কাউখালীতে পুলিশের বাধার মুখে পিসিপি’র বিক্ষোভ

0
1

সিএইচটি নিউজ ডটকম
Kawkhali1কাউখালী(রাঙামাটি): রাঙামাটির কাউখালীতে পুলিশের বাধার মুখে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি)।

রাঙামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং মেডিকেল কলেজ কার্যক্রম স্থগিত করা, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অগণতান্ত্রিক ১১ নির্দেশনা বাতিল এবং স্ব স্ব জাতিসত্তার নিজ নিজ মাতৃভাষার মাধ্যমে প্রাথমিক শিক্ষার অধিকারসহ শিক্ষা সংক্রান্ত ৫ দফা  বাস্তবায়নের দাবিতে এই বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

রবিবার (৬সেপ্টেম্বর) সকাল ১১টায় কাউখালী উপজেলা সদরের কচুখালী খেলোয়াড় সমিতির মাঠ থেকে শুরু হওয়া মিছিলটি উপজেলা সদরে ঢোকার চেষ্টা করলে কাউখালী থানার সামনে পুলিশ তাদের আটকে দেয়। এসময় পুলিশের সাথে পিসিপি নেতা-কর্মীদের বাকবিতন্ডা ও ধস্তাধস্তির ঘটনা ঘটে। পরে সেখানেই সমাবেশ করে তারা।

পিসিপি’র কাউখালী থানা সভাপতি কংচাই মারমার সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, পিসিপির রাঙামাটি জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক অনিল চাকমা,গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের কেন্দ্রীয় সদস্য রুপম মারমা ও হিল উইমেন ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক রিনা চাকমা প্রমুখ।

Kawkhali2সমাবেশে বক্তারা বলেন, সরকার উন্নয়নের নামের পাহাড়ি উচ্ছেদের ষড়যন্ত্র করছে। তারই অংশ হিসেবে রাঙামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং মেডিকেল কলেজ স্থাপন করতে চাচ্ছে। যেখানে এসব প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা হবে সেখান থেকে অনেক পাহাড়ি জায়গা-জমি হারাবে এবং বসতভিটা থেকে উচ্ছেদ হবে বলে বক্তারা আশঙ্কা প্রকাশ করেন।  তারা বলেন, শিক্ষার মান বৃদ্ধির জন্য সর্বপ্রথম প্রয়োজন প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক প্রতিষ্ঠানগুলোর মান উন্নয়ন। কিন্তু সরকার সেদিকে নজর না দিয়ে পাহাড়িদের উচ্চ শিক্ষা দিতে চাচ্ছে। যা কোনভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।

বক্তারা আরো বলেন, ক্ষমতাসীন সরকার ২০১৪ সাল থেকে ৬টি সংখ্যালঘু জাতির মাতৃভাষায় প্রাথমিক শিক্ষা চালুর ঘোষণা দিলেও আজ পর্যন্ত তা বাস্তবায়ন করেনি। তারা অবিলম্বে পার্বত্য চট্টগ্রামসহ দেশে বসবাসরত সকল সংখ্যালঘু জাতিসমূহের নিজ নিজ মাতৃভাষার মাধ্যমে প্রাথমিক শিক্ষা কার্যক্রম চালুসহ পিসিপি’র উত্থাপিত শিক্ষা সংক্রান্ত ৫ দফা বাস্তবায়নের দাবি জানান।

বক্তারা বলেন, সরকার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে অগণতান্ত্রিক ১১ নির্দেশনা জারির পর থেকে পার্বত্য চট্টগ্রামে নিপীড়ন-নির্যাতন, সভা-সমাবেশে বাধা দান ও ভূমি বেদখলের ঘটনা বৃদ্ধি পেয়েছে। এসব নির্দেশনার মাধ্যমে পার্বত্য চট্টগ্রামে কার্যত সেনাশাসন চলছে বলে বক্তারা অভিযোগ করেন।

সমাবেশ থেকে বক্তারা অবিলম্বে রাঙামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং মেডিকেল কলেজ কার্যক্রম স্থগিত করা, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অগণতান্ত্রিক ১১ নির্দেশনা বাতিল, ভূমি বেদখল, নিপীড়ন-নির্যাতন ও অন্যায় ধরপাকড় বন্ধ করা এবং পূর্ণ গণতান্ত্রিক পরিবেশ ফিরেয়ে দেয়ার দাবি জানান।
—————

সিএইচটিনিউজ.কম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.