১৬ গ্রামবাসীকে অপহরণের প্রতিবাদে কাল মানববন্ধন ও ১০ জুলাই নান্যাচর উপজেলায় অবরোধের ডাক

0
0

রাঙামাটি : রাঙামাটির নান্যাচর উপজেলার বুড়িঘাট ইউনিয়নের হাতিমারা মুখ এলাকা থেকে উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের গ্রাম প্রধানসহ ১৬ জন নিরীহ গ্রামবাসীকে সংস্কারবাদী জেএসএস ও নব্য মুখোশাহিনী কর্তৃক অপহরণের প্রতিবাদে আগামীকাল সোমবার (৯ জুলাই) নান্যাচরের ঘিলাছড়িতে সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত মানববন্ধন ও মঙ্গলবার (১০ জুলাই) নান্যাচর উপজেলায় সকাল-সন্ধ্যা সড়ক ও নৌপথ অবরোধের ডাক দিয়েছে নব্য মুখোশ বাহিনী প্রতিরোধ কমিটি।

নব্য মুখোশ বাহিনী প্রতিরোধ কমিটির সদস্য সচিব পরাণধন চাকমা সাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ অবরোধের কথা জানানো হয়েছে।

উক্ত অপহরণ ঘটনায় ‘নব্য মুখোশ বাহিনী প্রতিরোধ কমিটি’র আহ্বায়ক জ্যোতি লাল চাকমা তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

সংবাদ মাধ্যমে প্রদত্ত এক বিবৃতিতে তিনি উদ্বেগ প্রকাশ করে তিনি বলেন, সেনা সৃষ্ট নব্য মুখোশ বাহিনী ও সংস্কারবাদী জেএসএস-এর হাতে গোটা নান্যাচরবাসী জিম্মি হয়ে পড়েছে। দিন দুপুরে গণহারে ১৬ জন গ্রামবাসীকে অপহরণের পরও প্রশাসনের কোন তৎপরতা দেখা যাচ্ছে না। অপহরণকারী সন্ত্রাসীরা নান্যাচর সদরে প্রশাসনের নাকের ডগায় অবস্থান করলেও তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থাও নেয়া হচ্ছে না বলে অভিযোগ করেন তিনি।

তিনি অপহরণের প্রতিবাদে ঘোষিত মানববন্ধন ও অবরোধ কর্মসূচি সফল করতে এলাকাবাসীর কাছে সর্বাত্মক সহযোগিতা কামনা করেছেন।

এদিকে পৃথক এক বিবৃতিতে ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ)-এর রাঙামাটি জেলা ইউনিটের সংগঠক সচল চাকমা উক্ত ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।

‘স্থানীয় প্রশাসন ও নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের সহযোগিতা ও পৃষ্ঠপোষকতা ছাড়া এভাবে প্রকাশ্য দিবালোকে ও উপজেলা সদর এলাকা থেকে লোকজন অপহরণ করা সম্ভব নয়’ মন্তব্য করে ইউপিডিএফ নেতা বলেন, একটি বিশেষ গোষ্ঠী পার্বত্য চট্টগ্রামে অশান্তি সৃষ্টির জন্য নব্য মুখোশ বাহিনী ও সংস্কারবাদীদেরকে খুন, অপহরণসহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকা-ে মদদ দিয়ে যাচ্ছে।

ঘটনার সময় সন্ত্রাসীদের নিরাপত্তা দেয়ার জন্য ঘটনাস্থল থেকে এক কিলোমিটার দূরে ভাঙামুড়া নামক স্থানে সেনাবাহিনীর একটি টহল দল অবস্থান নেয় বলে তিনি জানিয়েছেন।

বিবৃতিতে ইউপিডিএফ নেতা অবিলম্বে অপহৃত গ্রামবাসীদের উদ্ধার এবং সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

উল্লেখ্য, আজ রবিবার (৮ জুলাই) সকাল সাড়ে ৭টার দিকে নান্যাচর উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে লোকজন কুদুকছড়ি বাজারে যাচ্ছিলেন। যাবার পথে বুড়িঘাট ইউনিয়নের হাতিমার মুখ নামক স্থানে সংস্কারবাদী জেএসএস ও মুখোশ বাহিনীর সশস্ত্র দুর্বৃত্তরা লোকজনকে বহনকারী ইঞ্জিন চালিত নৌকা থামিয়ে বিভিন্ন গ্রামের প্রায় ২৫ জন সাধারণ গ্রামবাসীকে অস্ত্রের মুখে নামিয়ে রাখে। পরে সেখান থেকে ৯ জনকে ছেড়ে দিয়ে বাকী ১৬ জনকে অপহরণ করে উপজেলার বড়াদাম নামক গ্রামের দিকে যায়। এখনো তাদের কাউকে ছেড়ে দেয়া হয়নি।

এর আগে গত ৪ জুলাই সংস্কারবাদী ও নব্য মুখোশ বাহিনীর সদস্যরা  নানিয়াচর বাজার থেকে সেনাবাহিনী ও পুলিশের নাকের ডগায় বুড়িঘাট ইউপির ১ নং ওয়ার্ডের বগাছড়ি গ্রামের বাসিন্দা প্রয়াত আনন্দ মোহন চাকমার ছেলে সুখেন্তু চাকমা (৫০) ও একই গ্রামের প্রয়াত ডুলু চাকমার ছেলে ত্রিদিব চাকমা (৪৮) নামে দুই ব্যক্তিকে অপহরণ করেছিল। সন্ত্রাসীরা তাদের মুক্তির জন্য তাদের দুই পরিবারের কাছ থেকে ২০ লক্ষ টাকা দাবি করে। তাদেরও এখনো পর্যন্ত ছেড়ে দেয়া হয়নি।’

 

আরও পড়ুন:

>>নান্যাচর ‍উপজেলায় সংস্কারবাদী জেএসএস ও মুুখোশবাহিনী কর্তৃক গণঅপহরণ!

———————
সিএইচটিনিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.