রবিবার, ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৮
সংবাদ শিরোনাম

রমেল চাকমা হত্যার বিচারের দাবিতে চবিতে বিভিন্ন ছাত্র সংগঠনের মানববন্ধন

cu1

চবি প্রতিনিধি।। সেনাবাহিনীর নির্যাতনে রমেল চাকমা হত্যার বিচার ও পাহাড়ে সেনাশাসন বন্ধের দাবিতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি)-এর শিক্ষার্থীবৃন্দের ব্যানারে মানববন্ধন করেছে প্রগতিশীল বিভিন্ন ছাত্র সংগঠন।

আজ বৃহস্পতিবার (২৭ এপ্রিল)চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ বুদ্ধিজীবী চত্বরে দুপুর ১২টায় এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনোত্তর প্রতিবাদ সমাবেশে বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন চবি সংসদের সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া খন্দকার বাধনের সঞ্চালনায় এবং সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট চবি শাখার আহ্বায়ক ফজলে রাব্বীর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন চবি শাখার সাধারণ সম্পাদক মির্জা ফখরুল ইসলাম, বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন চবি সংসদের সাংগঠনিক সম্পাদক ধীষণ প্রদীপ চাকমা, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট চবি শাখার সহ-সভাপতি মাহমুদ আদি, পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ চবি শাখার সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মিন্টু ত্রিপুরা,বৃহত্ত র পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ চবি শাখার সহ-সভাপতি অঙ্কন চাকমা,বাংলাদেশ মারমা স্টুডেন্টস কাউন্সিল চবি শাখার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অংসিং মারমা এবং ত্রিপুরা স্টুডেন্টস ফোরাম চট্টগ্রাম অঞ্চলের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক খঞ্জন ত্রিপুরা।

cu3

সমাবেশ থেকে বক্তারা পাহাড়ে সেনাবাহিনী কর্তৃক দীর্ঘদিন যাবত চলমান দমন-নিপীড়ন ও হত্যাযজ্ঞের অবসান ঘটাতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান এবং দ্রুততম সময়ের মধ্যে রমেল চাকমাসহ এ যাবৎকালে পাহাড়ে সংঘটিত সকল হত্যা, গণহত্যা, অপহরণ ও ধর্ষণের বিচারের দাবি জানান। এ ধরণের নৃশংশ হত্যাকান্ডের প্রতিবাদ জানানোর পাশাপাশি চলমান বিচারহীনতার সংস্কৃতি বন্ধে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণেরও আহ্বান জানান বক্তারা।

সমাবেশে উপস্থিত নেতৃবৃন্দ কঠোর হুশিয়ারী উচ্চারণ করে বলেন, রমেল চাকমা হত্যার দ্রুত বিচার এবং পাহাড়ে অবৈধ সেনাশাসনের অবসান না করলে পাহাড়ে ও সমতলের সকল নির্যাতিত জনগোষ্ঠীকে সাথে নিয়ে বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তোলার মাধ্যমে গণতান্ত্রিক ও অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার পথকে সুপ্রশস্ত করবেন।

cu2

সমাবেশে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত ও পরিবেশ রসায়ন বিভাগের শিক্ষক সুমন গাঙ্গুলিএবং সমাজতত্ত্ব বিভাগের শিক্ষক বসুমিত্র চাকমা।

শিক্ষকরা বলেন,পার্বত্য চট্টগ্রামে যে অস্থিরতা বিরাজ করছে তা রাষ্ট্রীয় ষড়যন্ত্রের একটি অংশ।সেনাবাহিনীর মাধ্যমে সরকার যে নির্যাতন অব্যাহত রেখেছে তারা তার অবসান দাবি করেন।

উল্লেখ্য,গত ৫ এপ্রিল ২০১৭, সেনাবাহিনী কর্তৃক বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ নানিয়াচর উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক রমেল চাকমাকে ধরে নিয়ে যাওয়া হয়। সেনা হেফাজতে অমানষিক নির্যাতনের পর গত ১৯ এপ্রিল চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতালে রমেল চাকমা মৃত্যুবরণ করে।
—————-
সিএইচটি নিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.