খাগড়াছড়িতে এইচএসসি পরীক্ষার্থী তুষার চাকমাকে হত্যার প্রতিবাদে ঢাকায় পিসিপির বিক্ষোভ

0
3

ঢাকা :  প্রশাসনের মদদে সংস্কারবাদী জেএসএস সন্ত্রাসী কর্তৃক এইচএসসি পরীক্ষার্থী তুষার চাকমাকে গুলি করে হত্যার প্রতিবাদে আজ বুধবার (২০ ফেব্রুয়ারি) ঢাকায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বিক্ষোভ-মিছিল ও সমাবেশ করেছে বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি) ঢাকা শাখা। বিকেল সাড়ে তিনটায় মিছিলটি পল্টন মোড় থেকে শুরু হয়ে প্রেসক্লাবের সামনে এসে প্রতিবাদ সমাবেশে মিলিত হয়।

সমাবেশে পিসিপি ঢাকা শাখার সভাপতি রিয়েল ত্রিপুরার সভাপতিত্বে ও সহ-সভাপতি শুভাশীষ চাকমার সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম কেন্দ্রীয় যুগ্ন-সাধারন সম্পাদক বরুন চাকমা, পিসিপি’র কেন্দ্রীয় কমিটির দপ্তর সম্পাদক রুজেন্টু চাকমা ও হিল উইমেন্স ফেডারেশন ঢাকা শাখার আহ্বায়ক কইংজনা মারমা।

বক্তারা গতকাল সংঘটিত হত্যার ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেন, গতকাল সন্ধ্যায় খাগড়াছড়ি সদরের নারাঙহিয়ার মতো একটি জায়গায় প্রকশ্যে মানুষের সামনে একজন নিরীহ ছাত্রকে গুলি করে সন্ত্রাসীরা নির্বিঘ্নে পালিয়ে যাওয়ার মাধ্যমে প্রমাণ করে এটিা পরিকল্পিত ছিল এবং প্রশাসনের যোগসাজশেই হত্যাকাণ্ডটি সংঘটিত হয়েছে।

তারা বলেন, দেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় পাকিস্তান সরকার যেভাবে আলবদর,রাজাকার বাহিনী গঠন করে দিয়ে এদেশের স্বাধীনতাকামী মানুষের উপর হত্যাযজ্ঞ চালিয়েছিল, ঠিক একই কায়দায় এদেশের শাসকগোষ্ঠী ও পার্বত্য চট্টগ্রামে নিয়োজিত সেনাবাহিনীর একটি কায়েমী স্বার্থবাদী অংশ জুম্ম দিয়ে জুম্ম ধ্বংসের নীল নকশা বাস্তবায়নের জন্য সংস্কারবাদী সন্ত্রাসীদের মদদ দিয়ে একের পর এক খুন, গুম, অপহরণসহ নানা কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে।

বক্তারা ক্ষোভ প্রকাশ করে আরো বলেন, সেনা-পুলিশের সহযোগিতায় দিনে-দুপুরে নব্য মুখোশ বাহিনী ও সংস্কারবাদী জেএসএস সন্ত্রাসীরা মানুষ খুন করে, অথচ প্রশাসন তাদের খুঁজে পায় না। গত বছরের ১৮ আগস্ট স্বনির্ভরে পিসিপি-যুব ফোরামের তিন নেতাসহ ৭ খুন ঘটনা তার জ্বলন্ত প্রমান। পুলিশ ফাড়ি ও বিজিবি চেকপোস্টের অদূরে এই খুনের ঘটনা ঘটলেও প্রশাসন আজ পর্যন্ত এই ঘটনায় জড়িত সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করেনি। অথচ খুনিরা প্রশাসনের নাকের ডগায় প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়ায়। গতকাল সংঘটিত হত্যার ঘটনায়ও প্রশাসন সন্ত্রাসীদের ধরতে কোন পদক্ষেপ গ্রহণ না করে তাদেরকে নিরাপদে পালিয়ে যেতে সহযোগিতা দিয়েছে। ফলে সন্ত্রাসীরা বেপরোয়া হয়ে উঠেছে এবং তারা নিরীহ লোকজনকেও খুন করতে দ্বিধা করছে না।

বক্তারা খাগড়াছড়ি থানার ওসি শাহাদৎ হোসেন টিটুর মিডিয়ায় দেওয়া বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন,  “দু’পক্ষের গোলাগুলিতে ইউপিডিএফ কর্মী নিহতের” কথা বলে তিনি প্রকৃত ঘটনাকে আড়াল করার চেষ্টা করেছেন। প্রকৃত অর্থে সেখানে দুপক্ষের কোন গোলাগুলির ঘটনা ঘটেনি, সংস্কারবাদী সন্ত্রাসীরাই প্রকাশ্যে লোকজনের সামনে গুলি করে এইচএসসি পরীক্ষার্থী তুষার চাকমাকে খুন করেছে। ওসির বক্তব্যের মাধ্যমে প্রমাণ হয় প্রশাসনই সন্ত্রাসীদের খুন-খারাবির কাজে মদদ যুগিয়ে যাচ্ছে।

সমাবেশ থেকে বক্তারা অবিলম্বে তুষার চাকমার হত্যাকারীসহ মিঠুন চাকমা ও স্বনির্ভর বাজারে ৭ খুনের ঘটনায় জড়িত সংস্কারবাদী সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।
——————
সিএইচটি নিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.