শনিবার, ১৭ নভেম্বর, ২০১৮
সংবাদ শিরোনাম

শিক্ষা দিবস উপলক্ষে মানিকছড়িতে পিসিপি’র আলোচনা সভা

মানিকছড়ি (খাগড়াছড়ি)  : “সকল জাতিসত্তাসমূহের ন্যায্য কোটা বাতিলের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াও” এই শ্লোগানে  ‘১৭ সেপ্টেম্বর শিক্ষা দিবস’কে সামনে রেখে খাগড়াছড়ির মানিকছড়িতে “পার্বত্য চট্টগ্রামে সরকার রাষ্ট্রীয় বাহিনীর ষড়যন্ত্র ও বর্তমান পরিস্থিতিতে ছাত্র সমাজের করণীয়” শীর্ষক আলোচনা সভা করেছে বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ(পিসিপি) মানিকছড়ি উপজেলা শাখা।

আজ বৃহস্পতিবার (১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮) সকাল সাড়ে ১১টায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় পিসিপির মানিকছড়ি উপজেলা শাখা সহ সাধারণ সম্পাদক ডেবিট চাকমার সভাপতিত্বে ও তথ্য-প্রচার সম্পাদক স্বদেশ চাকমা সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন ইউপিডিএফ-এর মানিকছড়ি ইউনিটের সংগঠক জিতেন ত্রিপুরা, পিসিপি খাগড়াছড়ি জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক নিকেল চাকমা, পিসিপি রামগড় উপজেলা শাখার সহ সভাপতি সুরেশ চাকমা ও পিসিপির মানিকছড়ি গিরি মৈত্রী কলেজ শাখার তথ্য প্রচার সম্পাদক মিত্র চাকমা।

আলোচনা শুরুতে শহীদদের প্রতি সম্মান জানিয়ে ১ মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

সভায় বক্তারা বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে শাসক শ্রেণী ও রাষ্ট্রীয় বাহিনী শিক্ষা ব্যবস্থাকে ধ্বংস করার নানা ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে সেনা নিয়ন্ত্রণ কায়েম করার জন্য ঘোষিত-অঘোষিতভাবে নানা নিষেধাজ্ঞা জারি রেখে শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের মনস্তাত্ত্বিকভাবে চাপের মধ্যে রেখেছে।

বক্তারা আরো বলেন, আওয়ামীলীগ সরকার সংবিধানের পঞ্চদশ সংশোধনীর মাধ্যমে পার্বত্য চট্টগ্রামসহ দেশের সকল সংখ্যালঘু জাতিসত্তাসমূহের ওপর বাঙালি জাতীয়তা চাপিয়ে দিয়েছিল। আর এখন জাতিসত্তাগুলোর জন্য সংরক্ষিত কোটা ব্যবস্থাও বাতিলের চক্রান্ত করছে। সরকারের এ পদক্ষেপ কখনো গ্রহণযোগ্য নয়।

বক্তারা বলেন, পিসিপি’র উত্থাপিত শিক্ষা সংক্রান্ত ৫ দফা দাবি সরকার এখনো বাস্তবায়ন করেনি। প্রাক-প্রাইমারী লেভেলে ৬টি সংখ্যালঘু জাতির মাতৃভাষায় শিক্ষাদানের কথা বলা হলেও এখনো পর্যন্ত পুরোপুরি কার্যকর করা হচ্ছে না।

তারা ছাত্র সমাজের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, ১৯৬২ সালে শিক্ষার অধিকার আদায়ের জন্য ছাত্র সমাজ যেভাবে সংগ্রাম করে আত্মবলিদান দিয়েছিলেন তেমনি পার্বত্য চট্টগ্রামের ছাত্র সমাজকেও ন্যায্য অধিকার আদায় ও সরকারের সকল ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হয়ে রুখে দাঁড়াতে হবে।

সভা থেকে বক্তারা অবিলম্বে পিসিপি’র শিক্ষা সংক্রান্ত ৫ দফা দাবি বাস্তবায়ন এবং চাকুরি ও উচ্চ শিক্ষা ক্ষেত্রে জাতিসত্তাসমূহের জন্য কোটা ব্যবস্থা বহাল রাখার দাবি জানান।
————-
সিএইচটি নিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.