শাসক-শোষক গোষ্ঠী চাকমা, মারমা, ত্রিপুরা সহ জাতিগোষ্ঠীগুলোর মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করে দিয়ে জুম্ম ধ্বংসের পাঁয়তারা করছে। তাঁরা বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম আমাদের জন্মভূমি, আমরা এখানে স্বাধীনভাবে বেঁচে থাকার অধিকার চাই। কিন্তু শাসকশ্রেণী পার্বত্য চট্টগ্রামকে মৃত্যু উপত্যাকা বানানোর ষড়যন্ত্র করছে। এর বিরুদ্ধে চাকমা, মারমা, ত্রিপুরা সহ সকল জাতিগোষ্ঠীর ছাত্র ও জনগণকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।1

মানববন্ধন থেকে একটি প্রচারপত্র বিলি করা হয়। এতে বলা হয়, …জাতিগত বিভেদ, অবিশ্বাস ও বিবাদের বাতাবরণ খুবই পরিকল্পিতভাবে করা হচ্ছে। রাষ্ট্রীয় সংস্থাগুলো “ভাগ কর অতঃপর শাসন কর” নীতির প্রয়োগে অপতৎপরতা অব্যাহত রেখেছে। জাতিসত্তাগুলোর মধ্যেকার বিরাজমান সাংস্কৃতিক-ভাষাগত দূরত্বকে কাজে লাগিয়ে তাদের পরস্পরের মুখোমুখি দাঁড় করিয়ে দিচ্ছে এই শাসন নীতি। ফলে আজ পাহাড়ের প্রতিটি জাতিসত্তা দিন দিন হয়ে পড়ছে পরস্পর থেকে বিচ্ছিন্ন, ক্ষুদ্র থেকে ক্ষুদ্রতর, অসহায় থেকে আরো অসহায়। কিন্তু আমরা একবারও বিচার করছি না যে রাষ্ট্রের নিপীড়ন, ধর্ষণ থেকে একটি জনগোষ্ঠীও রেহাই পাচ্ছে না। শোষন-নির্যাতন-আগ্রাসনের শিকার আজ পাহাড়ের প্রতিটি জাতিসত্তা।…

এতে আরো বলা হয়, এখনই সময় এসেছে ভ্রাতৃঘাতি সংঘাতের বিরুদ্ধে জনমত গঠন করার। রাষ্ট্রের কুচক্রী-স্বার্থান্বেষীদের চিহ্নিত করে তাদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার। … জাতিগত বিভেদের বাতারণকে ভেঙে আমাদের সামনে এগিয়ে যেতে হবে ঐক্যবদ্ধ হয়ে, আত্মনিয়ন্ত্রণাধীকারের দাবি নিয়ে।

প্রচারপত্রে ভ্রাতৃঘাতি সংঘাত, ঘটে যাওয়া ক্রমাগত রাজনৈতিক হত্যাকান্ড, জাতিগত বিভেদ-বিবাদ-অবিশ্বাস এবং কুচক্রী মহলের বিরুদ্ধে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে গণআন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানানো হয়।
————–

সিএইচটিনিউজ.কম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.