জাতীয় অস্তিত্ব রক্ষার্থে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে- সুমনালংকার মহাথেরো

0
0

সিএইচটিনিউজ.কম
P1030373খাগড়াছড়ি: জাতীয় অস্তিত্ব রক্ষায় সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন ভদন্ত সুমনালংকার মহাথেরো।

খাগড়াছড়ি শহরের মিলনপুর বৌদ্ধ বিহারে প্রায়ত বিহারাধ্যক্ষ শ্রীমৎ আর্য্যরত্ন মহাথেরো’র অন্ত্যোষ্টিক্রিয়া উপলক্ষে গতকাল ২৮ ডিসেম্বর সকালে আয়োজিত এক ধর্মীয় অনুষ্ঠানে দেশনাকালে তিনি এ আহ্বান জানান।

সুমনালংকার মহাথেরো আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রসিত খীসা’র প্রার্থী হওয়ার বিষয়টি সবার জন্য খুবই আশাব্যঞ্জক মন্তব্য করে বলেন, তিনি আগেও একবার নির্বাচন করেছিলেন। বিভিন্ন কারণে তিনি জিততে পারেন নি। তবে বর্তমান প্রেক্ষাপটটা ভিন্ন। আপনারা যদি সবাই ঠিক থাকতে পারেন তাহলে তিনি নিশ্চয় জয়যুক্ত হবেন। এ ব্যাপারে সকলের চিন্তাভাবনা করা উচিত। যদিও নানা জনের নানা মত থাকতে পারে কিন্তু জাতীয় অস্তিত্বের পেছনে যাতে সবাই একমত হতে পারে।

তিনি আরো বলেন, আমাদের জুম্মদের মধ্যে যে অশনি সংকেত দেখা দিয়েছে সে বিষয়ে একজন সাধারণ মানুষও কি চিন্তা করে যে আমাদের কি হতে পারে? যেখানে দ্বিধাবিভক্ত, খন্ড খন্ড দল দল হয়ে গেছে, যেখানে ঐক্যের প্রয়োজন সে জায়গায় আবার অনৈক্য বৃদ্ধি পাচ্ছে। এমন হলে আমাদের কি হবে? আয়তনে কম কিন্তু বিশাল এই জনসংখ্যার দেশে কয়েক লাখ জুম্ম জনগণ এ অবস্থায় আমরা কিভাবে ঠিকে থাকবো? এমতাস্থায় আমাদের একতাবদ্ধ বা ঐক্যবদ্ধ হওয়া ছাড়া কোন উপায় নেই। তা না হলে আমাদের অস্তিত্ব বিপন্ন হওয়ার যথেষ্ট সম্ভাবনা রয়েছে। কাজেই, এই বিষয়গুলো আমাদের নেতাদের ভালোভাবে চিন্তা করে অবশ্যই জাতির হাল ধরা ধরকার। আমি প্রসিত খীসাকে আশীর্বাদ করছি তিনি যেন সে ধরণের চিন্তা করে খুব ভালোভাবে কৌশল নির্ধারণের মাধ্যমে সামনে অগ্রসর হতে পারেন। আমি দৃঢ়ভাবে আশাবাদী তিনি তা করতে পারবেন।

তিনি বলেন, আমি সম্প্রতি মালেশিয়া সফর গিয়েছি একটা কনফারেন্সে। সেখানে আমি দেখেছি হিন্দু, বৌদ্ধ ও মুসলমানদের মধ্যে সুন্দর বুঝাপড়া এবং ঐক্য রয়েছে। তাদের মধ্যে রয়েছে পারস্পারিক সৌহার্দ্য। কিন্তু বাংলাদেশে এটি অনুপস্থিত। একটু সুযোগ পেলে আমাদের উপর সম্প্রদায়িক আঘাত আসে। আমরা জাতিগতভাবে বিভিন্নভাবে দুর্বল। আমাদের মধ্যে যদি অনৈক্য থাকে তাহলে আমরা টিকে থাকবো কিভাবে? তাই, জাতীয় স্বার্থে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার জন্য তিনি সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

তিনি বুদ্ধের শিক্ষার উদাহরণ দিয়ে বলেন, বুদ্ধ বলেছেন কিসের এত হাসি, কিসের এত আনন্দ, কিসের এত হা হুতাশ? সবসময় কি অবিদ্যা, অন্ধাকরে নিমজ্জিত হয়ে হা-হুতাশ করবো? একটুও কি আলোর প্রদীপ জ্বালতে পারি না? এই মানব জীবনকে অত্যন্ত দুঃখময়, অনেক সমস্যা আছে। এই যে সমস্যা, এই যে দুঃখময় জীবন এর থেকে উর্ত্তীর্ণ হওয়ার জন্য, সমস্যাকে দূরীভূত করার জন্য আমাদের কি একটুও চেষ্টা করতে হবে না?

অনুষ্ঠানে ভিক্ষুসংঘের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন-সাদামনের মানুষ খ্যাত ভদন্ত তিলোকানন্দ মহাথেরো, আম্রকানন বৌদ্ধ বিহারের অধ্যক্ষ প্রজ্ঞালোক স্থবির, তেতুলতলা ভাবনা কেন্দ্রের আবাসিক ভিক্ষু জ্ঞান বংশ স্থবির ও সুবলং হাজাছড়া বৌদ্ধ বিহারের অধ্যক্ষ সংঘপাল মহাথেরো।

অনুষ্ঠানে আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে খাগড়াছড়ি আসনের ইউপিডিএফ মনোনীত প্রার্থী প্রসিত বিকাশ খীসাও উপস্থিত ছিলেন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.