কুলাউড়ায় খাসিয়াদের উপর সাম্প্রদায়িক হামলা, আহত ৫

0
50
ছবি: জনজাতির কণ্ঠের সৌজন্যে

অনলাইন ডেস্ক ।।  মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়ার ইছাছড়াপুঞ্জির এক খাসিয়ার বেদখল হওয়া পানজুম উদ্ধারে প্রশাসনের অভিযানে ক্ষিপ্ত হয়ে উল্টো খাসিয়াদের উপর সাম্প্রদায়িক হামলা চালিয়েছে রফিক মিয়া গংরা। খবর জনজাতির কণ্ঠের।

গতকাল সোমবার (৯ নভেম্বর ২০২০) সন্ধ্যা ৭টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

হামলাকারীরা ইছাছড়া ক্যাথলিক চার্চে ব্যাপক ভাংচুর চালায় এবং এ ঘটনায় অন্তত ৫ জন গুরুতরভাবে আহত হয়েছেন বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে।

এর আগে ইছাছড়াপুঞ্জির জেসপার আমলেংরংয়ের প্রায় ৫ একর আয়তনের পানজুম দখল করেছিলেন পার্শ্ববর্তী এলাকার রফিক মিয়া নামের এক ব্যক্তি। পরে ভুক্তভোগী এ বিষয়ে প্রশাসন ও পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ করলে গতকাল ইউএনও এটি এম ফরহাদ চৌধুরীর নেতৃত্বে একটি দল অভিযানে যায়। এসময় মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার মো. তানভীর হোসেনসহ র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব-৯) শ্রীমঙ্গল ক্যাম্প ও কুলাউড়া থানার পুলিশের একটি দল ছিল। অভিযানকালে জুমে অবৈধভাবে নির্মিত দুটি কাঁচা ও টিনশেডের একটি আধা পাকা ঘর গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়। রফিক মিয়ার পক্ষের কাউকে সেখানে পাওয়া যায়নি। জুমে নির্মিত অবৈধ ঘরে হোসনে আরা ও লতিফা বেগম নামের দুই নারীকে পাওয়া যায়। তাদের আটক করা হয়।

প্রশাসনের পানজুম উদ্ধার অভিযানে ক্ষিপ্ত হয়ে রফিক মিয়া প্রায় দুই শতাধিক সন্ত্রাসী নিয়ে খাসিয়াদের উপর বেপরোয়া হামলা চালায়। হামলাকারীরা পুঞ্জির খাসিয়াদের ৩টি ঘর, চার্চে ভাংচুর এবং বিদুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়। এসময় তাঁরা খাসিয়াদের লক্ষ্য করে পাথর নিক্ষেপ এবং মারধর করে। এতে ৫ জন গুরুতর আহত হয়েছেন।

ইছাছড়াপুঞ্জির খাসিয়া সম্প্রদায়ের যুবক রিনেশ রিমবুই মুঠোফোনে জনজাতির কন্ঠকে জানান, দুপুরে প্রশাসনের লোকজন অভিযান চালিয়ে বেদখল হওয়া পানজুম উদ্ধার করে দিয়ে যান। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে রফিক বাহিনী আমাদের উপর হামলা চালায়। পানজুম থেকে আদিবাসীরা বের হলেই গলা কাটা হবে বলেও দুর্বৃত্তরা হুমকি দিয়ে যান।

ভুক্তভোগী জেসপার বলেন, অতীতে তাঁদের এলাকায় এ রকম জমি দখলের ঘটনা ঘটেনি। এ ঘটনায় পুঞ্জির লোকজনের মধ্যে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। দখলের পর থেকে রফিক মিয়া একাধিকবার খেতের পান বিক্রি করেন। এতে তাঁর প্রায় ১০ লাখ টাকার ক্ষতি হয়ে গেছে।

ইউএনও এটি এম ফরহাদ চৌধুরী বলেন, দুষ্কৃতকারীরা অবৈধভাবে খাসিয়াদের পানের জুম দখল করেছিল। ওই জমি উদ্ধার করে দেওয়া হয়েছে। দখলকারী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে মামলা হবে। এছাড়া ভবিষ্যতে পানের জুমে প্রবেশ না করার বিষয়ে লিখিত মুচলেকা প্রদান করায় আটক দুই নারীকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

সন্ধ্যার ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন ইউএনও।

এ বিষয়ে রফিক মিয়ার বক্তব্য জানতে যোগাযোগ করা হলে তাঁর মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া গেছে।

 


সিএইচটি নিউজে প্রকাশিত/প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ,ভিডিও, কনটেন্ট ব্যবহার করতে হলে কপিরাইট আইন অনুসরণ করে ব্যবহার করুন।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.