রামগড়ে “নান্যাচর গনহত্যা” দিবস পালিত

0
3

রামগড় প্রতিনিধি : পার্বত্য চট্টগ্রামের এযাবত সংঘটিত সকল গনহত্যার শ্বেতপত্র প্রকাশ করে ঘটনায় জড়িত সেনা-সেটলারদের বিচারের দাবিতে নান্যাচর গনহত্যার ২৫বছর উপলক্ষ্যে শহীদদের স্মরণে আজ শনিবার (১৭নভেম্বর ২০১৮) সকাল ৭.৩০ টায় রামগড় সদরে আলোচনা সভা করেছে বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ(পিসিপি) রামগড় উপজেলা শাখা।

শহীদদের স্মরণে নির্মিত অস্থায়ী স্মৃতিস্তম্ভে ইউপিডিত্রফ রামগড় ইউনিট সমন্বয়ক অপু ত্রিপুরা, পিসিপি খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সভাপতি অমল ত্রিপুরা, গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের রামগড় উপজেলা শাখার সহসভাপতি বিষু ত্রিপুরা ও এলাকার যুব সমাজের নেতা বিজয় ত্রিপুরা পুষ্প স্তবক অর্পন করেন।

পুষ্প স্তবক অর্পন শেষে সকল শহীদের স্মরণে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

পিসিপি রামগড় উপজেলা শাখার সভাপতি নরেশ ত্রিপুরার সভাপতিত্বে এবং সদস্য প্রবীর ত্রিপুরার সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন, ইউপিডিত্রফ রামগড় ইউনিট সমন্বয়ক অপু ত্রিপুরা, পিসিপি খাগড়াছড়ি জেলা শাখা সভাপতি অমল ত্রিপুরা, ডিত্তয়াইত্রফ-ত্রর সহসভাপতি বিষু ত্রিপুরা ও খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজের প্রতিনিধি অজেল ত্রিপুরা।

বক্তরা বলেন, বাংলাদেশ  স্বাধীনতার পর থেকে পার্বত্য চট্টগ্রামে বসবাসরত সংখ্যালঘু জাতিসত্তাদের ধ্বংস করতে সেনা-সেটলার কর্তৃক ডজনের অধিক গনহত্যা সংঘটিত হয়েছে। তার একটি হচ্ছে ১৯৯৩ সালের ১৭ নভেম্বরে সংঘটিত নান্যাচর গণহত্যা। সেদিন সাপ্তাহিক হাটের দিন হওয়ায় লোকজনের সমাগম ছিল অনেক বেশি। সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে সেনা-সেটলাররা নিরস্ত্র পাহাড়িদের উপর সশস্ত্র হামলা করে নির্বিচারে হত্যাযজ্ঞ চালায়। বর্তমানেও সরকার সেই ধারাবাহিকতা বজায় রেখে জাতি ধ্বংস করার লক্ষ্যে সমাজের নিম্নস্তরের কিছু বখাটে যুবকের সমন্বয়ে সন্ত্রাসী বাহিনী গঠন করে বিভিন্ন ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে।

সর্বশেষ গত ১৮ আগষ্ট ২০১৮ স্বনির্ভর বাজারে নিরাপত্তা বাহিনীর বেষ্টনীতে সংস্কাবাদী সশস্ত্র সন্ত্রাসী কর্তৃক সংঘটিত ছয় হত্যাকাণ্ডের ঘটনা তারই একটি বড় প্রমাণ।

সভা থেকে বক্তারা পার্বত্য চট্টগ্রামে এযাবতকাল সংঘটিত সকল গণহত্যার শ্বেতপত্র প্রকাশ সহ দোষীদের বিচারের আওতায় এনে শাস্তির দাবি জানান।

সন্ধ্যায় শহীদদের স্মরণে প্রদীপ প্রজ্জ্বলন করা হয়।

——————

সিএইচটি নিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।

 


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.