আলুটিলায় পর্যটনের নামে ৭০০ একর জমি অধিগহণ প্রক্রিয়া বন্ধের দাবিতে চবিতে পিসিপি’র মানববন্ধন

0
0

pic 1চট্টগ্রাম।। খাগড়াছড়ির আলুটিলায় বিশেষ পর্যটন জোন গঠনের নামে ৭০০ একর জমি অধিগ্রহণ প্রক্রিয়া বন্ধের দাবিতে ও উন্নয়নের নামে পাহাড়ি উচ্ছেদের ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে জিরো পয়েন্টে মানব বন্ধন ও সমাবেশ করেছে বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি) চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখা।

আজ মঙ্গলবার (৩০ আগস্ট) দুপুর ১২:৪৫টার সময় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের জিরো পয়েন্টে অনুষ্ঠিত মানববন্ধন ও সমাবেশে  সভাপতিত্ব করেন পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাধারণ সম্পাদক সুনয়ন চাকমা চাকমা ও সভা সঞ্চালনা করেন তথ্য প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক রূপন চাকমা। সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন, পাহড়ি ছাত্র পরিষদের চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার অর্থ সম্পাদক সুনিল চাকমা ও পিসিপি’র কেন্দ্রীয় সভাপতি সিমন চাকমা। এছাড়া সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন আলুটিলা ভূমি রক্ষা কমিটি’র সদস্য সচিব রসময় ত্রিপুরা, আলুটিলা এলাকার নারী প্রতিনিধি রিতা রোয়াজা এবং চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থী প্রসেনজিৎ ত্রিপুরা ।

আলুটিলা ভূমি রক্ষা কমিটির সদস্য সচিব রসময় ত্রিপুরা বলেন, যুগ যুগ ধরে ত্রিপুরা জাতিসত্তার লোকজন আলুটিলা এলাকায় বসবাস করে আসছি। একসময় আলুটিলা পর্যটনের কারণে একবার উচ্ছেদের শিকার হয়ে বর্তমান জায়গায় অবস্থান করছি। আবার নতুন করে পর্যটন সম্প্রসারণের নামে আমাদের উচ্ছেদ করার ষড়যন্ত্র চলছে। আমরা আর উচ্ছেদ হতে চাই না। আমি মানববন্ধন কর্মসূচী থেকে অবিলম্বে জমি অধিগ্রহণ প্রক্রিয়া বন্ধ করার জন্য দাবি জানাচ্ছি।

মানববন্ধনে পুলিশ বাধা দিচ্ছে
# মানববন্ধনে পুলিশ বাধা দিচ্ছে।

আলুটিলা এলাকাব নারী প্রতিনিধি রিতা রোয়াজা বলেন, রক্ত দিয়ে হলেও আমাদের জায়গা, বসত-ভিটা রক্ষা করতে হবে।

এদিকে, সমাবেশে চলাকালীন এস.আই আনোয়ার এর নেতৃত্বে একদল পুলিশ অনুমতি নেওয়ার কথা বলে সমাবশে বাধা প্রদান করে। যার কারণে সমাবেশ দ্রুত শেষ করতে হয়। সমাবেশের শেষ দিকে এস আই আনোয়ার আলুটিলা এলাকা থেকে সমাবেশে আসা এক অংশগ্রহণকারীর কাছ থেকে মোবাইল কেড়ে নেয়। পরে আলোচনা এবং প্রক্টরের নির্দেশে মোবাইল ফেরত দেয়।

সমাবেশে অন্যান্য বক্তারা বলেন, শাসকশ্রেণী পাহাড়িদের ধ্বংসের জন্য প্রতিনিয়ত ষড়যন্ত্র করে চলেছে। পাহাড়িদের প্রথাগত ভূমি অধিকারের স্বীকৃতি না দিয়ে উন্নয়নের নাম করে পর্যটন কেন্দ্র, মেডিকেল কলেজ ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয় স্থাপন করে তাদের বসত-ভিটা কেড়ে নিচ্ছে।

বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, সরকার রামপাল বিদ্যৎ প্রকল্প বাস্তবায়নের নামে প্রাকৃতিক পরিবেশ ধ্বংস করছে, অন্যদিকে তথাকথিত উন্নয়নের কথা বলে পার্বত্য চট্টগ্রামসহ দেশের সাধারণ জনগণের কাছ থেকে জায়গা-জমি, বসতভিটা কেড়ে নিচ্ছে।

মানববন্ধন ও সমাবেশ থেকে নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে আলুটিলায় বিশেষ পর্যটন জোন গঠনের নামে প্রায় ৭০০ একর জমি অধিগ্রহণ প্রক্রিয়া বন্ধ করে পাহাড়িদের প্রথাগত ভূমি অধিকার নিশ্চিতের দাবি জানান।
—————-

সিএইচটি নিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.