গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের রামগড় উপজেলা শাখার ৩য় কাউন্সিল সম্পন্ন

0
1

রামগড় : গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের রামগড় উপজেলা শাখার ৩য় কাউন্সিল আজ শুক্রবার রামগড় উপজেলা সদরে অনুষ্ঠিত হয়েছে। কাউন্সিলে ২৫ সদস্য বিশিষ্ট নতুন কমিটি গঠন করা হয়।

“এখন যৌবন যার যুদ্ধে যাবার সময় তার” এই শ্লোগানে এবং “ভূমি বেদখল-নারীর সম্ভ্রম রক্ষা ও জাতীয় অস্তিত্ব রক্ষার সংগ্রামে যুব সমাজ জাগ্রত হোন, পূর্ণসায়ত্তশাসন পতাকাকে উর্ধ্বে তুলে ধরুন” এই আহ্বানে আজ সকাল ১০টায় অনুষ্ঠিত কাউন্সিলে সভাপতিত্ব করেন কাউন্সিল প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক সুরেশ চাকমা ও সঞ্চালনা করেন সদস্য সচিব প্রশান্ত ত্রিপুরা।

এতে অন্যান্যের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন ইউনাইটেড পিপলস্ ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিত্রফ)-এর রামগড় ইউনিটের সমন্বয়ক অপু ত্রিপুরা, গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক রুপেশ চাকমা, বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি) রামগড় উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক নরেশ ত্রিপুরা প্রমুখ। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন স্বাগত বক্তব্য রাখেন প্রস্তুতি কমিটির সদস্য জয়ন্ত ত্রিপুরা।

অধিবেশন শুরুতে খাগড়াছড়ি সদরের স্বনির্ভর বাজারে সেনা-প্রশাসনের মদদে সংস্কারপন্থী সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত শহীদ তপন, এলটন, পলাশ চাকমাসহ নিপীড়িত জনগণের অধিকার আদায়ের সংগ্রামে আত্মবলিদানকারী বীর শহীদের প্রতি সম্মান ও শ্রদ্ধা জানিয়ে ১ মিনিট পালন করা হয়।

কাউন্সিলে অধিবেশনে বক্তরা বলেন, রামগড়, মানিকছড়ি, মাটিরাঙ্গায় সেটেলার পুনর্বাসনের লক্ষে বিজিবি-সেনা-প্রশাসন নানানভাবে ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে। তারই অংশ হিসেবে গরুকাটা এলাকায় এলাকাবাসীর উদ্যোগে নির্মাণাধীন প্রাথমিক বিদ্যালয় ও নাঙেল আদামে সুমিতা চাকমার বাড়ি বিজিবি কর্তৃক ভাংচুর ও লুটপাট করা হয়েছে।

তারা আরো বলেন, সেনা-প্রশাসন পার্বত্য চট্টগ্রামে সংখ্যালঘু জাতিসত্তাসসমূহের অস্তিত্ব ধ্বংস করতে অন্যায় দমনপীড়ন ও প্রতিক্রিয়াশীল চক্র জেএসএস সংস্কার-নব্য মুখোশ সন্ত্রাসীদের লেলিয়ে দিয়ে হত্যা, গুম, অপহরণের মতো ঘটনা সংঘটিত করছে।

বক্তারা পার্বত্য চট্টগ্রামসহ সারাদেশে নারীরা কোথাও নিরাপদ নয় উল্লেখ করে বলেন, পথে-ঘাটে, স্কুল-কলেজ, ক্ষেতে-খামারে প্রতিনিয়ত নারী ধর্ষণ, ধর্ষণের পর হত্যা, অপহরণ ঘটনা অহরহ ঘটে চলেছে। এসব ঘটনায় কোন সুবিচার না হওয়ায় অপরাধীরা পার পেয়ে যাচ্ছে। নারী নেত্রী কল্পনা চাকমার অপহরণ, সবিতা, ভারতী, তুমাচিং, সুজাতা চাকমা, ৫ম শ্রেণী ছাত্রী কৃত্তিকা ত্রিপুরা ও সমতলে সোহাগী জাহান তনুকে ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় আজও বিচার হয়নি। ফলে দেশের আজ অপরাধীদের সংখ্যা বেড়েই চলেছে।

বক্তারা, ভূমি-বেদখল ও নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে এবং জাতীয় অস্তিত্ব রক্ষার্থে যুব ফোরামের পতাকাতলে সমবেত হয়ে পাহাড়ে নিপীড়িত জনগণের মুক্তির সনদ পূর্ণসায়ত্তশাসন অধিকার আদায়ের সংগ্রামে জোরদার করার জন্য যুব সমাজের প্রতি আহ্বান জানান।

আলোচনা শেষে উপস্থিতি সকলে সর্বসম্মতিক্রমে সুরেশ চাকমাকে সভাপতি, প্রশান্ত ত্রিপুরাকে সাধারণ সম্পাদক ও জয়ন্ত ত্রিপুরাকে সাংগঠনিক সম্পাদক করে ২৫ সদস্য বিশিষ্ট নতুন কমিটি গঠিত হয়।

নতুন কমিটি শপথ বাক্য পাঠ করান গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের খাগড়াছড়ি জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক রুপেশ চাকমা।
————————-
সিএইচটি নিউজ ডটকম’র প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন দেখা দিলে যথাযথ সূত্র উল্লেখপূর্বক ব্যবহার করুন।

 


Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.