বাঘাইছড়িতে বুদ্ধমূর্তি স্থাপনে সেনাবাহিনী ও প্রশাসনের বাধার প্রতিবাদে খাগড়াছড়িতে তিন সংগঠনের বিক্ষোভ

0
0

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিএইচটিনিউজ.কম
Protest rally in Khagrachari2, 2 May 2014খাগড়াছড়ি: রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলার বঙ্গলতলী ইউনিয়নের দ্বি-টিলায় অজলচুগ বনবিহারে ১০ ফুট উচ্চতার একটি বুদ্ধমূর্তি স্থাপনে সেনাবাহিনী ও প্রশাসনের বাধার প্রতিবাদে গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ ও হিল উইমেন্স ফেডারেশন খাগড়াছড়িতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে।

শুক্রবার বিকাল ৩টায় খাগড়াছড়ি সদরের স্বনির্ভর হতে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি নারাঙহিয়ে, উপজেলা হয়ে চেঙ্গী স্কোয়ারে গিয়ে সংক্ষিপ্ত প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের খাগড়াছড়ি জেলা কমিটির আহ্বায়ক জিকু ত্রিপুরার সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট(ইউপিডিএফ)-এর খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা ইউনিটের সংগঠক চরণসিং তঞ্চঙ্গ্যা, বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের খাগড়াছড়ি জেলা শাখার দপ্তর সম্পাদক বিজয় চাকমা ও হিল উইমেন্স ফেডারেশনের খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক রীনা চাকমা। সমাবেশ পরিচালনা করেন পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের জেলা শাখার সদস্য জেসিম চাকমা।

সমাবেশে বক্তারা দ্বি-টিলায় বুদ্ধমূর্তি স্থাপনে সেনাবাহিনী ও প্রশাসনের বাধাদানের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, রিজার্ভ ফরেস্টের নামে বুদ্ধমূর্তি স্থাপনে বাধা দিয়ে সেনাবাহিনী পরিকল্পিতভাবে পাহাড়িদের ভূমির অধিকার ও ধর্মপালনের অধিকার কেড়ে নেয়ার চক্রান্ত করছে। প্রশাসন অযৌক্তিক ১৪৪ ধারা জারি করে স্থানীয় পাহাড়িদের নানাভাবে ভয়-ভীতি প্রদর্শন ও মামলার হুমকি দেয়া হচ্ছে।

বক্তারা আরো বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে প্রতিনিয়ত পাহাড়িদের ভোগদখলীয় ভূমি বেদখল করা হচ্ছে। পাহাড়িদেরকে নিজ ভূমি থেকে উচ্ছেদের লক্ষ্যে কখনো সেটলার কর্তৃক আবার কখনো সেনা-বিজিবি কর্তৃক এই ভূমি বেদখল প্রক্রিয়া অব্যাহত রয়েছে। এই অবস্থা আর চলতে দেয়া যায় না। বক্তারা বুদ্ধমূর্তি স্থাপনে বাধাদান ও ভূমি বেদখলের প্রতিবাদে সোচ্চার হওয়ার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

বক্তারা বুদ্ধমূর্তি স্থাপনে বাধা অপসারণ করে বাধাদানকারী সেনা কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ, ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান ও ধর্মের উপর সেনা হস্তক্ষেপ বন্ধ করা এবং অবিলম্বে অযৌক্তিক ১৪৪ ধারা প্রত্যাহারের দাবি জানান। এছাড়া পার্বত্য চট্টগ্রাম থেকে সেনাবাহিনী প্রত্যাহার করে সেনাশাসন অবসানেরও তারা দাবি করেন।

সমাবেশ থেকে বক্তারা বান্দরবানের রুমায় সেনা গ্যারিসন সম্প্রসারণের নামে ৯৯৭ একর ও বিজিবি ক্যাম্প স্থাপনের নামে বৌদ্ধ ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান রামজাদী এলাকার ১৫ একরের অধিক ভূমি বেদখলেরও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।
————————–

সিএইচটিনিউজ.কম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.