খাগড়াছড়িতে শহীদ অমর বিকাশের স্মৃতিসৌধে তিন সংগঠনের শ্রদ্ধা নিবেদন

0
154

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি ।। খাগড়াছড়িতে ১৯৯৬ সালে ৭ মার্চ মুখোশ বাহিনীর বিরুদ্ধে জনতার প্রতিরোধকালে সেনাবাহিনীর গুলিতে শহীদ হওয়া অমর বিকাশ চাকমার স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছে পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি), হিল উইমেন্স ফেডারেশন (এইচডব্লিউএফ) ও গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম (ডিওয়াইএফ)।

আজ রবিবার (৭ মার্চ ২০২১) সকালে তিন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ খাগড়াছড়ি সদরের উত্তর খবংপুয্যা এলাকায় নির্মিত শহীদ অমর বিকাশ চাকমার স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

এরপর তারা শহীদ অমর বিকাশের প্রতি সম্মান জানিয়ে ১ মিনিট নিরবতা পালন করেন।

উল্লেখ্য, ১৯৯৬ সাালের ৭ মার্চ রাতে মুখোশ বাহিনীর সন্ত্রাসীরা পেরাছড়া গ্রামে গিয়ে গ্রামবাসীদের ঘরবাড়িতে তাণ্ডব চালাতে শুরু করলে গ্রামের লোকজন “মুখোশ মুখোশ’ বলে চিৎকার দেয়। আর এতে মুহুর্তের মধ্যেই পেরাছড়া গ্রামের জনতা লাঠিসোটা নিয়ে ছুটে আসে। তাদের চিৎকার শুনে পেরাছড়ার আশে-পাশের গ্রাম সিঙ্গিনালা, খবংপজ্যা, নারাংহিয়া সহ বিভিন্ন এলাকার শত শত জনতা লাঠিসোটা নিয়ে সেনা ঔরসজাত মুখোশ বাহিনী গুন্ডাদের প্রতিরোধে রাস্তায় নেমে পড়ে।

টগবগে যুবক অমর বিকাশ চাকমাও এই গণপ্রতিরোধে সামিল হয়েছিলেন। মুখোশ বাহিনীর সন্ত্রাসীদের ধাওয়া করতে সামনে থাকা অমর বিকাশ চাকমা স্বনির্ভর স্কুলের পাশে সেনাবাহিনীর গুলিতে শহীদ হন। পরে সেনারা  টেনে হিঁচড়ে তাঁর লাশটি পিকআপে তুলে ক্যান্টনমেন্টে নিয়ে যায়। এরপর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। ঘটনার চার দিনের মাথায় ১০ মার্চ বিকালে পুলিশ অমর বিকাশের লাশটি ফেরত দেয়।

সেদিন বীর জনতা সন্ত্রাসী ও তাদের সহযোগী সেনাদেরকে খেজুর বাগান মাঠ (বর্তমানে উপজেলা মাঠ) পর্যন্ত ধাওয়া করে নিয়ে যায়। সেনা ও মুখোশ বাহিনীর গুণ্ডারা জনতার তাড়া খেয়ে চেঙ্গী স্কোয়ার হয়ে ক্যান্টমেন্টে পালিয়ে যেতে বাধ্য হয়েছিল।

 


সিএইচটি নিউজে প্রকাশিত প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ,ভিডিও, কনটেন্ট ব্যবহার করতে হলে কপিরাইট আইন অনুসরণ করে ব্যবহার করুন।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.