শনিবার, ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৭
সংবাদ শিরোনাম

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জারিকৃত সার্কুলার প্রত্যাহারের দাবিতে রামগড়ে পিসিপি’র বিক্ষোভ

রামগড় : শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জারিকৃত সার্কুলাার প্রত্যাহারসহ পিসিপির ঘোষিত ৮দফা দাবি দ্রুত বাস্তবায়নের দাবিতে রামগড়ে বিক্ষোভ মিছিল করেছে বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি) রামগড় উপজেলা শাখা।

আজ মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর ২০১৭) সকাল সাড়ে ১০টায় মিছিলটি রামগড় যৌথ খামার যাত্রীছাউনি এলাকা থেকে শুরু হয়ে যৌথ খামার বাজারে গিয়ে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মধ্যে দিয়ে শেষ হয়।

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, ইউনাইটেড পিপলস্ ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ)-এর রামগড় ইউনিটের সংগঠক পরম ত্রিপুরা, পিসিপি খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক অমল ত্রিপুরা ও রামগড় উপজেলা শাখার সহ-সভাপতি সুরেশ চাকমা।

সমাবেশে বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, দেশের রাষ্ট্রযন্ত্র পার্বত্য চট্টগ্রামের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে নিয়ন্ত্রণ করার জন্য নানাভাবে ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে। তার ধারাবাহিকতায় গত ১৭ আগস্ট নান্যাচর কলেজে পিসিপি’র কলেজ শাখার উদ্যোগে আয়োজিত নবীন বরণ ও কলেজ কাউন্সিলের ব্যানারে ব্যবহৃত “পূর্ণস্বায়ত্তশাসনই পার্বত্য চট্টগ্রামের একমাত্র রাজনৈতিক সমাধান” এই শ্লোগানটিকে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ও ষড়যন্ত্রমূলকভাবে বিকৃত করে এই গণতান্ত্রিক কর্মসূচিকে রাষ্ট্র বিরোধী আখ্যায়িত করে কলেজের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দিয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয় গত ১৯ নভেম্বর ২০১৭ এক বিতর্কিত ও অগণতান্ত্রিক সার্কুলার জারি করেছে।

বক্তারা আরো বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামের জনগণ প্রতিনিয়ত রাষ্ট্রীয় বাহিনী কর্তৃক নির্যাতন-নিপীড়নের শিকার হচ্ছে। রামগড়সহ বিভিন্ন জায়গায় রাতে-বিরাতে পাহাড়িদের বাড়ি-ঘরে তল্লাশি চালিয়ে সাধারণ জনগণকে হয়রানিসহ নানাভাবে মানবাধিকার লঙ্ঘন করা হচ্ছে।

সমাবেশ থেকে বক্তারা অবিলম্বে নান্যাচর কলেজের বিরুদ্ধে শিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক জারিকৃত সার্কুলার প্রত্যাহারসহ পিসিপির ঘোষিত ৮ দফা দাবি বাস্তবায়ন, পাহাড়িদের বাড়ি ঘরে সেনা-বিজিবি তল্লাশি বন্ধ ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের দমনমূলক ১১ দফা নির্দেশনা বাতিলের দাবি জানান।
—————
সিএইচটি নিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *