সাজেকে সড়ক অবরোধ প্রত্যাহার, আন্দোলন অব্যাহত রাখার ঘোষণা

0
1

সিএইচটিনিউজ.কম
Sajekসাজেক: সাজেকের উজো বাজার এলাকায় আপাতত “কোন পুলিশ ফোর্স থাকবে না এবং ১৪৪ ধারাও থাকবে না” প্রশাসন কর্মকর্তাদের এমন আশ্বাসের প্রেক্ষিতে সড়ক অবরোধ প্রত্যাহার করে নিয়েছে সাজেকের বিক্ষুব্ধ জনতা। 

উজো বাজার এলাকায় বুদ্ধমূর্তি স্থাপনে বাধাদান ও বিজিবি ব্যাটালিয়ন স্থাপনের নামে পাহাড়িদের উচ্ছেদের ষড়যন্ত্র বিষয়ে প্রশাসনের সাথে বৈঠকে বনাবনি না হওয়ায় বুধবার বিকেলে তাৎক্ষণিকভাবে সড়কের উপর বসে অবরোধ শুরু করে এলাকাবাসী।

জানা যায়, বুধবার দুপুরে বাঘাইছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুমন চৌধুরী ও রাঙামাটির অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোস্তাফিজুর রহমান উজো বাজারে গিয়ে এলাকাবাসীর সাথে বৈঠক করেন। এ সময় এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে সাজেক ইউপি চেয়ারম্যান অতুলাল চাকমা, ভূমিরক্ষা কমিটির জ্ঞানেন্দু চাকমা, সাজেক নারী সমাজের নিরূপা চাকমা, ডা: প্রদীপ চাকমা, জ্যোৎস্না রানী মেম্বার, অম্পিকা চাকমা, জেনেল কার্বারী, নয়নরঞ্জন চাকমা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকে এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে উপস্থিত প্রতিনিধিবৃন্দ বুদ্ধমূর্তি স্থাপনে বাধাদান বন্ধ করা ও উজো বাজার এলাকায় বিজিবি ক্যাম্প স্থাপনের নামে পাহাড়িদের উচ্ছেদের ষড়যন্ত্র বন্ধ করার দাবি করেন। কিন্তু প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাদের দাবি পাশ কাটিয়ে শুধুমাত্র ক্ষতিপূরণ দেয়ার কথা বললে পাহাড়িরা বৈঠক থেকে বেরিয়ে আসেন। এরপরই বিকাল ৪.৪০টা থেকে এলাকার বিক্ষুব্ধ পাহাড়িরা উজো বাজারের চৌমুহনীতে রাস্তার উপর বসে পড়ে অবরোধ শুরু করে। এরফলে প্রশাসনের কর্মকর্তারা এক প্রকার অবরুদ্ধ হয়ে পড়েন।

পরে রাতে এলাকাবাসীর সাথে প্রশাসনের কর্মকর্তাদের আলোচনার মাধ্যমে ‘উজো বাজার এলাকায় পুলিশ ফোর্স ও ১৪৪ ধারা জারি থাকবে না’ এমন আশ্বাসের প্রেক্ষিতে এলাকাবাসী অবরোধ তুলে নিলে প্রশাসনের কর্মকর্তারা ফিরে যান। এরপর এলাকাবাসীও নিজ নিজ বাসায় ফেরেন।

এদিকে, সাজেক ভূমি রক্ষা কমিটির সভাপতি জ্ঞানেন্দু চাকমা ও সাজেক নারী সমাজের সভাপতি নিরূপা চাকমা আপাতত অবরোধ প্রত্যাহার করা হলেও দাবী আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন অব্যাহত রাখার ঘোষণা দিয়ে এক বিবৃতিতে বলেছেন, প্রশাসন যতক্ষণ পর্যন্ত বুদ্ধমূর্তি স্থাপনে বাধাদান ও বিজিবি ক্যাম্প স্থাপনের নামে ভূমি বেদখল ও পাহাড়ি উচ্ছেদের ষড়যন্ত্র বন্ধ করবে না ততক্ষণ পর্যন্ত সাজেকবাসী আন্দোলন চালিয়ে যাবে। প্রশাসন যদি জোরপূর্বক জনগণের এ আন্দোলন দমনের চেষ্টা চালায় তাহলে যেকোন উদ্ভুত পরিস্থিতির প্রশাসনকেই সকল দায়-দায়িত্ব নিতে হবে।

তারা অবিলম্বে সাজেকবাসীর দাবি মেনে নেয়ার জন্য প্রশাসন ও সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, গতকাল মঙ্গলবার এলাকাবাসীর উদ্যোগে গঙ্গারাম দোর-এর উজোবাজার এলাকায় একটি বুদ্ধমূর্তি স্থাপনের কাজ করার  সময় দুপুরে বাঘাইছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুমন চৌধুরী পুলিশসহ এসে এতে বাধা প্রদান করে। এর প্রতিবাদে এলাকাবাসী তাৎক্ষণিক বিক্ষোভ মিছিল করে এবং সারারাত বুদ্ধমূর্তি নির্মাণাধীন স্থানে অবস্থান গ্রহণ করে প্রতিবাদ জানায়।
————-

সিএইচটিনিউজ.কম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.