বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
সংবাদ শিরোনাম

বাঘাইছড়িতে ইউপিডিএফ সমর্থককে হত্যা

রাঙামাটি॥ বাঘাইছড়ির উত্তর বঙ্গলতলি গ্রামে মিশর চাকমা (৩০) নামে এক ইউপিডিএফ সমর্থককে মাথায় লাঠি দিয়ে আঘাত করে হত্যা করা হয়েছে। গতকাল রাত সাড়ে আটটার দিকে নিজ বাড়ির পাশে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, গতকাল বুধবার পাড়ার বটতলি দোকানে ৪-৫ জন বন্ধুর সাথে আড্ডা দেয়ার পর মিশর চাকমা রাত সোয়া আটটার দিকে যে যার বাড়িতে ফিরে যান।

তিনি বাড়ির কাছাকাছি পৌঁছলে ওঁত পেতে থাকা ঘাতকরা তার মাথায় উপর্যুপুরি আঘাত করে পালিয়ে যায়। এ সময় তার চিৎকার শুনে বাড়ির ও আশেপাশের লোকজন ঘটনাস্থলে গেলে তাকে মৃত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখতে পায়।

মিন্টু বাপ নামে তার এক নিকট আত্মীয় সিএইচটি নিউজ ডটকমকে জানান, মিশর চাকমা বাড়িতে চাষবাস ছাড়াও টুকিটাকি ব্যবসা করে থাকেন। কয়েক দিন আগে এক বাঙালি বাঁশের সওদাগরের কাছ থেকে এক লক্ষ টাকা নিয়েছিলেন। তার মধ্যে ৯০ হাজার টাকা কাটারদের মধ্যে বিলি করেন। বাকি ১০,০০০ টাকা তার পকেটে পাওয়া যায়। কাজেই বোঝা যায় টাকা পয়সা হাতিয়ে নেয়া খুনীদের উদ্দেশ্য ছিল না।

উত্তর বঙ্গলতলি ইউপিডিএ সমর্থিত গ্রাম বলে পরিচিত। মিশর চাকমা ছিলেন জেএসএস সংস্কারবাদীদের কট্টর সমালোচক। ঘটনার ৪-৫ দিন আগে তিনি দোকানে বসে তাদের কার্যকলাপ সম্পর্কে লোকজনের সামনে প্রকাশ্যে কড়া সমালোচনা করেছিলেন। অনেকের ধারণা এই কারণে তাকে হত্যা করা হতে পারে।

মিন্টু বাপ সংস্কারবাদীদের প্রতি তার সমালোচনা প্রসঙ্গে বলেন, মিশর চাকমা আসলে নির্ভিক প্রকৃতির লোক। তিনি কারো পরোয়া করতেন না।

‘পারে ভিলি এধক সিনিক্যানগোরি কয়নি!’ অর্থাৎ তাই বলে এত সেভাবে সমালোচনা করা ঠিক নয় বলে তিনি মন্তব্য করেন।

এদিকে মিশর চাকমাকে জেএসএস সংস্কারবাদী সদস্য উল্লেখ করে তাকে হত্যার জন্য pahar24.com তৎক্ষণাৎ ইউপিডিএফ ও চিক্যাধন চাকমাকে দায়ি করে একটি সংবাদ প্রকাশ করে।

এ তথ্য মিশর চাকমার পরিবারের সদস্যদের জানালে তারা বিষ্ময় প্রকাশ করেন এবং ইউপিডিএফের বিরুদ্ধে তাকে হত্যার অভিযোগ পুরোপুরি নাকচ করে দেন। চিক্যাধন চাকমাও একইভাবে অভিযোগ অস্বীকার করেন। নিরপেক্ষভাবে তথ্য যাচাই না করে কোন খবর না ছাপানোর জন্য তিনি pahar24.com কে পরামর্শ দেন।
——————-
সিএইচটিনিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.