রবিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৭
সংবাদ শিরোনাম

বিশেষ প্রতিবেদন

শহীদ ভরদ্বাজ মুণি’র আত্মবলিদানের ২৫ বছর

ডেস্ক রিপোর্ট॥ ‘১৩অক্টোবর’ পার্বত্য চট্টগ্রামে গণতান্ত্রিক লড়াই সংগ্রামে রক্তে-লেখা এক স্মরণীয় দিন! ২৫ বছর আগে এ দিনটিতে সেনা-সেটলারদের যৌথ আক্রমণে মাইনি ব্রিজের সন্নিকটে শহীদ হন ৭০ বছরের বৃদ্ধ ভরদ্বাজ মুণি চাকমা। গুরুতর জখম হয়েছিলেন ডজনের অধিক নারী-পুরুষ। যাদের অধিকাংশই ছিলেন বয়স্ক পুরুষ ও নারী, সশস্ত্র দুর্বৃত্তদের হামলার শিকার হন তারাই বেশী। দীঘিনালা তখন ছিল নরকতুল্য ফৌজী শাসনে পিষ্ট, স্থানীয় দালাল-প্রতিক্রিয়াশীল-সেনা …

বিস্তারিত.....

ঢাকা’র প্রতিনিধি দলকে নান্যাচর জোন থেকে ফিরিয়ে দিয়েছে সেনাবাহিনী

নান্যাচর: ঢাকা থেকে আগত ৫ সদস্য বিশিষ্ট প্রতিনিধি দলকে নান্যাচর থেকে ফিরিয়ে দিয়েছে নান্যাচর সদর সেনা জোন কতৃপক্ষ। আজ ২৫ এপ্রিল মঙ্গলবার সকাল আনুমানিক সাড়ে ১০টার দিকে নান্যাচর পৌঁছলে নান্যাচর জোনে প্রতিনিধি দলের সদস্যদেরকে গাড়ি থেকে নামিয়ে জোনের গোল ঘরে বসিয়ে রাখা হয়। এসময় নানান অজুহাত দেখিয়ে টিএন্ডটি এবং নান্যাচর কলেজ এলাকায় যাওয়া যাবে না বলে সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে প্রতিনিধি দলকে …

বিস্তারিত.....

খাগড়াছড়ির ছাতিপাড়া পাহাড়ের জুমচাষীদের পুনর্বাসন সম্পর্কে বিভ্রান্তি সৃষ্টিকারীদের ব্যাপারে সতর্ক থাকার আহ্বান

বিশেষ রিপোর্ট॥ খাগড়াছড়ির গুইমারা উপজেলায় ছাতিপাড়া পাহাড়ের জুমচাষীদের পুনর্বাসন প্রক্রিয়া নস্যাৎ করার জন্য একটি বিশেষ মহল গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। এ ব্যাপারে সকলকে সতর্ক থাকার জন্য ইউপিডিএফের পক্ষ থেকে আহ্বান জানানো হয়েছে। জানা যায়, ছাতিপাড়া মোন বা পাহাড় মাটিরাঙ্গার আলুটিলার দক্ষিণ ভাগ থেকে দক্ষিণ দিকে সিন্দুকছড়ি ইউনিয়নের পক্ষীমুড়ো পর্যন্ত বিস্তৃত। পূর্বে এর সীমানা হলো মহালছড়ির বদানালা ও পশ্চিমে গুইমারার দেওয়ান …

বিস্তারিত.....

কক্সবাজারে চীনা নাগরিককে চাকমা ভেবে হেনস্থা

বিশেষ প্রতিবেদন, কক্সবাজার : প্রেসিডেন্ট চি জিন পিং রাষ্ট্রীয় সফর শেষে বাংলাদেশ ছেড়ে যাবার দু’দিনও গত হয় নি। গেল ১৭ সেপ্টেম্বর সোমবার সকাল ১১টায় কক্সবাজারে চার চীনা নাগরিক পুলিশের হাতে চরমভাবে লাঞ্ছনার শিকার হয়েছেন। কর্তব্যরত পুলিশের এসআই কার থামিয়ে চালকের কাছ থেকে কাগজপত্র চেয়ে নেয়, তাতে কোন খুঁত না পেলে চীনা নাগরিকদের চাকমা মনে করে সিট বেল্ট না লাগানোর অজুহাতে প্রাইভেট …

বিস্তারিত.....

‘বিঝু’ পালন করবে না বগাছড়ির ক্ষতিগ্রস্ত পাহাড়ি পরিবারগুলো

বিশেষ প্রতিবেদন সিএইচটিনিউজ.কম রাঙামাটির নান্যাচর উপজেলার বগাছড়িতে গত বছর ১৬ ডিসেম্বর সেনা-সেটলার হামলায় ঘরবাড়ি পুড়ে গিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া পাহাড়ি পরিবারগুলো এখনো ঘরবাড়ি বিহীন ও কষ্টকর অবস্থায় মানবেতর দিনযাপন করতে বাধ্য হচ্ছেন। কালবৈশাখী ঝড়ে তাদের কষ্ট বেড়েছে আরো দ্বিগুন।  টাবু টাঙিয়ে ছোট ছোট যেসব খুপড়ি ঘরে তারা বসবাস করছেন সে সব ঘরের অনেক ছাউনিও উড়ে গেছে কাল বৈশাখী ঝড়ে। বর্তমানে তারা …

বিস্তারিত.....

খাগড়াছড়িতে সাম্প্রদায়িক হামলার ৫ বছর আজ

বিশেষ প্রতিবেদন, সিএইচটিনিউজ.কম খাগড়াছড়ি: আজ ২৩ ফেব্রুয়ারি খাগড়াছড়ি শহরে বাঙালি সেটলার কর্তৃক পাহাড়িদের উপর সাম্প্রদায়িক হামলার ৫ বছর পূর্ণ হল। ২০১০ সালের আজকের এই দিনে বাঙালি সেটলাররা স্থানীয় সামরিক বেসামরিক প্রশাসনের মদদে পরিকল্পিতভাবে খাগড়াছড়ি শহরের মহাজন পাড়া, কলেজ পাড়া, মধুপুর ও সাতভেইয়া পাড়ায় পাহাড়ি বসতি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে অগ্নিসংযোগ, ভাংচুর ও ব্যাপক লুটপাট চালায়। এতে পাহাড়িদের ৬০টির অধিক ঘরবাড়ি পুড়িয়ে দেওয়া …

বিস্তারিত.....

সাজেকে সেনা-সেটলার হামলার ৫ বছর: শাস্তি হয়নি দোষীদের, চলছে নানা ষড়যন্ত্র

বিশেষ প্রতিবেদন, সিএইচটিনিউজ.কম আজ ১৯ ফেব্রুয়ারী সাজেকে সেনা-সেটলার হামলার ৫ বছর। ২০১০ সালের ১৯ – ২০ ফেব্রুয়ারী সেনাবাহিনীর কতিপয় সদস্য ও বাঙালি সেটলাররা যৌথভাবে রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলার সাজেক ইউনিয়নে পাহাড়িদের উপর এই বর্বরোচিত হামলা চালায়। এতে বুদ্ধপুদি চাকমা ও লক্ষ্মী বিজয় চাকমা নিহত হন এবং ২টি বৌদ্ধ বিহার ও ৩টি গীর্জাসহ ১১টি গ্রামের পাহাড়িদের পাঁচ শতাধিক ঘরবাড়ি পুড়ে ছাই করে …

বিস্তারিত.....

পাঁচ বছরে পাহাড়িদের উপর ১০ সাম্প্রদায়িক হামলা

বিশেষ প্রতিবেদন, সিএইচটিনিউজ.কম বাংলাদেশের নিপীড়িত-নির্যাতিত একটি অঞ্চলের নাম পার্বত্য চট্টগ্রাম। এখানে আজো সেনাশাসন বলবৎ রাখা হয়েছে।  স্বাধীনতার পর থেকেই এই অঞ্চলে পাহাড়ি জনগণের উপর  সেনা-সেটলার কর্তৃক একের পর এক গণহত্যা ও সাম্প্রদায়িক হামলা সংঘটিত হয়ে আসছে। কাউখালী, লোগাং, মাল্যা, নান্যাচর গণহত্যা সহ এ পর্যন্ত ডজনের অধিক গণহত্যা সংঘটিত হয়েছে এই পার্বত্য চট্টগ্রামে। এছাড়া প্রতিনিয়ত সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনা ঘটেই চলেছে। এই উগ্রসাম্প্রদায়িক …

বিস্তারিত.....

আওয়ামী লীগ পার্বত্য চট্টগ্রামে কি করেছে?

বিশেষ প্রতিবেদন, সিএইচটিনিউজ.কম দীর্ঘ ৯ মাস রক্তক্ষয়ী সশস্ত্র সংগ্রামের পর বাংলাদেশ ১৯৭১ সালের ১৬ই ডিসেম্বর স্বাধীনতা অর্জন করে। স্বাধীনতার পর শেখ মুজিবর রহমানের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ দেশে সরকার গঠন করে। এই স্বাধীনতা যুদ্ধে ইচ্ছে ও আকাঙ্খা থাকা সত্ত্বেও পার্বত্য চট্টগ্রামের জনগণকে ব্যাপকভাবে অংশগ্রহণের সুযোগ দেয়া হয়নি। এর পেছনে ছিল আওয়ামী লীগ নেতৃত্বের সুগভীর ষড়যন্ত্র। যা আজ পর্যন্ত চলমান রয়েছে। স্বাধীনতার পর …

বিস্তারিত.....

২০১১ সালের ৫ম আদমশুমারী মোতাবেক তিন পার্বত্য জেলার জনসংখ্যার চিত্র

বিশেষ প্রতিবেদন , সিএইচটিনিউজ.কম পার্বত্য চট্টগ্রামের তিন জেলার মধ্যে বান্দরবান ইতিমধ্যে বাঙালি সংখ্যাগরিষ্ঠ জেলায় পরিণত হয়েছে। খাগড়াছড়ি ও রাঙামাটিও একই পথে রয়েছে। যদি এভাবে চলতে থাকে, তাহলে অচিরেই এই দুই জেলাও বাঙালি-সংখ্যাগরিষ্ঠ জেলায় পরিণত হবে। ইতিমধ্যে, খাগড়াছড়ির রামগড়, মানিকছড়ি ও মাটিরাংগা উপজেলা এবং রাঙামাটির লংগদু ও কাপ্তাই উপজেলা বাঙালি-সংখ্যাগরিষ্ঠ অঞ্চলে পরিণত হয়েছে। সমতল জেলা থেকে বহিরাগত অনুপ্রবেশ ও বাঙালিদের মধ্যে জন্মনিয়ন্ত্রণ …

বিস্তারিত.....