রবিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৭
সংবাদ শিরোনাম

নব্য মুখোশবাহিনী সৃষ্টির সেনা নীলনক্সার বিরুদ্ধে পানছড়িতে বিক্ষোভ সমাবেশ

পানছড়ি : পানছড়িতে নব্য মুখোশ বাহিনী সৃষ্টি করার সেনাবাহিনীর নীলনক্সার বিরুদ্ধে বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ(পিসিপি), গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম(ডিওয়াইএফ) ও হিল উইমেন্স ফেডারেশন(এইচডব্লিউএফ)-এর যৌথ উদ্যোগে আজ বৃহস্পতিবার (৯ নভেম্বর ২০১৭) বেলা ২টায় উপজেলা সদরে এক বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বিক্ষোভ মিছিলের মূল স্লোগান ছিল “নব্য মুখোশবাহিনী প্রতিরোধে আমরাও ‘অমর বিকাশ’ হতে প্রস্তুত! গুণ্ডাপাণ্ডা লেলিয়ে দিয়ে জনগণকে পদদলিত করার আদিম বাসনা সফল হতে দেব না!”
 
বিক্ষোভ মিছিল শেষে পানছড়ি কলেজ গেইট এলাকায় এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
 
সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ডিওয়াইএফ পানছড়ি উপজেলা সভাপতি কৃপায়ন চাকমা, পিসিপি খাগড়াছড়ি জেলা কমিটির সদস্য হিমেল চাকমা, পানছড়ি কলেজ কমিটির সভাপতি এডিসন চাকমা, এইচডব্লিউএফ পানছড়ি উপজেলা সদস্য মিতালি চাকমা। সভাপতিত্ব করেন পানছড়ি উপজেলা পিসিপি সভাপতি জুয়েল চাকমা।
 
সমাবেশে বক্তারা বলেন, ইউপিডিএফ এর নেতৃত্বে জনগণ যে সময় শাসকগোষ্ঠীর দমন-পীড়ন-নির্যাতনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ প্রতিরোধে সংগঠিত হচ্ছে, ঠিক তখনই সেনাবাহিনী জনগণের সংগঠিত শক্তিকে দমিয়ে রাখতে নানা অপকৌশল, ষড়যন্ত্র ও চক্রান্তের নীলনক্সা গ্রহণ করেছে। এর অংশ হিসেবে গত ২১ আগস্ট ডিওয়াইএফ ও পিসিপি নেতাদের জেএসএস এমএন লারমা পন্থী নামধারী একটি বিপদগামী অংশ যারা এলাকায় নব্য আলবদর হিসেবে পরিচিত তাঁদেরকে দিয়ে অপহরণ করেছে। এরপর নীলনক্সা অনুযায়ী নাটক সাজিয়ে সেনাবাহিনীর হাতে তুলে দিয়ে উল্টো অপহৃতদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক ও মিথ্যা অস্ত্র মামলা দিয়ে জেলে প্রেরণ করা হয়েছে।
এসময় বক্তারা আরো বলেন, ইউপিডিএফ থেকে বিচ্যুত কতিপয় ব্যক্তিকে সেনাবাহিনী নব্য মুখোশ বাহিনী বানিয়ে অতীতের মতো আন্দোলনকারী শক্তি ও জনগণের বিরুদ্ধে লেলিয়ে দেয়ার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। এতে জেএসএস (এমএন লারমাপন্থী)-এর সেনা মদদপুষ্ট চিহ্নিত একাংশও সক্রিয়ভাবে জড়িত রয়েছে। বক্তারা বলেন, নব্য মুখোশবাহিনী শ্যামল কান্তি চাকমা ওরফে জোলেয়ে ওরফে তরু অস্ত্রসহ বাঘাইহাট জোনে ধরা পড়ার পরও উপর মহলের নির্দেশে সেনা পাহারায় খাগড়াছড়ির গোপন আস্তানায় পৌঁছে দিয়েছে। যা সেনাবাহিনীর চক্রান্ত-ষড়যন্ত্র জনসম্মুখে প্রকাশ পেয়েছে। বক্তারা আরো বলেন, অতীতে খাগড়াছড়ির সাহসী নারীরা গণবিরোধী মুখোশ বাহিনীর বিরুদ্ধে লাঠি মিছিল করেছিল, দুর্বার প্রতিরোধ গড়ে তুলেছিল। অকুতোভয় ছাত্র-নারী-পুরুষের ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধে সেনাবাহিনীর ঔরসে জম্ম লাভ করা চরম প্রতিক্রিয়াশীল ঠ্যাঙারে বাহিনী মুখোশরা নির্মূল হতে বাধ্য হয়।

বক্তারা হুঁশিয়ারী উচ্চারণ করে বলেন, সেনবাহিনীর মধ্যেকার দুর্নীতিবাজ ও কায়েমী স্বার্থান্বেষী মহলটি নব্য মুখোশ বাহিনী গঠনের মাধ্যমে ইউপিডিএফ-এর সংগ্রামী অগ্রযাত্রাকে ব্যাহত করার যে নীলনক্সা নিয়ে মাঠে নেমেছে তা কখনো বাস্তবায়ন হবেনা, দিবাস্বপ্ন থেকে যাবে। পার্বত্য চট্টগ্রামের ছাত্র-যুব-নারীরা তাঁদের সে মনোবাসনা পুরণ হতে দেবে না।
_______
সিএইচটি নিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *