তুরস্ক কর্তৃক যুদ্ধাপরাধীদের ব্যাপারে নাক গলানোয় পার্বত্য চট্টগ্রামের ৭ সংগঠনের ক্ষোভ প্রকাশ

0
0

নিজস্ব প্রতিবেদক
সিএইচটিনিউজ.কম
পার্বত্য চট্টগ্রামের ৭ গণতান্ত্রিক সংগঠন গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম (ডিওয়াইএফ), পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি), হিল উইমেন্স ফেডারেশন (এইচডব্লিউএফ), সাজেক নারী সমাজ (এসএনএস), সাজেক ভূমি রক্ষা কমিটি (এসবিআরসি), ঘিলাছড়ি নারী সমাজ (জিএনএস) ও প্রতিরোধ সাংস্কৃতিক স্কোয়াড (পিএসএস) আজ শনিবার ২৯ ডিসেম্বর সংবাদপত্রে প্রদত্ত এক যুক্ত বিবৃতিতে দেশে চলমান যুদ্ধাপরাধীদের বিচারে তুরস্ক সরকারের নাক গলানো এবং ক্ষমতাসীন সরকারের দোমুখী ভূমিকায় বিস্ময় ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন
বিবৃতিতে ৭ গণতান্ত্রিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ বিচার চলাকালীন অবস্থায় তুরস্কের উচ্চ পর্যায়ের সরকারি দলের সফর, দূতিয়ালি ও অপরাধীদের সাজা মওকুপের সুপারিশকে দেশের আভ্যন্তরীণ ব্যাপারে নাক গলানোর সামিল এবং অগ্রহণযোগ্য বলে মন্তব্য করেছেন
সংবাদপত্রে প্রদত্ত বিবৃতিতে ৭ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ যুদ্ধাপরাধীদের বিচারে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও বিরোধী দল বিএনপির উভয়ের স্বীয় দলীয় স্বার্থ প্রাধান্য দেয়ারও তীব্র সমালোচনা করেছেননেতৃবৃন্দ কোন রূপ রাজনৈতিক পক্ষপাত না দেখিয়ে যুদ্ধাপরাধীদের নিরপেক্ষ বিচারের দাবি জানান
বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ পার্বত্য চট্টগ্রামে সংঘটিত ডজনের অধিক গণহত্যার বিচার এবং মানবতাবিরোধী খুনী যুদ্ধাপরাধীতুল্য সন্তু লারমা ও তার পোষ্যবাহিনীকে দুর্নীতি-কেলেঙ্কারিসহ বহু হত্যাকাণ্ডের অপরাধে বিচারের কাঠগড়ায় তোলার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন
বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেছেন গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের (ডিওয়াইএফ) সভাপতি নতুন কুমার চাকমা, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি)-এর সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক যথাক্রমে সুমেন চাকমা ও থুইক্য চিং মারমা, হিল উইমেন্স ফেডারেশনের সভাপতি কণিকা দেওয়ান, সাজেক নারী সমাজের সভানেত্রী নিরূপা চাকমা, সাজেক ভূমি রক্ষা কমিটির সভাপতি জ্ঞানেন্দু চাকমা ও প্রতিরোধ সাংস্কৃতিক স্কোয়াডের সদস্য সচিব আনন্দ প্রকাশ চাকমা

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.