কাউখালীতে সেনাবাহিনী কর্তৃক ডিওয়াইএফ নেতা রূপন মারমাকে গ্রেফতার, মুক্তির দাবি

0
276

কাউখালী (রাঙামাটি) ।। রাঙামাটির কাউখালী উপজেলার বেতবুনিয়া এলাকা থেকে সেনাবাহিনী কর্তৃক গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম (ডিওয়াইএফ)-এর কেন্দ্রীয় তথ্য ও প্রচার সম্পাদক রূপন মারমাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

জানা যায়, গতকাল শুক্রবার (১৮ ডিসেম্বর ২০২০) সন্ধ্যার দিকে রাঙামাটির কাউখালী উপজেলার বেতবুনিয়া এলাকায় ইউপিডিএফের আসন্ন ২২তম প্রতিষ্ঠা বাষিকী উপলক্ষে দেওয়ালে চিকা মারতে গিয়ে সেনাবাহিনী রূপন মারমাকে গ্রেফতার করে।

এরপর সেনাবাহিনীর সদস্যরা রূপন মার্মাকে নিয়ে বেতবুনিয়ার চৌধুরী পাড়ায় দিবাগত রাত ২টায় কংলাউ মারমা, পিতা- ক্যাজাইরুই মার্মা নামে এক ইউপিডিএফ সদস্যের বাড়িতে তল্লাশি চালিয়েছে। সেনারা কংলাউ মার্মার সহধর্মীনি পাইসিথুই মার্মা ও তার ভাগিনীর ছবি তুলে এবং যাবার সময় তাদের ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটি ছিনিয়ে নেয়।

গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম (ডিওয়াইএফ)-এর কেন্দ্রীয় সভাপতি অংগ্য মারমা আজ শনিবার (১৯ ডিসেম্বর ২০২০) সংবাদ মাধ্যমে প্রদত্ত এক বিবৃতিতে সংগঠনের কেন্দ্রীয় তথ্য ও প্রচার সম্পাদক রূপন মারমাকে গ্রেফতারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন এবং অবিলম্বে তাকে নিঃশর্ত মুক্তি দেয়ার দাবি করেছেন।

বিবৃতিতে অংগ্য মারমা বলেন, যে কোন দলের সভা-সমাবেশ, ব্যানার-ফেষ্টুন টাঙানো, দেওয়াল লিখন একটি গণতান্ত্রিক অধিকার। কিন্তু পার্বত্য চট্টগ্রামে এ অধিকারকে ভুলুণ্ঠিত করে অন্যায়ভাবে গ্রেফতার-নির্যাতন করা হচ্ছে।

বিবৃতিতে তিনি উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, গ্রেফতারের পর রূপন মারমাকে কোথায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে তা এখনো জানা যায়নি। ফলে তার জীবন নিয়ে শঙ্কা দেখা দিয়েছে।

তিনি অবিলম্বে রূপন মারমার নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানিয়েছেন।

 


সিএইচটি নিউজে প্রকাশিত/প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ,ভিডিও, কনটেন্ট ব্যবহার করতে হলে কপিরাইট আইন অনুসরণ করে ব্যবহার করুন।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.