খাগড়াছড়ি শহর এলাকায় গ্রামবাসীদের বাড়িতে সেনাবাহিনীর তল্লাশি!

0
2

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি ॥ গতকাল মঙ্গলবার (২২ মে ২০১৮) বিকালে খাগড়াছড়ি পৌর শহরের নারঙহিয়া, স্বনির্ভর, খবংপুজ্জে ও দশবল বৌদ্ধ বিহার এলাকায় বসবাসত বেশ কয়েকজন গ্রামবাসীর বাড়িতে সেনাবাহিনী অন্যায়ভাবে তল্লাশি চালিয়েছে।

জানা যায়, গতকাল বিকাল ৩টার দিকে কয়েকটি গাড়িতে করে বিপুল সংখ্যক সেনা-পুলিশ নারাঙহিয়া, স্বনির্ভর ও খবংপুজ্জে এলাকায় হানা দেয়।  এ সময় তারা নারাঙহিয়া এলাকার বাসিন্দা সিনারিন চাকমা (৩৫), সুগত মা (৫০), সুনীল বিকাশ চাকমা (৫৫), ডিসি অফিসের কর্মচারী বিশ্ব চন্দ্র চাকমা(৫৫), দশবল এলাকার বাসিন্দা অনিল চাকমা (৪০) এবং খবংপুজ্জে এলাকার বাসিন্দা সাবেক পৌর কাউন্সিলর মিলন দেওয়ান মনাঙ(৪৫), সমাজ কর্মী ধীমান খীসা(৪৭), সুবল দেওয়ান(৪৫) ও অবসরপ্রাপ্ত চাকুরীজীবী নবী বিশ্ব চাকমা(৬০)-এর বাড়িতে তল্লাশি চালায়। তল্লাশিকালে সেনারা তাদের বাড়ির জিনিসপত্র তছনছ করে দেয়।

এছাড়া সেনারা স্বনির্ভর এলাকায় ডাঃ শহীদ তালুকদারসহ আরো বেশ কয়েকজনের বাড়িতে যায়। তবে বাড়িতে লোকজন না থাকায় এসব বাড়িতে তল্লাশি চালায়নি বলে জানা গেছে।

সেনাবাহিনীর এ তল্লাশি অভিযানকে সম্পূর্ণ অন্যায় মন্তব্য করে খবংপুজ্জে ও নারাঙহিয়ে এলাকার একাধিক মুরুব্বী ক্ষোভ প্রকাশ করে এ প্রতিবেদককে বলেন, দু’তিন দিন ধরে নব্য মুখোশ বাহিনী ও সংস্কারবাদী(জেএসএস)-এর একটি সশস্ত্র সন্ত্রাসী দল স্বনির্ভর বাজারের পশ্চিমে চেঙ্গী নদীর পাড় ঘেষা বেলতলী পাড়া এলাকায় অবস্থান করলেও সেনাবাহিনী-পুলিশ সেখানে যায়নি। সন্ত্রাসীরা এলাকার জনগণের কাছ থেকে হুমকি দিয়ে চাঁদা দাবিসহ নানা হয়রানি করছে–এমন অভিযোগ করার পরও প্রশাসন সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে কোন পদক্ষেপ নেয়নি। এমনকি গতকাল দুপুরে চেঙ্গী নদীর পাড় এলাকা থেকে সন্ত্রাসীরা ফাঁকা গুলি বর্ষণ করে জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টি করলেও সেনারা সেদিকে না নিয়ে উল্টো আমাদের এলাকায় ঘরবাড়ি তল্লাশি চালিয়ে জনগণকে ভয়ভীতি প্রদর্শন করেছে বলে তারা অভিযোগ করেন। উক্ত সন্ত্রাসী দলটির সাথে সেনা-প্রশাসনের যোগসাজশ রয়েছে বলেও তারা মন্তব্য করেন।
——————
সিএইচটিনিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.