উখিয়ায় ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় সাম্প্রদায়িক হামলার শিকার চাকমা ছেলে-মেয়েরা

0
680
হামলায় আহতরা। ছবি সংগৃহিত

উখিয়া (কক্সবাজার) ।। কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার জামতলী নামক এলাকায় মেয়েদের ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় মুসলিমদের হামলার শিকার হয়েছেন এনজিও অফিসে সিভি জমা দিতে যাওয়া স্থানীয় চাকমা ছেলে-মেয়েরা। এতে অন্তত ১০/১২ জন আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

জানা যায়, গতকাল শুক্রবার (৬ নভেম্বর ২০২০) সকাল ১১টার দিকে ‘উত্তরণ’ নামে একটি এনজিওতে সিভি জমা দিতে যান স্থানীয় ১১ জন চাকমা ছেলে-মেয়ে। এনজিও অফিসটি ৫নং পালংখালী ইউনিয়নের জামতলী নামক স্থানে অবস্থিত।

একই সময় স্থানীয় একদল মুসলিম ছেলেও ওই এনজিওতে সিভি জমা দিতে যায়।

সিভি জমা দেওয়ার পর দুপুর আনুমানিক আড়াইটার দিকে অফিস থেকে একসাথে বের হওয়ার সময় মুসলিম ছেলেরা চাকমা মেয়েদের সাথে আশালীন ব্যবহার করে। এতে টমটমে উঠে বসা এক চাকমা মেয়ে এর প্রতিবাদ করলে মুসলিম ছেলেরা তার জামা ধরে টেনে গাড়ি থেকে নামায়। মেয়েটার জামা সামনে থেকে ছিঁড়ে যায়।

এ সময় সেখানে উপস্থিত চাকমা ছেলেরা এর প্রতিবাদ করে। এতে উভয় পক্ষের মধ্যে বাগবিতণ্ডার সৃষ্টি হলে আশেপাশের আরো ২০-৩০ জন লোক মুসলিম ছেলেদের পক্ষ নিয়ে চাকমা ছেলেদের উপর হামলা চালায় ও বেধড়ক মারধর করে।

এতে জুমন চাকমা (২২), ছৈয়বু চাকমা (২২), দুলাল চাকমা (১৮), প্রাণ চাকমা (১৮), উলান চাকমা (মহিলা) (১৬), মাছু চাকমা (১৬), সন্তো চাকমা (২০), অজয় চাকমা (১৮), উপম (১৮) ও রূপম চাকমাসহ অন্তত ১০ জন আহত হন। তাদের উখিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

এ বিষয়ে উত্তরণ এনজিওর ফিল্ড কোর্ডিনেটর অনাদি মল্লিক জানান, ‘মারামারি’ নিষ্পত্তি করতে গিয়ে তিনিসহ তার একজন কর্মকর্তা আশিকুর রহমান আহত হয়েছেন।

ঘটনার সময় আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার কোন লোকজনকে দেখা যায়নি বলে স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন।

 


সিএইচটি নিউজে প্রকাশিত/প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ,ভিডিও, কনটেন্ট ব্যবহার করতে হলে কপিরাইট আইন অনুসরণ করে ব্যবহার করুন।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.