বৈসাবি বর্জনের সমর্থনে টাঙানো ব্যানার, ফেস্টুন ও কালো পতাকা তুলে নেয়ার নিন্দা

0
1

ইউনাইটেড পিপল্স ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট(ইউপিডিএফ)-এর খাগড়াছড়ি জেলা ইউনিটের প্রধান সমন্বয়ক উজ্জ্বল স্মৃতি চাকমা আজ ১৩ এপ্রিল এক বিবৃতিতে গতকাল ও আজ মাটিরাঙ্গা-গুইমরা এলাকায় বৈসাবি উৎসব বর্জনের সমর্থনে টাঙানো ব্যানার, ফেস্টুন ও কালো পতাকা পুলিশ ও সেনাবাহিনী কর্তৃক তুলে নেয়ার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন
তিনি উক্ত ঘটনাকে গণতান্ত্রিক অধিকারের উপর নগ্ন হস্তক্ষেপ আখ্যায়িত করে বলেন, বর্তমান সরকার পাহাড়ি জনগণের কণ্ঠ রুদ্ধ করতে চায়
তিনি পুলিশ ও সেনাবাহিনীকে এ ধরনের অগণতান্ত্রিক ও ফ্যাসিস্ট আচরণ বন্ধ করার আহ্বান জানান
তিনি বলেন, বৈসাবি বর্জন কর্মসূচীর অংশ হিসেবে অন্যান্য এলাকার মতো মাটিরাঙ্গা-গুইমারা এলাকায়ও ব্যাপকভাবে ফেস্টুন, ব্যানার ও কালো পতাকা উত্তোলন করা হয় এলাকার জনগণ স্বতঃস্ফুর্তভাবে এ কর্মসূচির প্রতি সাড়া দেয় কিন্তু গতকাল ১২ এপ্রিল গুইমারা সাব-থানার ওসি আবদুর রবের নেতৃত্বে একদল পুলিশ গুইমারা, বুদুং পাড়া, রামেসু বাজার, বাল্যাছড়ির সাইনবোর্ড দোকান এলাকা, বাল্যাছড়ি স্কুল পাড়া সহ বিভিন্ন জায়গায় টাঙানো ফেস্টুন, ব্যানার ও কালো পতাকা তুলে নিয়ে যায়
অন্যদিকে মাটিরাঙ্গা থানা থেকে একদল পুলিশ গিয়ে ১০ নং মাটিরাঙ্গা এলাকায় টাঙানো ফেস্টুন ও কালো পতাকা তুলে নিয়ে যায় এ ছাড়া গুইমারার বাজ্যাপাড়া আর্মি ক্যাম্পের ক্যাপ্টেন অমরের নেতৃত্বে একদল আর্মি গিয়ে গুইমরা ইন্দ্রমণি হেডম্যান পাড়া এলাকায় টাঙানো কালো পতাকা ও ফেস্টুন তুলে নেয়
ফেস্টুন তুলে নেয়ার সাথে সাথে বুদুং পাড়া, রামেসু বাজার, বাল্যাছড়ির সাইনবোর্ড দোকান এলাকা, বাল্যাছড়ি স্কুল পাড়া সহ বিভিন্ন এলাকায় গত রাতে আবারো কালো পতাকা উত্তোলন করা হয় আজ ১৩ এপ্রিল দুপুর ১২টার দিকে আবদুর রবের নেতৃত্বে একদল পুলিশ এসে আবারো টাঙানো কালো পতাকাগুলো তুলে নিয়ে যায় পাহাড়ি জনগণ যাতে তাদের ওপর পরিচালিত দমন পীড়ন ও হত্যাযজ্ঞের বিরুদ্ধে কোন ধরনের প্রতিবাদ করতে না পারে তা নিশ্চিত করতে চায়

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.