দিঘীনালা সদরের ৬ গ্রামের গণ্যমান্য ব্যক্তিগণকে নিয়ে হাতি মার্কার সমর্থনে নির্বাচনী সভা অনুষ্ঠিত

0
0

সিএইচটিনিউজ.কম

দিঘীনালা: খাগড়াছড়ির দিঘীনালা উপজেলা সদরের ৬টি গ্রামের গণ্যমান্য ব্যক্তিগণকে নিয়ে আজ মঙ্গলবার দীঘিনালা সদরে এক নির্বাচনী প্রচার সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। উক্ত সভায় সভাপতিত্ব করেন থানা পাড়া গ্রামের বিশিষ্ট মুরুব্বি নরেন্দু কার্বারী।

10th parlament electionসভায় বক্তব্য রাখেন দীঘিনালা ইউনিয়ন পরিষদ ৪নং ওয়ার্ডের মেম্বার শান্তনা চাকমা, ৩৩নং কবাখালী ও ৫৬নং বড় হাজাছড়া মৌজার হেডম্যান দীপংকর দেওয়ান, ৩১নং বোয়ালখালী মৌজার হেডম্যান ত্রিদিব রায় পোমাং, অবসর প্রাপ্ত সরকারী কর্মকর্তা নিখিল দেওয়ান, কবাখালী ইউপি চেয়ারম্যান বিশ্বকল্যান চাকমা, দীঘিনালা উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সুপ্রিয় চাকমা, দীঘিনালা উপজেলার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শতরুপা চাকমা, সাবেক ইউপি মেম্বার ইন্দু বিকাশ চাকমা ও ইউপিডিএফএর কেন্দ্রীয় সদস্য শান্তিদেব চাকমা। সভা পরিচালনা করেন রিপন চাকমা চয়ন।

সভায় দীপংকর দেওয়ান তার বক্তব্যে বলেন, আমরা বিগত দু’টি সংসদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ-বিএনপিকে ভোট দিয়েছিলাম। কিন্তু তারা সংসদে গিয়ে জুম্ম জনগণের অধিকারের পক্ষে কোনো কথাই বলেনি। এখন আমাদের হাতি মার্কায় ভোট দিয়ে নিজেদের অধিকারের পক্ষে কথা বলার মতো একজন প্রতিনিধিকে নির্বাচিত করা ব্যতীত অন্য কোনো বিকল্প নেই।

ত্রিদিব রায় পোমাং বলেন, আমি ত্রিপুরা সম্প্রদায়ের একজন হিসেবে এটা বলতে পারি যে, যে দুইজন ত্রিপুরা সম্প্রদায়ের প্রার্থী রয়েছেন তাদের চেয়ে প্রসিত বিকাশ খীসা অনেক বেশি যোগ্য একজন ব্যক্তি। এবং ব্যক্তিগতভাবে তাকে ভোট দেবো বলে মনস্থির করেছি। এছাড়া তিনি বলেন, আমি হাতি মার্কার পক্ষে ভোট দিতে প্রচারণা চালাবো।

যতীন বিকাশ কার্বারী বলেন, আমি ব্যক্তিগতভাবে প্রসিত বিকাশ খীসাকে চিনি। তিনি আগাগোড়া একজন সুযোগ্য রাজনীতিক। তিনি আরো বলেন, যে ৪জন প্রার্থী রয়েছে তাদের মধ্যে প্রসিত বিকাশ খীসা্ বেশি যোগ্য। তিনি আরো বলেন আগামী ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে প্রসিত খীসার হাতি মার্কার পক্ষে বিজয় ছিনিয়ে আনতে কৌশলী ভূমিকা নিয়ে এগোতে হবে।

অবসরপ্রাপ্ত সরকারী কর্মকর্তা নিখিল দেওয়ান বলেন, আসন্ন নির্বাচনের ভোটযুদ্ধে বিজয় ছিনিয়ে আনার সুবর্ন একটি সুযোগ আজ সমাগত। এই সুযোগ হাতছাড়া করা উচিত হবে না বলে তিনি মত দেন।

বিশ্বকল্যান দেওয়ান বলেন, বর্তমান যুগ হচ্ছে মোবাইল ও ইন্টারনেটের যুগ। এখন সেকেন্ডের মধ্যেই তথ্য ছড়িয়ে পড়ে। সুতরাং আমার সবাই জানি কার পক্ষে সমর্থনের পাল্লা ভারি। সুতরাং, যে পরাজিত হবে তাকে অনর্থক ভোট না দিয়ে যার বিজয়ী হবার সম্ভাবনা বেশি তাকেই একযোগে সবাইকে ভোট দেয়া প্রয়োজন।

মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শতরুপা চাকমা বলেন, নির্বাচনের পূর্ববর্তী অভিজ্ঞতা থেকে শিক্ষা নিয়ে বর্তমান নির্বাচনে বিজয়ী হতে কাজ করতে হবে।

৮২ বছর বয়স্ক প্রবীণ মুরুব্বি এবং সাবেক ওয়ার্ড মেম্বার ইন্দু বিকাশ চাকমা বলেন, আমরা আগে অনেক ভুল করেছি, অনেক সুবর্ণসুযোগ হারিয়েছি। তিনি বলেন, এবার আর ভুল করা যাবে না। ভুল করলে আমাদের বিস্তর মাশুল গুণতে হবে।
ভাইস চেয়ারম্যান সুপ্রিয় চাকমা বলেন, আমরা দীঘিনালাবাসীরা যদি একযোগে হাতি মার্কাকে ভোট দিতে পারি তবে নির্বাচনে প্রসিত বিকাশ খীসার জয়ী হবার সম্ভাবনাই বেশি।

ইউপিডিএফ সভাপতি শান্তিদেব চাকমা বলেন, প্রসিত বিকাশ খীসার হাতি মার্কায় ভোট দেয়ার জন্য আমরা দীঘিনালাবাসীকে উদাত্ত আহ্বান জানাচ্ছি।

উক্ত সভায় ৬টি গ্রামের প্রায় ৪৫ জনের মতো গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ অংশ নেন। গ্রামসমূহ হলো- বাবু পাড়া, মাস্টার পাড়া, বলপিএ আদাম, থানা পাড়া, বনবিহার পাড়া, কাট্টলিমুড়ো।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.