শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অগণতান্ত্রিক সার্কুলার প্রত্যাহারের দাবিতে খাগড়াছড়িতে পিসিপি’র ছাত্র সমাবেশ

1
1

খাগড়াছড়ি : শিক্ষামন্ত্রণালয়ের বেসরকারী কলেজ শাখা কর্তৃক জারিকৃত অগণতান্ত্রিক ও বিতর্কিত সার্কুলার প্রত্যাহারসহ ৮ দফা বাস্তবায়নের দাবিতে শনিবার (৯ ডিসেম্বর) খাগড়াছড়িতে ছাত্র সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ(পিসিপি) খাগড়াছড়ি জেলা শাখা।

‘‘পার্বত্য চট্টগ্রামের শিক্ষার্থীদের প্রতি অবিচার মানিনা, সকল শিক্ষার্থীর সংবিধান স্বীকৃত অধিকার নিশ্চিত কর’’ এই শ্লোগানে শনিবার সকাল ১০টায় খাগড়াছড়ি জেলা সদরের স্বনির্ভরে আয়োজিত সমাবেশে পিসিপি খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সভাপতি তপন চাকমার সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক অমল ত্রিপুরার সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন, ইউনাইটেড পিপলস্ ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট(ইউপিডিএফ)-এর সংগঠক মিঠুন চাকমা, পিসিপি’র কেন্দ্রীয়সহ- সভাপতি বিপুল চাকমা, গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক জিকো ত্রিপুরা, হিল উইমেন্স ফেডারেশনের খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক রেশমি মারমা, পিসিপি জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক রুপেশ চাকমা প্রমুখ।

ঝড়-বৃষ্টি উপেক্ষা করে সকাল থেকে খাগড়াছড়ি সদরসহ বিভিন্ন উপজেলার স্কুল ও কলেজের শত শত ছাত্র-ছাত্রী একের পর এক মিছিল নিয়ে সরকারের ফ্যাসীবাদী শাসন-শোষণের বিরুদ্ধে নানা শ্লোাগান দিতে দিতে সমাবেশস্থলের দিকে আসতে থাকে। সকাল ১১টার মধ্যে স্বনির্ভর বাজারের চৌরাস্তা মোড় কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায়। শ্লোাগানে শ্লোগানে মুখর হয়ে উঠে সমাবেশ এলাকা।

সমাবেশে মিঠুন চাকমা বলেন, রাঙামাটি জেলার নানিয়াচর উপজেলার নানিয়াচর কলেজ বাংলাদেশের কোনো আলাদা অঞ্চল নয়। কলেজে পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ আগস্টের প্রথম সপ্তাহের দিকে নবীনবরণ ও কলেজ কাউন্সিল করেছিল। কলেজ কাউন্সিলে পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ ‘পূর্ণস্বায়ত্তশাসনই পার্বত্য চট্টগ্রামের একমাত্র সমাধান’ শ্লোগানটি ব্যবহার করেছে। এই শ্লোগানকে পরিকল্পিতভাবে বিকৃতি করে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে শিক্ষামন্ত্রণালয় থেকে নাসিমা খানম এর স্বাক্ষরে কলেজের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সার্কুলার জারি করা হয়েছে। এই সার্কুলার কোনো শিক্ষার উন্নতির সার্কুলার নয়, এটা রাজনৈতিক বক্তব্য। পার্বত্য চট্টগ্রামের অধিকার আদায়ের  আন্দোলনকে ধ্বংস করার জন্যই এই সার্কুলার। নানিয়াচরে রমেল চাকমাকে হত্যা করা হয়েছে, নব্য মুখোশ বাহিনীর সদস্যরা সেখানে অবস্থান করছে, নানিয়াচর কলেজে শিক্ষামন্ত্রণালয়ের অগণতান্ত্রিক সার্কুলার জারি করা হয়েছে এর থেকে বুঝা যায় পরিকল্পিতভাবে শাসকশ্রেণী আমাদের আন্দোলনকে ধ্বংস করার পাঁয়তারা চালাচ্ছে।

মিঠুন চাকমা আরো বলেন, শাসকগোষ্ঠি পাহাড়িদের আন্দোলনকে দমন করার জন্য যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে তা হঠকারী সিদ্ধান্ত। একটি জাতিকে দাবিয়ে রাখার মানসিকতা শাসকগোষ্ঠির পরিহার করতে হবে। মিথ্যা অভিযোগে জারিকৃত সার্কুলার প্রত্যাহারের দাবি জানান তিনি।

মিঠুন চাকমা ছাত্র সমাজের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, আন্দোলনকে জনগণের কাছে নিয়ে গিয়ে জারিকৃত অবৈধ সার্কুলার বাতিলের জন্য আরো কঠোর আন্দোলন চালিয়ে নিয়ে যেতে হবে।

বিপুল চাকমা বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে যে অগণতান্ত্রিক পরিবেশ বিরাজ করছে তার প্রতিবাদে আজকের এই ছাত্র সমাবেশ। পার্বত্য চট্টগ্রামের শিক্ষা ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দেওয়ার জন্য লক্ষ-লক্ষ টাকা ঘুষ দিয়ে প্রাইমারী স্তরে অযোগ্য-অদক্ষ শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে সেই দিকে সরকারের দৃষ্টি নেই। পাহাড়ি ছাত্র পরিষদসহ জনতা সেই দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি তুললেও সরকারের সেই দিকে কোনো দৃষ্টি নেই। কিন্তু আজ নানিয়াচর কলেজের বিরুদ্ধে মিথ্যা ও বানোয়াট অভিযোগে ব্যবস্থা গ্রহণের সার্কুলার জারি করেছে। পার্বত্য চট্টগ্রামের সমস্যা সমাধানের জন্য পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ মনে করে ‘পূর্ণস্বায়ত্তশাসনই এর একমাত্র রাজনৈতিক সমাধান’। তিনি শিক্ষামন্ত্রণালয়ের জারিকৃত অগণতান্ত্রিক সার্কুলার প্রত্যাহারের দাবি জানান।

জিকো ত্রিপুরা বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে বসবাসরত শান্ত-সরল ও অন্যায়ের প্রতিবাদী পাহাড়ি জনগণকে দমন-পীড়ন করার জন্য শাসকগোষ্ঠি একের এর পর এক ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে। ইউপিডিএফ থেকে বহিস্কৃত দুষ্কৃতিকারীদের নিয়ে নব্য মুখোশ বাহিনী সৃষ্টি করেছে। সেই দুষ্কৃতিকারীরা এখন খুন-গুম,অপহরণসহ মানুষের উপর অত্যাচার ও ব্যাপক চাঁদাবাজি শুরু করে দিয়েছে। ১৯৯৬ সালে মেজর মাহবুবের সৃষ্টি করা মুখোশ বাহিনীকে জনগণের প্রবল প্রতিবাদ ও প্রতিরোধের মাধ্যমে দমন করা হয়েছে, নব্য মুখোশ বাহিনীকে ও ছাত্র-যুব-জনতা প্রতিরোধ করবেই। শাসকগোষ্টির ষড়যন্ত্রে পা দিয়ে যারা আজ নব্য মুখোশ বাহিনী সৃষ্টি করেছে তিনি তাদের জনগণের কাছে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানান।

রেশমী মারমা বলেন, বর্তমানে পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়িদের জন্য কারাগারে পরিণত হয়েছে। আজ আমরা নিজেদের অধিকার-সমাজ-সংস্কৃতি রক্ষার আন্দোলন পর্যন্ত করতে পারছিনা। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের জারিকৃত অগণতান্ত্রিক ১১ নির্দেশনা জারি থাকায় সভা-সমাবেশের উপর সেনা-পুলিশ-বিজিবি নগ্ন হস্তক্ষেপ করছে।

তিনি বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে প্রতিবন্ধী হতে শুরু করে ৪ বছরের শিশুকে পর্যন্ত যৌন নির্যাতনের শিকার হতে হয়। অপরাধীদের যথাযথ শাস্তি না দেওয়ায় এই হার আরোবৃদ্ধি পেয়েছে। ধর্ষণ-খুন-গুমের ঘটনাকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে ব্যবহার করা হচ্ছে। ইতি চাকমা হত্যার ঘটনা সম্পূর্ণ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে প্রবাহিত করার জন্য খাগড়াছড়ি সরকারী কলেজের দুই জন নিরপরাধ ছাত্রকে গ্রেপ্তার করে কারাগারে বন্দী রাখা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ফিলিস্তিন জনগণের পাশে থাকার কথা বলেন কিন্তু অন্যদিকে তার শাসিত দেশে ফিলিস্তিন সংহতি দিবসে খাগড়াছড়িতে ফিলিস্তিন সংহতি দিবসের মিছিলে সেনাবাহিনী হামলা চালিয়ে হিল উইমেন্স ফেডারেশনের সভাপতি নিরুপা চাকমাসহ অনেককে গ্রেপ্তার করা হয়। ফিলিস্তিন সংহতি দিবেসে হামলাকারীদের শাস্তি ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান তিনি।

সমাবেশ চলাকালীন ‘সেনা-সৃষ্ট নব্য মুখোশ বাহিনীর সদস্য কর্তৃক সমাবেশ ভণ্ডুল করার চেষ্টা ও পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের প্রতিরোধ’’র প্রতীকী নাটক প্রদর্শন করা হয়।

সমাবেশ শেষে দুপুর ১২.৩০টার সময় সমাবেশস্থল থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি নারাঙহিয়া, উপজেলা, কলেজ গেট হয়ে চেঙ্গী স্কোয়ার ঘুরে আবার একই স্থানে এসে শেষ হয়।

উল্লেখ্য, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের বেসরকারী কলেজ শাখা-৬ এর সিনিয়রসহ কারি সচিব নাসিমা খানম স্বাক্ষরিত এক বিতর্কিত সার্কুলারে রাঙামাটির নান্যাচর (নানিয়াচর) কলেজ কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ‘রাষ্ট্র বিরোধী কার্য কলাপ’ এর অভিযোগ আনা হয়। নানিয়াচর কলেজে পিসিপি’র নবীনবরণ ও কলেজ কাউন্সিল অনুষ্ঠানে ব্যবহৃত‘‘পূর্ণস্বায়ত্তশাসনই পার্বত্য চট্টগ্রামের একমাত্র রাজনৈতিক সমাধান’’ এই শ্লোগানকে বিকৃত করে ‘‘পূর্ণস্বায়ত্তশাসনই পার্বত্য চট্টগ্রামের একমাত্র রাষ্ট্রীয় সমাধান’’ উল্লেখ করে নান্যাচর(নানিয়াচর) কলেজ কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ আনা হয়েছে।
——————–
সিএইচটি নিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.