খাগড়াছড়ির স্বনির্ভরে রেকর্ডিয় জমি দখল করে পুলিশ ফাঁড়ি স্থাপন: ওসি, পুলিশ সুপার ও জেলা প্রশাসককে উকিল নোটিশ

0
0

সিএইচটিনিউজ.কম
খাগড়াছড়ি: খাগড়াছড়ি জেলা সদরের ২৬৫ নং বাঙ্গালকাটি মৌজাধীন স্বনির্ভরে মৃত শশী চন্দ্র চাকমার নামে রেকর্ডীয় জমি দখল করে পুলিশ ফাঁড়ি স্থাপনের বিরুদ্ধে খাগড়াছড়ি সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি), পুলিশ সুপার ও জেলা প্রশাসককে উকিল নোটিশ পাঠানো হয়েছে। ভূমি মালিকের ওয়ারিশ দিব্য কান্তি চাকমা ও ভব পাল চাকমার পক্ষে এডভোকেট জ্ঞান জ্যোতি চাকমা গতকাল ২০ মে বুধবার এ নোটিশ প্রেরণ করেন।Ukil notice

নোটিশের ২নং পয়েন্টে বলা হয়, খাগড়াছড়ি জেলার সদর উপজেলাধীন ২৬৫ নং বাঙ্গালকাটি মৌজার ২৮১ নং খতিয়ানেরর বিভিন্ন দাগাদিতে নোটিশ দাতাগণের পিতামহ মৃত শশী চন্দ্র চাকমার নামে ১ম ও ২য় শ্রেণীর জমি রেকর্ডভূক্ত আছে। নোটিশ দাতাগত মৃত শশী চন্দ্র চাকমার বৈধ ওয়ারিশ হন। ওয়ারিশ সূত্রে নোটিশ দাতাগণ উক্ত মৃত শশী চন্দ্র চাকমার সম্পত্তি প্রাপ্ত হন।

৩নং পয়েন্টে বলা হয়, উক্ত ২৮১ নং খতিয়ানের ২১৭৯ নং দাগে নোটিশ দাতাগণের মৌরশ এর নামে ০.৫৫(পঞ্চান্ন শতক) একর সম্পত্তি রেকর্ডভূক্ত আছে। উক্ত সম্পত্তি মৃত শশী চন্দ্র চাকমা বা তাহার ওয়ারিশ নোটিশ দাতাগণ অন্য কাহারো নিকট বিক্রয় বা হস্তান্তর করেন নাই এবং কোন সরকারী সংস্থা কর্তৃক অধিগ্রহণ করা হয় নাই।ukil notice2

নোটিশের ৪নং পয়েন্টে বলা হয়, নোটিশ দাতাগণের ওয়ারিশ সূত্রে প্রাপ্ত ২৮১ নং খতিয়ানের ২১৭৯ দাগের ০.৫৫ (পঞ্চান্ন শতক) একর ভূমির অন্দরে নোটিশ দাতাগণের অজ্ঞাতে অজান্তে বিনা নোটিশে ১ ও ২ নং নোটিশ গ্রহীতাগণ পুলিশ ক্যাম্প/পুলিশ ফাঁড়ি স্থাপনের জন্য উগ্যোগ গ্রহণ করিয়াছেন। এ বিষয়ে জানিতে পারিয়া নোটিশ দাতাগণ মালিকানা সংক্রান্ত কাগজপত্র নিয়ে পুলিশ ক্যাম্প বা পুলিশ ফাঁড়ি উদ্যোগ গ্রহণকারীদের জিজ্ঞাসাবাদ করিলে তাহারা কোনরূপ সদুত্তর প্রদান করেন নাই।

ukil notice3৫ নং পয়েন্টে বলা হয়, নোটিশ দাতাগণের মৌরশী সম্পত্তিতে অন্যায় ও অবৈধ ভাবে পুলিশ ফাঁড়ি/পুলিশ ক্যাম্প স্থাপন করিলে আইনগত নোটিশ প্রদানকারীদের স্বত্ব স্বার্থ ও সম্পত্তির মালিকানাতে অপূরণীয় ক্ষতি সাধিত হইবে। যাহা অন্য কোনভাবে পূরণ করা সম্ভব নয়। কেন কি কারণে আমার মোয়াক্কেলের মৌরশী সম্পত্তির উপর অন্যায়ভাবে পুলিশ ক্যাম্প/পুলিশ ফাঁড়ি স্থাপন করা হইবে তাহা আগামী ১০ দিনের মধ্যে আপনাদের বৈধ কাগজপত্র নিয়ে আমার মোকামে হাজির হইয়া ব্যাখ্যা প্রদান করিবেন নতুবা বৈধ কাগজা পত্র সহকাারে জবাব প্রদানে বাধ্য থাকিবেন। বৈধ মালিকানা দলিল পত্র দ্বারা সমর্থিত মালিকানা ব্যতিরেকে আপনাদেরকে আামর মোয়াক্কেলের সম্পত্তিতে কোনরূপ স্থাপনা, পুলিশ ক্যাম্প/পুলিশ ফাঁড়ি নির্মাণ না করার জন্য এবং আইনগত সুরাহা না হওয়া পর্যন্ত কোনরূপ নির্মাণ কার্য না করার বিনীত অনুরোধ করা হইল।

৬নং পয়েন্টে বলা হয়, ৩ নং আইনগত নোটিশ গ্রহীতা অত্র জেলার ভূমির ব্যবস্থাপনা দায়িত্বে নিয়োজিত রহিয়াছেন। তৎকারণে ১ ও ২ নং নোটিশ গ্রহীতাগণের অবৈধ কার্যক্রম যাহাতে আইনগত নোটিশ দাতাগণের স্বত্বে কোন ব্যাঘাত না ঘটে তৎকারণে বিহীত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য ৩নং নোটিশ গ্রহীতাকে অত্র নোটিশ প্রেরণ করা হইল।

নোটিশের শেষ পয়েন্টে (৭নং পয়েন্ট) বলা হয়, নোটিশ দাতাগণ অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ কার্যক্রম আইনগতভাবে প্রতিহত করার জন্য প্রস্তুত রহিয়াছে। প্রয়োজনে নোটিশ গ্রহীতাগণের বিরুদ্ধে উপযুক্ত আদালতে শরণাপন্ন হইতে প্রস্তুত রহিয়াছে। উহা অতীব জরুরী।
——————–

সিএইচটিনিউজ.কম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।

 


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.