রাণী ইয়েন ইয়েন’কে লাঞ্ছিত ও মারমা দুই বোনকে তুলে নেয়ার প্রতিবাদে ঢাকায় তিন সংগঠনের বিক্ষোভ

0
0

ঢাকা : মেজর তানভীরের নেতৃত্বে চাকমা রাণী ইয়েন ইয়েন-কে পদাঘাত ও রাঙামাটি হাসপাতাল থেকে ধর্ষণ ও যৌন নিপীড়নের শিকার মারমা দুই বোনকে তুলে নেয়ার প্রতিবাদে ঢাকা প্রেসক্লাবের সম্মুখে বিক্ষোভ মিছিল করেছে তিন সংগঠন (পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ, গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম, হিল উইমেন্স ফেডারেশন)। 

আজ ১৬ ফেব্রুয়ারি (শুক্রবার) বিকাল ৩.৩০টায় অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ সমাবেশে গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের সভাপতি অংগ্য মারমার সভাপতিত্বে ও হিল উইমেন্স ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সদস্য রেশমি মারমার সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন, ইউপিডিএফ সংগঠক মাইকেল চাকমা, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ এর সাধারণ সম্পাদক অনিল চাকমা, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট সভাপতি ইমরান হাবিব রুমন, দপ্তর সম্পাদক রাশেদ শাহরিয়া, বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের সহ-সভাপতি দীপা মল্লিক, হিল উইমেন্স ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক মন্টি চাকমা।

বক্তারা উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, বিলাইছড়িতে গত ২১ জানুয়ারি দিবাগত রাতে ফারুয়া ক্যাম্পের সেনা জওয়ান কর্তৃক যৌন নিপীড়নের শিকার হওয়া দুই মারমা সহদোরাকে প্রশাসন চিকিৎসার নামে রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে অবরুদ্ধ করে রাখে। শুধু অবরুদ্ধ রেখে ক্ষান্ত হয়নি প্রশাসন, গতকাল ১৫ ফেব্রুয়ারি (বৃহস্পতিবার) সন্ধ্যা ৭.২৫ টার সময় চাকমা সার্কেলের রাণী ইয়েন ইয়েন’কে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে এবং ভিকটিমদের দেখাশুনার দায়িত্বে থাকা স্বেচ্ছাসেবকদের একটি রুমে আটকে রেখে জোরপূর্বক দুই মারমা সহদোরাকে অজ্ঞাত স্থানে তুলে নিয়ে যায়। অপহৃত দুই মারমা বোনের হদিস এখন পর্যন্ত কেউ জানেনা।

বক্তারা আরো বলেন, রাণী ইয়েন ইয়েন’কে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে চিকিৎসার নামে রাঙামাটি হাসপাতালে অবরুদ্ধ অবস্থায় থাকা দুই মারমা সহোদরাকে যৌথ বাহিনী অপহরণ করাতে স্পষ্টভাবে এটাই প্রতীয়মান হয় যে, সেনা জওয়ানরাই এ ধর্ষণ ঘটনার প্রকৃত অপরাধী এবং তাদেরকে বাঁচাতেই প্রশাসনের এই নগ্ন হস্তক্ষেপ। বাংলাদেশ স্বাধীনতার পর হতে পার্বত্য চট্টগ্রামে অঘোষিত সেনাশাসন জারি ও সরকারের বিচারহীনতা সংস্কৃতির কারনেই মূলত অপরাধীরা পার্বত্য চট্টগ্রামসহ সারাদেশে নারীদের যৌন নিপীড়ন, ধর্ষণ, হত্যা করেও প্রতিবারেই পার পেয়ে যাচ্ছে।

সমাবেশ থেকে বক্তারা অবিলম্বে দুই মারমা সহদোরাদের যৌন নিপীড়ন এবং রাঙ্গামাটি হাসপাতালে রাণী ইয়েন ইয়েনকে লাঞ্ছনার জন্য দায়ী সেনা জওয়ানদের আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবি জানান।

সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি প্রেসক্লাব গেইট হতে শুরু হয়ে হাইকোর্ট চত্ত্বর ও পল্টন মোড় ঘুরে এসে পূনরায় প্রেসক্লাব গেইটে এসে শেষ হয়।
——————-
সিএইচটিনিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্রউল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.