কাউখালীতে নানা আয়োজনে পালিত হলো ইউপিডিএফ’র ২২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী

0
15

কাউখালী প্রতিনিধি ।। সেনাবাহিনীর ব্যাপক তৎপরতা সত্ত্বেও আজ ২৬ ডিসেম্বর ২০২০ নানা আয়োজনে রাঙামাটির কাউখালীতে পালিত হয়েছে ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট(ইউপিডিএফ)-এর ২২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী।

আয়োজনের মধ্যে ছিল বীর শহীদদের উদ্দেশ্যে নির্মিত অস্থায়ী শহীদ বেদীত পুষ্পস্তবক অর্পণ, এলাকার সমর্থক, শুভাকাঙ্খী ও বিশিষ্ট মুরুব্বীদের নিয়ে প্রীতিভোজ, দুঃস্থ শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ এবং স্থানীয় গ্রামবাসীদের সাথে নিয়ে পথচারীদের জন্য ছড়ায় (নদীতে) বাঁশের সাঁকো নির্মাণ।

এদিকে দিবসটিকে সামনে রেখে কাউখালীতে ব্যাপক এলাকায় সেনা তৎপরতা লক্ষ করা গেছে। ফটিকছড়ি ইউনিয়ের রক্তছড়ি, ডাবুয়া, ধূপছড়ি, চৌধুরী পাড়া এবং ঘাগড়া ইউনিয়নের চেলাছড়া, লেভাপাড়া, কজইছড়ি, হারাঙ্গী, তালুকদারপাড়া, উল্টাপাড়া, রাঙ্গীপাড়া, পানছড়ি, ডেবাছড়ি, হাজাছড়ি ও মুবাছড়ি প্রভৃতি এলাকা সকাল থেকে টহল দিয়ে রাখা হয়েছে।

সেনাবাহিনীর এসব অপতৎপরতা সত্ত্বেও সকাল ৯টায় দলীয় সংগীতের মাধ্যমে দলীয় পতাকা উত্তোলন করেন পাটির কাউখালী ইউনিটের সিনিয়র সংগঠক অমিয় চাকমা। এরপর সহযোদ্ধারা দলীয় পতাকায় স্যালুট প্রদান, লড়াই সংগ্রাম চালিয়ে নেওয়ার জন্য প্রতিজ্ঞা গ্রহণ  এবং পার্বত্য চট্টগ্রামে অধিকার আদায়ে যারা জীবন উৎসর্গ করেছেন সেই সকল বীর শহীদদের উদ্দেশ্যে নির্মিত অস্থায়ী স্মৃতি স্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন ।

পরে অনুুষ্ঠিত সংক্ষিপ্ত সভায় বক্তব্য রাখেন ইউপিডিএফ সংগঠক অমিয় চাকমা, হিল উইমেন্স ফেডারেশন নেত্রী ইশা চাকমা, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ কাউখালী শাখার সভাপতি থুইনু মং মার্মা, গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের রাঙ্গামাটি জেলার আহ্বায়ক ধর্মশিং চাকমা এবং বিশিষ্ট মুরুব্বী শান্তিময় চাকমা। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন কাউখালী ইউনিট সংগঠক বাবলু চাকমা।

অমিয় চাকমা তার বক্তব্যে বলেন, শুধু এলাকায় এলাকায় সেনা টহল ও আতংক ছড়িয়ে দিয়ে নয়, ঘরে ঘরে আর্মি পাঠালেও আমাদের আন্দোলন ধ্বংস করা যাবে না। পার্টি ও জনগণের উপর যতোই নিষ্ঠুরতা চালাবেন ততোই আন্দোলন বেড়ে চলবে। আমাদেরকে দাবিয়ে রাখা যাবে না। তার প্রমাণ শত রক্ত চুক্ষু উপেক্ষা করে আজকের এই  অনুষ্ঠানে আমরা সমবেত হয়েছি, অনুষ্ঠান সফল হয়েছে।  তিনি অবিলম্বে পার্বত্য চট্টগ্রামে গণতান্ত্রিক অধিকার ফিরিয়ে দেওয়ার দাবী জানান।

পার্টির প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীকে সামনে রেখে পার্টি ও দানশীল ব্যক্তিদের অর্থায়নে দুঃস্থ শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ করা হয়। পিসিপির কাউখালী শাখার সদস্য কলেনা চাকমার উপস্থাপনায় এ কম্বল বিতরণ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন কাউখালি ইউনিট সংগঠক বিদ্যাময় চাকমা, পিসিপির নেত্রী রুনিকা চাকমা,  বিশিষ্ট মুরুব্বী প্রদীপ চাকমা ও প্রীতি চাকমা।

প্রদীপ চাকমা বলেন, প্রতিবছর পার্টি যে গরীব জনগণের মাঝে কম্বল বিতরণ করে থাকে তা একটি মহতী উদ্যোগ।  যে পার্টি নীতি আদর্শ সমুন্নত রেখে জনগণকে সাথে নিয়ে কাজ করে সে পার্টিকে কখনোই জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন রাখা যাবে না। আমরা তাদের চিরকাল সাহায্য ও সহযোগিতা দিয়ে যাচ্ছি এবং ভবিষ্যতেও দিয়ে যাবো।

এদিকে কাউখালীর বেশ কয়েকটি জায়গায় স্থানীয় জনগণকে সাথে নিয়ে পার্টি ও অঙ্গ সংগঠনের সহযোদ্ধারা বাঁশের সাঁকো নির্মাণ ও মেরামতের কাজ সম্পন্ন করেছেন।

সেনাদের পোষ্টার ও দেওয়াল লিখন আতংক
প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীকে সামনে রেখে পার্টির বিভিন্ন দাবি সম্বলিত হাতে লেখা ও ছাপানো পোষ্টার সেনাবাহিনী কর্তৃক ছিঁড়ে ফেলার এবং দেওয়াল চিকা মুছে ফেলার খবর পাওয়া গেছে। ফটিকছড়ি ইউনিয়নের ডাবুয়া বাজারের দোকানদারদের জড়ো করে বাজারে ছাঁটানো প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর পোষ্টার তাদেরকে জোরপূর্বক ছিঁড়ে ফেলতে বাধ্য করা হয়েছে। তারা তা করতে রাজী না হলে নানা হুমকি ও গালিগালাজ করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

অন্যদিকে কলমপতি ইউনিয়নের বটতলী রাস্তার দেওয়ালে লেখা দেওয়াল লিখনগুলো (চিকা) সেনাদের পানি দিয়ে মুছে ফেলার ব্যর্থ চেষ্টা করতে দেখা গেছে। তাদের বোকামি দেখে লোকজনের মাঝে হাসির রোল পড়ে যায়। এসময় সেনারা ১। নিপন চাকমা, পিতাঃ দিবাকর চাকমা, ২। সুশীল মার্মা, পিতা- চিংসামং মার্মা ও ৩। সমীর চাকমা, পিতাঃ উদয়ন চাকমা নামে তিন স্থানীয় যুবককে চিকার সামনে দাঁড় করিয়ে ছবি তুলে নিয়ে যায় বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

 


সিএইচটি নিউজে প্রকাশিত/প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ,ভিডিও, কনটেন্ট ব্যবহার করতে হলে কপিরাইট আইন অনুসরণ করে ব্যবহার করুন।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.