গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের খাগড়াছড়ি জেলা কমিটি পুনর্গঠন : ১৫ সদস্য বিশিষ্ট আহ্বায়ক কমিটি গঠিত

0
0
খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি
সিএইচটিনিউজ.কম
কমিটি পুনর্গঠন সভায় বক্তব্য রাখছেন যুব ফোরামের কেন্দ্রীয় সভাপতি নতুন কুমার চাকমা
 
গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের খাগড়াছড়ি জেলা কমিটি পুনর্গঠন করে ১৫ সদস্য বিশিষ্ট একটি আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে।“আন্দোলন সংগ্রামে আদর্শের পতাকা উর্দ্ধে তুলে ধরম্নন, জাতীয় মর্যাদা ও অধিকার প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে যুব সমাজকে ঐক্য বদ্ধ করি” এই শ্লোগানকে ধারণ করে আজ ১৫ অক্টোবর মঙ্গলবার খাগড়াছড়ি সদরে স্বনির্ভরস্থ ঠিকাদার সমিতি ভবনে সকাল ১১টায় জেলা কমিটি পুনর্গঠন উপলক্ষে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। খাগাড়াছড়ি বিভিন্ন উপজেলা থেকে শতাধিক নেতা কর্মী সভায় অংশগ্রহন করেন। দীর্ঘ আলোচনার পর গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের কেন্দ্রীয় সভাপতি নতুন কুমার চাকমা ও সাধারণ সম্পাদক মাইকেল চাকমা খাগড়াছড়ি জেলা কমিটিকে ভেঙে দিয়ে জিকো ত্রিপুরাকে আহ্বায়ক ও রিপন চাকমাকে সদস্য সচিব করে ১৫ সদস্য বিশিষ্ট নতুন আহ্বায়ক কমিটি ঘোষনা করেন। উপস্থিত প্রতিনিধি বৃন্দের সর্বসম্মতিক্রমে তুমুল করতালির মধ্যে দিয়ে নতুন কমিটিকে অনুমোদন দেয়া হয়।

সভায় সভাপতিত্ব করেন সদ্য বিলুপ্ত জেলা কমিটির সহ সভাপতি শান্তবীর চাকমা। এতে আরো বক্তব্য রাখেন যুব ফোরাম কেন্দ্রীয় সাভাপতি নতুন কুমার চাকমা, ইউপিডিএফ খাগড়াছড়ি জেলা ইউনিট সদস্য অংগ্য মারমা, হিল উইমেন্স ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সহ সাধারণ সম্পদাক চন্দনী চাকমা ও পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক সিমন চাকমা। সভা পরিচালনা করেন বিলুপ্ত কমিটির সাধারণ সম্পাদক আপ্রু মারমা।

পুনর্গঠিত কমিটির সদস্যবৃন্দ
সভায় বক্তারা বলেন, পাহাড়ে এখনো ভূমি বেদখল সহ সেনাবাহিনী দ্বারা অবৈধভাবে সাধারণ পাহাড়িদের গ্রেফতার অব্যহত রয়েছে। বক্তারা জেলার ভাইবোন ছড়া এলাকায় সরকারী কর্মচারী পানছড়ি প্রাণীসম্পদ বিভাগের সহকারী সার্জন অরুন বিকাশ চাকমাকে(৪৫) পরিকল্পিতভাবে অস্ত্র গুজে দিয়ে সেনাবাহিনী দ্বারা আটকের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।বক্তারা বান্দরবানে ভূমি দস্যু কর্তৃক পাহাড়িদের ভূমি বেদখলের মহৌৎসব চলছে অভিযোগ করে আরো বলেন, জেলার রোয়াঙছড়ি উপজেলার ফাক্ষ্যং পাহাড় ৩৩ পরিবার পাহাড়ি জাতিসত্তার বাসিন্দাদের উচ্ছেদ করার চক্রান্ত চলছে।

বক্তারা অবিলম্বে বহিরাগত সেটলার ভূমিদস্যু সমদ আলীকে গ্রেফতার ও উচ্ছেদ আতঙ্কে থাকা পাহাড়িদের পূর্ণ নিরাপত্তা দেয়ার দাবী জানান।

—–

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.