কল্পনা চাকমা অপহরণের ২৫ বছরপূর্তি উপলক্ষে নান্যাচরে আলোচনা সভা

0
176

নান্যাচর প্রতিনিধি ।। কল্পনা চাকমার অপহরণের ২৫ বছরপূর্তি উপলক্ষে রাঙামাটির নান্যাচরে আলোচনা সভা করেছে হিল উইমেন্স ফেডারেশন (এইচডব্লিউএফ) নান্যাচর উপজেলা শাখা।

আজ বৃহস্পতিবার (১০ জুন ২০২১) এই আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

হিল উইমেন্স ফেডারেশন নান্যাচর উপজেলা শাখার আহ্বায়ক নিকা চাকমার সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব বিপুলী চাকমার সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ)-এর সংগঠক গিরি চাকমা, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের রাঙামাটি জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক তনুময় চাকমা, হিল উইমেন্স ফেডারেশনের রাঙামাটি জেলা শাখার সদস্য রিমি চাকমা, গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের নান্যাচর উপজেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক প্রিয়তন চাকমা ও পিসিপি’র নান্যাচর উপজেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক শুভ চাকমা।

আলোচনা সভা শুরুতে এ যাবৎ অস্তিত্ব রক্ষার সংগ্রাম করতে গিয়ে যারা শহীদ হয়েছেন তাঁদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

এরপর স্বাগত বক্তব্য রাখেন হিল উইমেন্স ফেডারেশনের রাঙামাটি সদর উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক নিশি চাকমা।

সভায় ইউপিডিএফ সংগঠক গিরি চাকমা বলেন, ১৯৯৬ সালের ১২ জুন পরিকল্পিতভাবে কল্পনা চাকমাকে অপহরণ করা হয়। দীর্ঘ ২৫ বছরেও এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার ও চিহ্নিত অপহরণকারী লে. ফেরদৗস গংদের গ্রেফতার করা হয়নি। শুধু তদন্তের নামে কালক্ষেপণ করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামের জনগণের ন্যায্য আন্দোলন স্তব্ধ করে দেওয়ার জন্য শাসকগোষ্ঠী নারীর উপর নিপীড়ন-ধর্ষণ, বিনা বিচারে হত্যা, মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানিসহ নীলনক্সা বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে।

তিনি পার্বত্য চট্টগ্রামের একমাত্র রাজনৈতিক সমাধান পূর্ণস্বায়ত্তশাসন আন্দোলনকে বেগবান করার জন্য সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে ইউপিডিএফের পতাকাতলে সামিল হওয়ার আহবান জানান।

এইচডব্লিউএফ’র রাঙামাটি জেলা শাখার সদস্য রিমি চাকমা বলেন, কল্পনা চাকমা অপরণকারীদের গ্রেফতার ও বিচার না হওয়ায় পার্বত্য চট্টগ্রামে নারী নির্যাতন দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। তিনি খাগড়াছড়ির বলপিয়ে আদামে বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী নারীকে সেটলার বাঙালি কর্তৃক গণধর্ষণ ও রাঙামাটির বিলাইছড়িতে রাষ্ট্রীয় বাহিনীর সদস্য দ্বারা দুই মারমা বোনেকে ধর্ষণ-নির্যাতনের ঘটনা তুলে ধরেন।

তিনি আরও বলেন, পারিবারিক ও নানা বাধা অতিক্রম করে নারীদের জাতির অস্তিত্ব রক্ষার সংগ্রামে সামিল হতে হবে। তিনি কল্পনা চাকমা চিহ্নিত অপহরণকারী লে. ফেরদৌস গংদের গ্রেফতারপূর্বক উপযুক্ত শাস্তির দাবি জানান।

পিসিপি নেতা তনুময় চাকমা বলেন, ২৫ বছরেও কল্পনা চাকমার অপহরণের বিচার না হওয়ায় প্রমাণ হয়েছে এই ঘটনায় রাষ্ট্রীয় পৃষ্টপোষকতা রয়েছে। যদি তাই না হতো তাহলে নিশ্চয় এর সুষ্ঠু বিচার এবং চিহ্নিত অপহরণকারী লে. ফেরদেৌস গংদের দৃষ্টান্তমূলক সাজা হতো।

 তিনি নারীদের আন্দোলনে অংশগ্রহণের আহ্বান জানিয়ে বলেন, আদিম সাম্যবাদী সমাজ থেকে বর্তমান সভ্য সমাজেও নারীদের ভুমিকা কোন অংশে কম নয়। যুগে যুগে নারীরাও অস্তিত্ব রক্ষার সংগ্রামে পুরুষদের পাশাপাশি সংগ্রামে সামিল হয়েছেন। জুম্ম জনগণের অস্তিত্ব রক্ষার সংগ্রামেও পাহাড়ি নারীদের সামিল হতে হবে।

যুব ফোরাম নেতা প্রিয়তন চাকমা বলেন, বাংলাদেশ সরকারের প্রবল দমন পীড়নের মধ্যেও পার্বত্য চট্টগ্রামে পাহাড়ি নারী সমাজ, ছাত্র সমাজ ও যুব সমাজ লড়াই-সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছে। আগামীতেও ঐক্যবদ্ধভাবে জাতির অস্তিত্ব রক্ষার সংগ্রাম জোরদার করতে হবে।

পিসিপি নেতা শুভ চাকমা বলেন, শাসকগোষ্ঠী শুধু কল্পনা চাকমাকে অপহরণ করেই থেমে থাকেনি, আরও শতশত জুম্ম মা-বোনদের ইজ্জত-সম্ভ্রম কেড়ে নিয়েছে। জুম্ম জনগণের উপর অন্যায়ভাবে নিপীড়ন-নির্যাতন চালিয়ে যাচ্ছে।

তিনি কল্পনা চাকমা অপহরণের সুষ্ঠু বিচার ও চিহ্নিত অপহরণকারীদের গ্রেফতারের দাবিতে ছাত্র, যুব ও নারী সমাজকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে আন্দোলন জোরদার করার আহ্বান জানান।

বক্তারা তদন্তের নামে আর কালক্ষেপণ না করে অনতিবিলম্বে কল্পনা চাকমার চিহ্নিত অপহরণকারী লে. ফেরদেৌস গংদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক বিচারের জোর দাবি জানান।


সিএইচটি নিউজে প্রকাশিত প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ,ভিডিও, কনটেন্ট ব্যবহার করতে হলে কপিরাইট আইন অনুসরণ করে ব্যবহার করুন।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.