সাঙ্গু ও মাতামুহুরী নদের পাড়ে ভাঙন : ক্ষতিগ্রস্ত অর্ধশতাধিক পরিবার

0
3

সিএইচটি নিউজ ডটকম
FB_IMG_14386609623210487উথোয়াই মারমা,বান্দরবান প্রতিনিধি: বান্দরবানের সাঙ্গু ও লামা, নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় নদের পাড়ে বিশাল এলাকাজুড়ে ভাঙন দেখা দিয়েছে। এতে প্রায় অর্ধ শতাধিক ঘর দেবে যাওয়ায় আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে এলাকার বাসিন্দারা।

সোমবার সকালে মধ্যমপাড়া এলাকায় সাঙ্গু পাড়ের বিশাল অংশের মাটি হঠাৎ করে দেবে যায়।

এক মাস যেতে না যেতে মাসে তিন দফা বন্যা, অবিরাম বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে সাঙ্গু নদ ও মাতামুহুরী নদীর পানি বিপদ সীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়। পরে নদীর পানি কমে বন্যা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার পর বিভিন্ন জেলা ও বিভিন্ন উপজেলায় এলাকায় ব্যাপক ভাঙন ও মাটি দেবে যাওয়া, ফাটল ধরতে দেখা দেয়।

বান্দরবানে মধ্যম পাড়া, লামা চম্পাতলী, রূপসী পাড়া ইউনিয়নের অহ্লারী ব্রীজের নদীর দু পাড়ে বিশাল ভাঙ্গন ধরে রাস্তাসহ ডেবে যাওয়ায়, যার ফলে এলাকাবাসীর চলাচলে বিরাম ভূগান্তিতে পুহাতে হচ্ছে।

স্থানীয়রা জানান, রাতে হঠাৎ করে নদীর পাড়ে বিশাল এলাকুজড়ে মাটিতে ফাটল দেখা দেয়। পরে ভোরের দিকে প্রায় ৫০টিরও বেশি বসতঘর,  লামায় নদীর দু পাড়ে পাড়, রূপসী পাড়ার রাস্তা ভেঙে পড়ে যায়।

এসময় আতঙ্কিত লোকজন বিভিন্ন স্কুল, আশ্রয়কেন্দ্রসহ বিভিন্ন নিরাপদ স্থানে সরে যায়।

সোমবার দুপুরে বান্দরবান জেলা প্রশাসক মিজানুল হক চৌধুরী, পৌর মেয়র মোহাম্মদ জাবেদ রেজাসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

মঙ্গলবার বান্দরবানে নদীর ভাঙ্গনের সহিত বসতঘর ডেবে যাওয়া ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে জেলা প্রশাসক মিজানুল হক চৌধুরী, প্রতি পরিবারকে ২০ কেজি চাউল ও নগদ ২০০০ টাকা করে ত্রাণ বিতরণ করেছেন।

লামা, নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় নদীর ভাঙ্গনের বাঁধ নিমার্ণ করা হলে উপকৃত হবে এলাকাবাসী। অতীব জরুরি ভিত্তিতে বাঁধ নিমার্ণ কাজ করার জন্য প্রশাসনের নিকট জোর দাবি জানান নদী ভাঙ্গনের ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার বর্গ।
—————–

সিএইচটিনিউজ.কম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.