রাঙামাটি টেক্সটাইল ভোকেশনাল ইনিস্টিটিউটের অধ্যক্ষ কর্তৃক ছাত্রীদের যৌন হয়রানি

হিল উইমেন্স ফেডারেশনের নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ

0
0

রাঙামাটি : হিল উইমেন্স ফেডারেশনের রাঙামাটি জেলা শাখার সভাপতি মন্টি চাকমা ও সাধারণ সম্পাদক নীতি শোভা চাকমা শুক্রবার (১৭ মার্চ) সংবাদ মাধ্যমে প্রদত্ত এক বিবৃতিতে রাঙামাটি টেক্সটাইল ভোকেশনাল ইনিস্টিটিউটের অধ্যক্ষ মো: রেজাউল করিম কর্তৃক ছাত্রীদের যৌন হয়রানির ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

bibritiবিবৃতিতে নেতৃদ্বয় বলেন, অভিযুক্ত টেক্সটাইল ভোকেশনাল ইনিস্টিটিউটের অধ্যক্ষ রেজাউল করিম ইনিস্টিটিউটের ছাত্রী সেপাটি ত্রিপুরাকে এ পর্যন্ত বেশ কয়েকবার তার অফিস কক্ষে ডেকে নিয়ে বিভিন্ন কুপ্রস্তাব দেন। তার সাথে বাসায় যাওয়া এবং শিক্ষাসরঞ্জাম ক্রয় সহ বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা দেওয়ার কথা বলে যৌন হেনস্থা করার উদ্দেশ্যে বিভিন্ন লোভনীয় কুপ্রস্তাব দেন।এই কুপ্রস্তাবে রাজী হলে ছাত্রীটিকে পরীক্ষায় বেশি নাম্বার দিয়ে পাশ করে দেয়ার কথা বলেন। আর যদি রাজী না হয়, পরীক্ষায় কম নাম্বার দিয়ে ফেল করে দেয়া সহ ইনিস্টিটিউট থেকে বহিস্কার করারও হুমকি প্রদান করেন। এমনকি রাত্রে সেপাটি ত্রিপুরার মায়ের মোবাইল ফোনে কল দিয়ে তাকে খুঁজেন এবং তার কাছে প্রাইভেট পড়ার জন্য প্রস্তাব দেন যাতে তার হীন উদ্দেশ্য বাস্তবায়ন করতে পারে।

শুধু সেপাটি ত্রিপুরা নয়, একই প্রতিষ্ঠানের ছাত্রী রুটিকা চাকমাকে এ ধরনের লোভনীয় প্রস্তাব দেন অধ্যক্ষ রেজাউল করিম।

নেতৃদ্বয় বিবৃতিতে আরো বলেন, একজন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান কর্তৃক ছাত্রীদের এ ধরনের যৌন হয়রানি মোটেই কাম্য নয়। এ ধরণের কার্যকলাপে সে তার লুকায়িত পশুসুলভ আচরণের বহিঃপ্রকাশ ঘটিয়েছে। এমন নিচ মানসিকতার লোক রেজাউল করিমের এই মুহুর্তে আর প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ থাকার কোন যোগ্যতা আছে বলে আমরা মনে করি না। বিবৃতিতে তারা নারী লোভী হীন মানসিকতা সম্পন্ন  রেজাউল করিমকে অধ্যক্ষ হতে অপসারণের জন্য সরকারের কাছে আহ্বান জানান।

তারা বলেন, কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যাতে আর এ ধরনের ন্যক্কারজনক ঘটনার পুনরাবৃত্তি না ঘটে সেদিকে সজাগ দৃষ্টি রাখবে বলে প্রশাসনের কাছে আশা রাখছি।

বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় অভিযুক্ত টেক্সাটাইল ভোকেশনাল ইনিস্টিটিউটের অধ্যক্ষ রেজাউলের করিমের দ্বারা সংঘটিত ছাত্রীদের যৌন হয়রানির ঘটনা সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে আইনের আওতায় এনে শাস্তি প্রদানের দাবি জানান।
—————–

সিএইচটি নিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.