সাজেকের উজো বাজারে সামাজিক শৃংখলা বিষয়ক সভা

0
1

সিএইচটিনিউজ.কম
MeetingSajekUjobazarসাজেক(রাঙামাটি): সামাজিক শৃংখলা সুদৃঢ় করার উদ্দেশ্য নিয়ে রাঙামাটির সাজেকের উজো বাজারে ইউপিডিএফএর উদ্যোগে ২৬ জুন বৃহস্পতিবার সকালে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সভায় উপস্থিত ছিলেন ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট(ইউপিডিএফ) এর সংগঠক ও সাজেক ইউনিয়নের সমন্বয়ক মিঠুন চাকমা, সাজেক ভূমিরক্ষা কমিটির সভাপতি জ্ঞানেন্দু চাকমা, গঙ্গারাম উজো বাজারের সভাপতি জ্যোতিলাল চাকমা, গঙ্গারাম গ্রামের মুরুব্বি হৃদয়রঞ্জন চাকমা, গণতান্ত্রিক যুবফোরাম সাজেক শাখার সভাপতি সুপন চাকমা, সহ সভাপতি জেনেল চাকমা, সদস্য বীরঞ্জন চাকমা, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ সাজেক থানা শাখার সভাপতি রিপনজ্যোতি চাকমা, গ্রামের যুবনেতা বিজয়কান্তি চাকমা, রিন্টু চাকমা, সন্তুময় চাকমা প্রমুখ।

সভায় বক্তাগণ গত ২৩ জুন সাজেকের উজো বাজারে পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ-গণতান্ত্রিক যুবফোরাম ও এলাকার যুবসমাজের উদ্যোগে যে মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালিত হয় তার সবিশেষ প্রশংসা করেন। এবং এ ধরণের মাদকবিরোধী কর্মসূচি সাজেকের বিভিন্ন এলাকায় স্বতস্ফূর্তভাবে পরিচালনা করে সমাজে শান্তিশৃংখলা স্থাপন করতে যুব-ছাত্রসমাজকে এগিয়ে আসা উচিত বলে মন্তব্য করেন। বক্তাগণ বলেন, সমাজে মাদকের মাত্রা অত্যধিক হারে বেড়ে গিয়ে যাতে যুবসমাজ উচ্ছন্নে না যায় সেদিকে ছাত্র-যুব সমাজকে খেয়াল রাখতে হবে। উল্লেখ্য উক্ত অভিযানে উজো বাজার থেকে সর্বমোট ২০ লিটার মদ জব্দ করা হয়।

উজো বাজার থেকে জব্দকৃত মদ ঢেলে দেয়া হচ্ছে
উজো বাজার থেকে জব্দকৃত মদ ঢেলে দেয়া হচ্ছে

এছাড়া উক্ত সভায় বক্তাগণ সাজেকের রেতকাবা গ্রাম থেকে বাইএ বা ছড়া গ্রামের বাদল হাট ছড়া পর্যন্ত পথ ব্রিক সোলিঙ বা ইট বিছানোর জন্য ইউএনডিপির সিএইচটিডিএফএর একটি প্রজেক্টের কাজ বনবিভাগ কর্তৃক বাধা প্রদানের তীব্র সমালোচনা করেন এবং সভা থেকে নিন্দা জ্ঞাপন করেন। বনরক্ষার অজুহাত ও বন আইন ভঙ্গের কারণ দেখিয়ে উক্ত উন্নয়নমূলক কাজ বন্ধ করে দেয়াকে বক্তাগণ প্রহসন হিসেবে উল্লেখ করেন।

বক্তারা বলেন, সাজেকের বাঘাইহাট হয়ে মাজালঙ ঘুরে রুইলুই ও কঙলাক পাহাড় পর্যন্ত প্রায় ৩৫ কিলোমিটার পাকা পথ বনবিভাগের ভুমির উপর নির্বিঘ্নে নির্মাণ করা বৈধ হলে রেতকাবা ও বাই এ বা ছড়া গ্রামের জনগণের যাতায়াত সুবিধা লাভের জন্য মাত্র এক কিলোমিটার ইট বিছানো পথ নির্মাণ নির্মাণ কেন বৈধ হবে না? মূলত: পার্বত্য জুম্ম জনগণকে নাগরিক সুযোগ থেকে বঞ্চিত রাখার জন্যই রাঙামাটি বন বিভাগ এই পথ নির্মানে বাধা দিচ্ছে। এই বাধাপ্রদানকে সাম্প্রদায়িক বর্ণবাদী আচরণ হিসেবেও বক্তাগণ অভিহিত করেন।

বক্তাগণ অবিলম্বে বনবিভাগ কর্তৃক এই অন্যায় বাধা প্রদান প্রত্যাহারের দাবি জানান এবং  জনগণের যাতায়াত ও যোগাযোগ সুবিধা প্রদানের সুযোগ করে দিতে দাবি জানান। তা না হলে সাজেকের জনগণ যাতায়াত ও যোগাযোগের মতো গুরুত্বপূর্ণ নাগরিক সুবিধা লাভের  দাবি জানিয়ে ঐক্যবদ্ধ হয়ে তীব্র গণআন্দোলন গড়ে তুলবে বলে ঘোষনা দেন।

আলোচনা সভায় শেষ হবার পরে জব্দকৃত ২০ লিটার মদ গঙ্গরাম ব্রিজ থেকে কাজালঙ-গঙ্গারাম নদীতে ফেলে দেয়া হয়।
————-

সিএইচটিনিউজ.কম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.