সংগ্রামের দৃপ্ত শপথে শহীদ অমর বিকাশ চাকমার স্মৃতিস্তম্ভে তিন সংগঠনের পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ

0
1

খাগড়াছড়ি : বিনম্র শ্রদ্ধা, ভালোবাসা ও সংগ্রামের দৃপ্ত শপথ নিয়ে আজ ৭ মার্চ মুখোশবাহিনী প্রতিরোধে অগ্রণী সৈনিক শহীদ বীর অমর বিকাশ চাকমার স্মৃতিস্তম্ভে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছে তিন অকুতোভয় লড়াকু সংগঠন বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি), হিল উইমেন্স ফেডারেশন (এইচডব্লিউএফ) ও গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম (ডিওয়াইএফ)।

সকাল ৭টায় তিন সংগঠনের পক্ষে পুষ্পাঞ্জলি দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন পিসিপি খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সহ-সাধারণ সম্পাদক এল্টন চাকমা, এইচডব্লিউএফ খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক রেশমী মারমা ও ডিওয়াইএফ খাগড়াছড়ি জেলা সাধারণ সম্পাদক পলাশ চাকমা।

পুষ্পার্ঘ্য অর্পণের শেষে শহীদের প্রতি সম্মান জানিয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

এরপর সেখানে এক সংক্ষিপ্ত বক্তব্য প্রদান করেন এইচডব্লিউএফ খাগড়াছড়ি জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক রেশমী মারমা ও পিসিপি খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সভাপতি অমল ত্রিপুরা।

১৯৯৬ সালের ৭ মার্চের বীরত্বগাঁথা ইতিহাসকে স্মরণ করে বক্তারা বলেন, শাসকগোষ্ঠীর চাপিয়ে দেয়া জাতিগত নিপীড়নমূলক যে কোন ষড়যন্ত্র-চক্রান্তকে পার্বত্য চট্টগ্রামের ছাত্র-যুব-নারীরা বরদাস্ত করবে না। নব্য মুখোশবাহিনী সৃষ্টি করে জুম্ম জনগণের ন্যায্য আন্দোলনকে স্তব্দ করে দেয়া যাবে না। পার্বত্য চট্টগ্রামের বীর জনতা অতীতের মতো এই গণদুশমন নব্য মুখোশবাহিনীকে শায়েস্তা করবে।

উল্লেখ্য, ১৯৯৬ সালে ৭ মার্চ সেনাসৃষ্ট মুখোশবাহিনী দুই পিক-আপ সেনা সহায়তায় পেরছড়ায় এক রাজনৈতিক কর্মীকে অপহরণ করতে গেলে খাগড়াছড়ি স্টেডিয়ামের পাশে স্থানীয় জনতা কর্তৃক অবরুদ্ধ হয়। সেনা জওয়ানরা বিক্ষুব্ধ ছাত্র-জনতাকে ছত্রভঙ্গ করতে গুলি ছুঁড়লেও তাতে সক্ষম হয় নি। এ সময় উক্তর খবংপুজ্জ্যার অমর বিকাশ চাকমা সেনা জওয়ানদের গুলিতে ঘটনাস্থলে শহীদ হন। এতে জনতা দ্বিগুণ ক্রোধে জ্বলে ওঠে সেনাদের ধাওয়া করে ক্যান্টনমেন্টের দিকে তাড়িয়ে নিয়ে যায়।
_______
সিএইচটিনিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্রউল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.