রাঙামাটিতে আবারো দফায় দফায় সংঘর্ষ, কারফিউ জারি

0
0

সিএইচটিনিউজ.কম
রাঙামাটি: ১৪৪ ধারা জা3রির মধ্যেও রাঙামাটি শহরের বনরূপা, ভেদভেদী, তবলছড়ি সহ বিভিন্ন স্থানে পাহাড়ি ও বাঙালিদের মধ্যে আবারো দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। উদ্ভুত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে প্রশাসন রবিবার রাত সাড়ে ৭টা থেকে আগামীকাল সোমবার (১২ জানুয়ারি সকাল ৮টা পর্যন্ত রাঙামাটি শহরে কারফিউ জারি করেছে।

জানা যায়, জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে আইন-শৃংখলা মিটিঙ চলাকালে রবিবার বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে বনরূপা বাজারে ওজনে কম দেওয়াকে কেন্দ্র করে পাহাড়ি ও বাঙালিদের মধ্যে প্রথমে সংঘর্ষ বাঁধে। এতে উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও ইট পাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ ও সেনাবাহিনী ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পারলেও খবরটি চারদিকে ছড়িয়ে পড়লে সন্ধ্যার দিকে ভেদভেদী, তবলছড়ি সহ বিভিন্ন জায়গায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। তবলছড়ির আনন্দ বিহার এলাকায় সেটলার বাঙালিরা পাহাড়িদের দোকানপাট ভাঙচুর করেছে এবং ভেদভেদীতে কয়েকটি দোকান পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। এছাড়া বেশ কয়েকজনের উপর আক্রমণ চালানো হয়েছে বলে বিভিন্ন সূত্র থেকে খবর এসেছে।

পরে পুলিশ ও সেনাবাহিনী ভেদভেদী এলাকায় এসে বেশ কয়েক রাউন্ড গুলি বর্ষণ করে। এতে একজন গুলিবিদ্ধ হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। তবে নির্ভরযোগ্য ও সঠিক তথ্য এখনো পাওয়া সম্ভব হয়নি।

এ সংঘর্ষের পর প্রশাসন রাঙামাটি শহরে রবিবার রাত সাড়ে ৭টা থেকে সোমবার সকাল ৮টা পর্যন্ত কারফিউ জারি করেছে।

রাঙামাটি জেলা প্রশাসনের ফেসবুক পেজে কারফিউ জারির ঘোষণা দিয়ে বলা হয়েছে, “রাঙ্গামাটি জেলা শহরে কারফিউ জারি করা হলো। আগামীকাল সকাল ০৮ টা পর্যন্ত বলবৎ থাকবে। সেইসাথে দেখামাত্র গুলির নির্দেশ প্রদান করা হলো। আটকে পরা লোকজনের নিজ নিজ বাসস্থানে গমনের জন্য আগামীকাল সকাল ০৮ ঘটিকা থেকে ১১ ঘটিকা পর্যন্ত কারফিউ শিথিল করা হলো। ১১ ঘটিকা হতে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত কারফিউ বলবৎ থাকবে।——-জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা।”

পরিস্থিতি এখনো থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। এলাকায় বিপুল সংখ্যক সেনা, বিজিবি ও পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।
————–

সিএইচটিনিউজ.কম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.