বুধবার, ২০ মার্চ, ২০১৯
সংবাদ শিরোনাম

পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার ১৭তম কাউন্সিল সম্পন্ন ত্রিরত্ন চাকমা সভাপতি ও অর্পণ চাকমা সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত

চট্টগ্রাম : বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ(পিসিপি)-এর চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার ১৭তম কাউন্সিল ও দ্বিবার্ষিক সম্মেলন আজ শুক্রবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে।

চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের ইঞ্জিনিয়ার আবদুল খালেক মিলনায়তনে দিন ব্যাপী এ কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়।

কাউন্সিলে ত্রিরত্ন চাকমা সভাপতি ও অর্পণ চাকমা সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন।

“পূর্ণস্বায়ত্তশাসনই পার্বত্য চট্টগ্রামের একমাত্র সমাধান” এই স্লোগানকে সামনে রেখে এবং “জুম্ম রাজাকার দিয়ে জাতীয় অস্তিত্ব ধ্বংসের চক্রান্ত রুখো, বাঁচতে হলে পূর্ণস্বায়ত্তশাসনের জন্য লড়াই করো’’ এই আহ্বানে অনুষ্ঠিত কাউন্সিল অধিবেশন শুরুতে পিসিপি দলীয় সঙ্গীত বাজিয়ে যথাক্রমে জাতীয় পতাকা ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করেন জাতীয় মুক্তি কাউন্সিল চট্টগ্রাম পূর্ব-৩ এর সভাপতি এডভোকেট ভূলন লাল ভৌমিক ও বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক সুনয়ন চাকমা।

কাউন্সিল প্রস্তুতি কমিটির যুগ্ন আহ্বায়ক রিংকু চাকমার সভাপতিত্বে ও বিদায়ী কমিটির তথ্য প্রচার সম্পাদক প্রসেনজিৎ ত্রিপুরার সঞ্চালনায় কাউন্সিলের ১ম অধিবেশনে শোক প্রস্তাব পাঠ করেন স্বপন খীসা। এরপর পার্বত্য চট্টগ্রামে নিপীড়িত জাতির অধিকার আদায়ের সংগ্রামে শহীদদের প্রতি সম্মান জানিয়ে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

কাউন্সিলের ১ম অধিবেশনে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংগঠনটির বিদায়ী কমিটির সদস্য সোহেল চাকমা। এতে আরো বক্তব্য রাখেন জাতীয় মুক্তি কাউন্সিল চট্টগ্রাম পূর্ব-৩ অঞ্চলের সভাপতি এ্যাডভোকেট ভূলন লাল ভৌমিক, পার্বত্য নারী সংঘের চট্টগ্রাম মহানগর শাখার সভাপতি রেশমী মারমা, হিল উইমেন্স ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মন্টি চাকমা, গণতান্ত্রিক যুব ফোরামে চট্টগ্রাম মহানগর শাখার সহ-সভাপতি শুভ চাক। এছাড়া সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন মহানগর শাখার সভাপতি লোকেন দে ও বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন (জোনায়েদ সাকি) চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাধারণ সম্পাদক শুভ মারমা।

বক্তারা বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামের জুম্মো জনগণের ন্যায়সঙ্গত আন্দোলনকে নস্যাৎ করতে সেনা শাসকগোষ্ঠীর ষড়যন্ত্রে গঠন করা হয় রাজাকার বাহিনী। এই রাজাকার বাহিনী দিয়ে প্রতিনিয়ত খুন, অপহরণ করে পার্বত্য চট্টগ্রামের পরিস্থিতিকে অস্থিতিশীল ও অরাজকময় করে তোলা হচ্ছে। জুম্মো জাতির এখন চরম সংকট। এই দুঃসময়ে ছাত্র সমাজ জাতির হাল ধরতে না পারলে অতলে তলিয়ে যাবে গোটা জাতি। তাই জাতির এই ক্রান্তিলগ্নে ব্যক্তিস্বার্থের চিন্তায় বিভোর না থেকে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মধ্যে দিয়ে সকল অপশক্তিকে প্রতিহত করে পূর্ণস্বায়ত্তশাসন আদায়ের সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়তে ছাত্র সমাজের প্রতি আহ্বান জানান বক্তারা।

১ম অধিবেশন শেষে বেলা ১:৪৫ টার দিকে দ্বিতীয় অধিবেশন শুরু হয়। দ্বিতীয় অধিবেশনে ত্রিরত্ন চাকমাকে সভাপতি, অর্পণ চাকমাকে সাধারণ সম্পাদক ও মিটন চাকমাকে সাংগঠনিক সম্পাদক করে ৩১ সদস্য বিশিষ্ট নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়। কাউন্সিল অধিবেশনে উপস্থিত সকলের সম্মতিক্রমে ঘোষিত কমিটি পাশ করা হয়। নতুন কমিটির সদস্যদের শপথ বাক্য পাঠ করান সংগঠনটির কেন্দ্রীয় সহসভাপতি রোনাল চাকমা।

শপথ গ্রহণ শেষে একটি র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি প্রেসক্লাব হয়ে চেরাগী পাহাড় মোড়ে গিয়ে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মধ্য দিয়ে শেষ হয়।
———————
সিএইচটি নিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.