সেনা-প্রশাসনের আশ্রয়-প্রশ্রয়ে মিঠুন চাকমার খুনিরা, এলাকার জনমনে আতঙ্ক

0
1

খাগড়াছড়ি : ইউপিডিএফ’র অন্যতম সংগঠক মিঠুন চাকমার খুনিরা এখন সেনা-প্রশাসনের আশ্রয়-প্রশ্রয়ে থেকে খুন, গুম, অপহরণ, চাঁদাবাজিসহ নানা অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে। ফলে এলাকার মানুষ এখন চরম আতঙ্কে রয়েছেন।

চলতি বছর ৩ জানুয়ারি মিঠুন চাকমা নির্মমভাবে খুনের শিকার হন। আদালত থেকে একটি মামলায় হাজিরা দিয়ে খাগড়াছড়ি শহরের অপর্ণা চৌধুর পাড়ার নিজ বাসায় ফেরার পথে বাড়ির প্রবেশ গেট থেকে একদল সশস্ত্র সন্ত্রাসী তাকে তুলে নিয়ে অর্ধেক রাস্তায় গুলি করে খুন করে ফেলে রেখে যায়। এ ঘটনায় অনি বিকাশ চাকমা বাদী হয়ে খাগড়াছড়ি জেলা আদালতে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলায় সুনির্দিষ্টভাবে ১৭ জনের নাম উল্লেখ করা হয়। কিন্তু ঘটনার ৫ মাস অতিক্রান্ত হলেও পুলিশ এখনো কাউকে গ্রেফতার করেনি। অভিযোগ রয়েছে মামলায় অভিযুক্ত খুনী আসামীরাই এখন সেনা-প্রশাসনের আশ্রয়-প্রশ্রয়ে থেকে খুন, গুম, অপহরণ, চাঁদাবাজিসহ নানা অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে।

এ বিষয়ে এলাকার একাধিক জনপ্রতিনিধি নাম প্রকাশ না করার শর্তে সিএইচটি নিউজ ডটকমের এই প্রতিনিধিকে বলেন, প্রকাশ্যে দিবালোকে একজন মানুষকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে অথচ ৫ মাসেও খুনীরা গ্রেফতার না হওয়া বড়ই উদ্বেগজনক। তারা বলেন, প্রশাসন যদি খুনীদের গ্রেফতারের চেষ্টা করতো তাহলে নিশ্চয় ধরতে পারতো। কিন্তু দেখা যাচ্ছে খুনিরা প্রকাশ্যে প্রশাসনের নাকের ডগায় ঘুরলেও তাদেরকে গ্রেফতার করা হচ্ছে না। উপরন্তু এ ঘটনায় জড়িত সন্ত্রাসীরা এখন এলাকার মানুষকে এক প্রকার জিম্মি করে রেখেছে। তারা জনপ্রতিনিধি, এলাকার মুরুব্বী থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষকে প্রাণনাশসহ নানা হুমকি দিচ্ছে, চাঁদা দাবি করছে। এমনকি খুনও করছে। গত ১৬ এপ্রিল তারা সূর্য বিকাশ চাকমা নামে এলাকার এক সমাজকর্মীকে প্রকাশ্যে দিবালোকে গুলি করে হত্যা করেছে। এ অবস্থায় এলাকার মানুষ চরম আতঙ্কগ্রস্ত। তারা প্রশাসনের উপর কিছুতেই আস্থা রাখতে পারছে না।

এলাকার এক মুরুব্বী ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, বেশ কয়েকদিন ধরে যৌথবাহিনীর অভিযান চালানো হচ্ছে। অথচ মিঠুন চাকমার খুনিরা প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে, তাদেরকে ধরা হচ্ছে না। তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, সত্যিকার অর্থে যদি সন্ত্রাসী ধরার জন্য এ অভিযান হয় তাহলে মিঠুন চাকমার খুনিদের গ্রেফতার না করে তাদের জামাই আদর দিয়ে রাখা হচ্ছে কেন?

মামলার বাদী অনি বিকাশ চাকমা বলেন, আদালতের নির্দেশ থাকার পরও পুলিশ ৫ মাসে একজন খুনিকেও গ্রেফতার করেনি। উল্টো খুনিরা এখন সেনা-প্রশাসনের আশ্রয়-প্রশ্রয়ে থেকে বীরদর্পে ঘুরে বেড়াচ্ছে এবং সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালিয়ে এলাকার জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টি করছে বলে তিনি অভিযোগ করেন। তিনি অবিলম্বে মিঠুন চাকমার খুনিদের আইনের আওতায় এনে বিচারের দাবি জানান।
—————-
সিএইচটিনিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.