কল্পনা চাকমা অপহরণের ১৮ বছর: রাঙামাটিতে হিল উইমেন্স ফেডারেশনের বিক্ষোভ

75
1

সিএইচটিনিউজ.কম
Kalpanaprogram,12June2014, kudukchari1রাঙামাটি: হিল উইমেন্স ফেডারেশন এর কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক কল্পনা চাকমা অপহরেণের তদন্ত নিয়ে টালবাহানা, পুলিশ সুপার আমেনা বেগম এর বক্তব্য প্রত্যাখান করে আজ ১২ জুন বৃহস্পতিবার রাঙামাটির কুদুকছড়ি বাজার এলাকায় বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে হিল উইমেন্স ফেডারেশন।

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টায় বড় মহাপুরম উচ্চ বিদ্যালয় গেইট এলাকা থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয়ে কুদুকছড়ি বাজার ঘুরে এসে যাত্রী ছাউনীর সামনে সমাবেশ করে। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন হিল উইমেন্স ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি নিরূপা চাকমা, পার্বত্য চট্টগ্রাম নারী সংঘের কেন্দ্রীয় সদস্য কজলী ত্রিপুরা ও পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় অর্থ সম্পাদক বাবলু চাকমা। পরিচালনা করেন কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক রিনা চাকমা।

সমাবেশ থেকে বক্তারা কল্পনা চাকমা অপহরণের সঠিক তদন্ত রিপোর্ট জনসমক্ষে প্রকাশ এবং চিহ্নি অপহরণকারী লে. ফেরদৌস ও তার দোসরদের অবিলম্বে গ্রেফতার এর দাবি জানিয়েছেন।

বক্তারা বলেন, কল্পনা অপহরণের আজ ১৮ বছর পূর্ণ হলো। এত বছরেও সরকার দোষীদের গ্রেফতার করা তো দূরে থাক তাদেরকে রক্ষা করার জন্য বিভিন্নভাবে টালবাহানা করে চলেছে। আন্দোলনের চাপে তদন্ত কমিটি গঠন করা হলেও তদন্ত রিপোর্ট এখনো জনসমক্ষে প্রকাশ করা হয়নি।

কাজলী ত্রিপুরা তার বক্তব্যে বলেন, সরকার কল্পনা চাকমার অপহরণকারীদের মতো দুষ্কৃতিকারীদের রক্ষা করার কারণে পার্বত্য চট্টগ্রামসহ সারা দেশে নারী উপর নির্যাতন, ধর্ষণ, ধষর্ণের পর হত্যার ঘটনা দিন দিন বেড়ে চলেছে। তিনি দীঘিনালায় বিজিবি সদস্যরা নিরস্ত্র পাহাড়ি জনগণের উপর হামলার ঘটনায় নিন্দা জানান এবং দোষী বিজিবি কমান্ডার ও যারা সম্প্রদায়িক উষ্কানি দিয়েছে তাদের অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবি করেন।Kalpanaprogram,12June2014, kudukchari3

বাবলু চাকমা বলেন, সরকার আজ পাহাড়ি জনগণের সাথে খেলা খেলছে। রাষ্ট্রীয় খুনি সংস্থা র‌্যাবকে বাতিলের জন্য যখন দেশে বিদেশে মানবাধিকার সংগনগুলো সকলে তৎপর হয়ে উঠেছে তখনি সরকার পার্বত্য চট্টগ্রামে র‌্যাব মোতায়নের ঘোষণা দিয়েছে। সরকার পার্বত্য চট্টগ্রামের সমস্যাকে পাশ কাটিয়ে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং মেডিকেল কলেজ স্থাপন করতে চাচ্ছে। তিনি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং মেডিকেল কলেজের নামে পাহাড়িদের ভূমি থেকে উচ্ছেদের ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন। তিনি কল্পনা চাকমার অপহরণকারীদের বিচারের দাবি জানান।

হিল উইমেন্স ফেডারেশনের সভাপতি নিরূপা চাকমা বলেন, সরকার নারায়গঞ্জের চাঞ্চল্যকর ৭ খুনের ঘটনায় জড়িত তিন র‌্যাব কর্মকতাকে গ্রেফতার করে বিচারে আওয়তায় নিয়ে এসেছে, কিন্তু পার্বত্য চট্টগ্রামের ১৯৯৬ সালে কল্পনা অপহরণের চাঞ্চল্য সৃষ্টিকারী ঘটনার বিচারতো দুরের কথা এখানো চিহ্নিত কাউকে গ্রেফতার পর্যন্ত করেনি। উপরন্তু সরকার চিহ্নিত দোষীদের রক্ষা করার জন্য বিভিন্ন ষড়যন্ত্র করে চলেছে।

তিনি পুলিশ সুপার আমনো বেগমের সংবাদ মাধ্যমে দেওয়া বক্তব্যকে প্রত্যাখ্যান করে বলেন, আমেনা বেগমের বক্তব্যের মাধ্যমে বুঝা যাচ্ছে সরকারের দূরভিসন্ধি আবারো পরিষ্কার হয়ে উঠেছে। তিনি টালবাহানা বন্ধ করে অবিলম্বে চিহ্নিত অপহরণকারী লে. ফেরদৌসও তার দোসরেদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় নিয়ে এসে দৃষ্টান্তমূলক বিচারের দাবি জানান।

উল্লেখ্য, ১৯৯৬ সালের ১২ জুন বাঘাইছড়ির নিউ লাইল্যাঘোনা গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে কজইছড়ি ক্যাম্প কমান্ডার লে. ফেরদৌস ও তার দোসরদের কর্তৃক অপহৃত হন। অপহরণের ১৮ বছরেও আজো তার কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি।
————-

সিএইচটিনিউজ.কম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.