গণঅনশন কর্মসূচিতে বাধাদানের নিন্দা ও প্রতিবাদ দীঘিনালা ভূমি রক্ষা কমিটির

0
0

সিএইচটিনিউজ.কম
দীঘিনালা: দীঘিনালা ভূমি রক্ষা কমিটির সভাপতি ও ৫ নং বাবুছড়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান পরিতোষ চাকমা এবং সাধারণ সম্পাদক ধর্মজ্যোতি চাকমা আজ বুধবার (২১ জানুয়ারি ২০১৫) এক বিবৃতিতে গণঅনশন কর্মসূচি পালনে প্রশাসন ও সেনাবাহিনীর বাধাদানের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় বলেন, গত বছর (২০১৪) ১৪ জুন দীঘিনালা মৌজার যতœ কুমার কার্বারী পাড়া ও শশী মোহন কার্বারী পাড়া থেকে ৫১ নং বিজিবি ব্যাটালিয়ন সদস্যদের হামলায় যে ২১ পরিবার পাহাড়ি উচ্ছেদের শিকার হয়েছিলেন তাদের ন্যায়সঙ্গত দাবীর সমর্থনে ভূমি রক্ষা কমিটি ও দীঘিনালার সুশীল সমাজের পক্ষ থেকে আজ বুধবার সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত দীঘিনালা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ের সামনে শান্তিপূর্ণভাবে এক প্রতীকি গণঅনশন কর্মসূচির আহ্বান করা হয়েছিল। কিন্তু উপজেলা প্রশাসন ও সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে ভোর ৫টা থেকে সকল প্রকার যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করে তল্লাসী চৌকি বসিয়ে বিভিন্ন স্থানে তল্লাসী চালানো হয়। জনমনে আতঙ্ক ও  ভীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টির করা হয় যাতে জনগণ গণঅনশন কর্মসূচিতে অংশ গ্রহণ করতে না পারে। যার ফলে পূর্ব নির্ধারিত আমাদের গণঅনশন কর্মসূচি ভন্ডুল হয়ে যায়।

বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় উপজেলা প্রশাসন ও সেনাবাহিনীর এহেন ন্যাক্কারজনক ভূমিকায় ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ১৪৪ ধারা জারি না করা সত্ত্বেও যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা ও গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে যেমন- উপজেলা সদর, সদর এলাকার চৌমুহনী, থানা বাজার, পাবলাখালী ব্রিজ, মিইন ব্রিজ, নারিকেল বাগান, শান্তিপুর, কৃপাপুর, দীঘির পাড়, বড়াদম, দক্ষিণ পুকুরঘাট, উদোলবাগান ও বাবুছড়া বাজারে তল্লাসী চৌকি বসিয়ে তল্লাসী চালানো শুধু বেআইনী নয়, এটা জনগণের শান্তিপূর্ণ ও গণতান্ত্রিকভাবে মত প্রকাশের স্বাধীনতা হরণ এবং সংবিধানের মৌলিক অধিকারেরও পরিপন্থি। এটা সরকারের ফ্যাসিস্ট মানসিকতারই বহিঃপ্রকাশ বলে নেতৃদ্বয় বিবৃতিতে উল্লেখ করেন।

বিবৃতিতে তাঁরা অবিলম্বে বিজিবি’র ৫১ ব্যাটালিয়ন সদর দপ্তর স্থাপন কার্যক্রম বাতিল করে বিজিবি সদস্যদের প্রত্যাহার, শশী মোহন কার্বারী পাড়া ও যত্ন কুমার কার্বারী পাড়ায় জেলা প্রশাসনের অবৈধ জমি অধিগ্রহণ বাতিল করে উচ্ছেদকৃত ২১ পাহাড়ি পরিবারকে স্ব স্ব জমি ও বসতভিটা ফিরিয়ে দেয়া এবং বিজিবি’র দায়ের করা হয়রানিমূলক মিথ্যা ও বানোয়াট মামলা প্রত্যাহারের জোর দাবি জানান।

দীঘিনালা ভূমি রক্ষা কমিটির সদস্য প্রজ্ঞান জ্যোতি চাকমার স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ বিবৃতি প্রদান করা হয়েছে।

 

*  দীঘিনালায় ভূমি রক্ষা কমিটির অনশন কর্মসূচিতে সেনাবাহিনীর বাধা!
—————

সিএইচটিনিউজ.কম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।


Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.