বগাছড়িতে পাহাড়ি গ্রামে সেনা-সেটলার হামলার ৩ বছর

0
0

নান্যাচর(রাঙামাটি): আজ ১৬ই ডিসেম্বর রাঙামাটির নান্যাচর উপজেলার বুড়িঘাট ইউনিয়নের বগাছড়িতে পাহাড়ি গ্রামে সেনা-সেটলার হামলার ৩ বছর পূর্ণ হলো। ২০১৪ সালের এই দিনে বগাছড়ি, সুরিদাশ পাড়া, নবীন তালুকদার পাড়ায় পাহাড়িদের ঘরবাড়িতে অগ্নিসংযোগ, ভাংচুর ও লুটপাট করে বিজয় দিবসের সূচনা করেছিল সেনাবাহিনী ও সেটলার বাঙালিরা।

সেদিন সেনা-সেটলারদের হামলা ও অগ্নিসংযোগের ফলে তিনটি গ্রামে পাহাড়িদের ৬০টির অধিক বাড়ি-দোকান পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এছাড়া সেটলাররা স্থানীয় বৌদ্ধ বিহার জ্বালিয়ে দেয়ার চেষ্টা করে এবং বিহারে ঢুকে বৌদ্ধ ভিক্ষুকে মারধর ও বুদ্ধ মূর্তি লুট করে।

# বগাছড়িতে সাম্প্রদায়িক হামলার ফাইল ছবি।

এ হামলার আজ ৩ বছর পূর্ণ হলেও প্রশাসনের প্রতিশ্রুতি মোতাবেক পাহাড়িদের ক্ষতিপূরণ ও ঘরবাড়ি তৈরি করে দেওয়া হয়নি। বিচার হয়নি হামলাকারী সেনা-সেটলারদেরও। ফলে পাহাড়িদের একদিকে নিদারুণ কষ্ট ও অপরদিকে আতঙ্কের মধ্যে দিনযাপন করতে হচ্ছে।

অপরদিকে সেটলার বাঙালিরা সেনা-প্রশাসনের প্রত্যক্ষ-পরোক্ষ সহযোগীতায় প্রতিনিয়ত পাহাড়িদের জায়গা-জমি বেদখলের অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে বলে জানা গেছে।

শুধু বগাছড়ি হামলা নয়, পার্বত্য চট্টগ্রামে এ যাবত যত হত্যাকাণ্ড ও সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনা ঘটেছে তার কোনটিরই বিচার হয়নি। উপরন্তু পার্বত্য চট্টগ্রামে পাহাড়ি জনগণের উপর নিপীড়ন-নির্যাতন, ভূমি বেদখলের মাত্রা বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। চুক্তিপূর্বে পাহাড়িদের উপর যেভাবে নিপীড়ন-নির্যাতন চালানো হয়েছিল, বর্তমানেও একইভাবে নিপীড়ন-নির্যাতন চালানো হচ্ছে। অন্যায় ধরপাকড়, রাত-বিরাতে ঘরবাড়িতে তল্লাশি যেন নিত্য নৈমিত্তিক ঘটনায় পরিণত হয়েছে।
——————
সিএইচটিনিউজ.কম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.