শনিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
সংবাদ শিরোনাম

সংস্কারবাদী জেএসএস কর্তৃক মহালছড়ি বাজার থেকে ৩ নিরীহ গ্রামবাসীকে অপহরণ : ইউপিডিএফ’র নিন্দা

মহালছড়ি : খাগড়াছড়ির মহালছড়ি উপজেলা সদর বাজার থেকে ৩ জন নিরীহ গ্রামবাসীকে অপহরণ করে নিয়ে গেছে সংস্কারবাদী জেএসএস-এর দৃর্বৃত্তরা। আজ ১৯ জুন (মঙ্গলবার) সকাল সাড়ে ৮টা থেকে ৯টার মধ্যে এ ঘটনা ঘটে।

অপহৃতরা হলেন- উৎপল চাকমা(৪০), পিতা- মৃত রায় মোহন চাকমা, সাং- রণুচন্দ্র কার্বারী পাড়া (মেজর পাড়া), ৮নং ওয়ার্ড ১নং সাবেক্ষ্যং ইউনিয়ন; একই গ্রামের পূর্ণবরণ চাকমা(৫০), পিতা- মৃত বিন্দু কুমার চাকমা ও রিকেল চাকমা(৩২), পিতা- হিরো মোহন চাকমা, সাং- রাম সুপারী পাড়া, ৯নং ওয়ার্ড ১ নং সাবেক্ষ্যং ইউনিয়ন, উপজেলা নান্যাচর।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক প্রত্যক্ষদর্শী সিএইচটি নিউজ ডটকমকে বলেন, উৎপল চাকমা ও পূর্ণবরণ চাকমাসহ আমরা একসাথে তরি-তরকারী বিক্রি করছিলাম। এসময় ৪ জন লোক এসে তাঁদেরকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে যায়। অপহরণকারীদের বয়স ৪০-এর উপর হবে। নিয়ে যাওয়ার সময় তাঁরা অপহৃতদের গ্রামের কার্বারী ও মুরুব্বীদের ব্রীজ পাড়াতে গিয়ে যোগাযোগ করতে বলেন।

অপর একজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, রিকেল চাকমা বাজারে গিয়েছিলেন বীজ ধান কিনতে। তিনি উপর বাজারের মৃদুল বণিক নামে এক স্বর্ণের দোকানে বসা ছিলেন। বাজারে আসলে তিনি প্রায় সময় সেখানে বসতেন। সকালে ৩জন দুর্বৃত্ত এসে তাকে সেখান থেকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে যায়। যাবার সময় দুর্বৃত্তরা তাঁর গ্রামের কার্বারী ও মুরুব্বীদেরকে অতিসত্বর ব্রীজ পাড়াতে গিয়ে যোগাযোগের নির্দেশ দিয়ে তাড়াতাড়ি স্থান ত্যাগ করে চলে যান।

স্থানীয় বেশ কয়েকজন ব্যক্তি আরো জানান, প্রায় মাস খানেক যাবত সংস্কারবাদী জেএসএস-এর সশস্ত্র দুর্বৃত্ত মুবাছড়ির শান্তি পাড়ার বাসিন্দা চারু রঞ্জনের ছেলে নীল রঞ্জন চাকমা(৪৩), ব্রীজ পাড়ার সমর চাকমা(৪০), কুতুকছড়ি ভূইয়ো আদামের বাসিন্দা বুলো চাকমা প্রকাশ পাভেল্যা বাপ(৪৯), উচ্চ হেঙলছড়ির বাসিন্দা রাজন চাকমা(৪৫), হুল্লেঙ পাড়ার (মুবাছড়ি) বাসিন্দা রান্দাল্যা চাকমা(৫০) ও শিলন্যার বাসিন্দা বিনিময় চাকমা(৫৩) উল্লেখিত দুই গ্রাম থেকে মোটা অংকের চাঁদা (প্রতি পরিবার ৫০০ টাকা করে) দাবি করে আসছিলেন এবং গ্রামের সকল মোবাইল ফোন নাম্বার জমা দিতে গ্রামের কার্বারী ও মুরুব্বীদের নির্দেশ দিয়েছিলেন।

তাঁরা আরো জনান, ধার্য্যকৃত চাঁদার টাকাগুলো ব্রীজপাড়াতে পৌঁছে দেয়ার জন্য অনেকদিন ধরে চাপ দিয়ে আসছে। সাথে গ্রামের সকল মোবাইল ফোন নাম্বারও। এজন্য প্রায় সময় মোবাইল ফোনে হুমকি দেয়া হচ্ছে। এতে অতিষ্ঠ হয়ে অনেকে ফোন বন্ধ করে রেখে দিয়েছেন। নিরীহ খেটে-খাওয়া তিন গ্রামবাসীকে অপহরণের পেছনে এটাও একটা কারণ হতে পারে বলে ধারণা করছেন এলাকার লোকজন।

উক্ত ঘটনায় ইউপিডিএফ’র খাগড়াছড়ি জেলা ইউনিটের প্রধান সংগঠক সচিব চাকমা তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন। তিনি আজ সংবাদ মাধ্যমে প্রদত্ত এক বিবৃতিতে অবিলম্বে অপহৃত নিরীহ ৩ গ্রামবাসীকে অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার ও অপহরণকারী সংস্কারবাদী জেএসএস-এর সশস্ত্র দুর্বৃত্তদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।
_________
সিএইচটি নিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.