গুইমারায় ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সাগর চৌধুরীর বিরুদ্ধে ধর্ষণ চেষ্টার মামলা করেছেন ভুক্তভোগী পাহাড়ি শিক্ষিকা

0
284
অভিযুক্ত সাগর চৌধুরী

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি ।। খাগড়াছড়ির গুইমারায় পাড়া কেন্দ্রের এক পাহাড়ি শিক্ষিকাকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সাগর চৌধুরীর (৩৫) বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা হয়েছে।

ভুক্তভোগী ওই শিক্ষিকা (৩৭) নিজে বাদী হয়ে মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল ২০২১) মামলাটি দায়ের করেন। যার মামলা নং-০৩/১২।

গত ১৮ এপ্রিল ২০২১ ওই শিক্ষিকা সাগর চৌধুরী কর্তৃক ধর্ষণ চেষ্টা ও মারধরের শিকার হওয়ার অভিযোগ করেছেন।

অভিযুক্ত সাগর চৌধুরী গুইমারা উপজেলার দার্জিলিং টিলার মৃত নিরঞ্জন চৌধুরীর ছেলে।

ভুক্তভোগী ওই শিক্ষিকা মামলার এজাহারে উল্লেখ করেন, তিনি ইউনিসেফ পরিচালিত একটি পাড়াকেন্দ্রে শিক্ষকতা করেন। স্কুলে আসা যাওয়ার পথে সাগর চৌধুরী প্রায় সময়ই তাকে কু-প্রস্তাব দিয়ে উত্যক্ত করে আসছিল। এতে রাজি না হওয়ায় তাকে ও তার পরিবারের লোকজনকে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে দফায় দফায় এক লাখ ৪৬ হাজার টাকা আদায় করে নেয়।

ঘটনার বিবরণ দিয়ে তিনি এজাহারে বলেন, গত রবিবার (১৮ এপ্রিল ২০২১) গুইমারার মুসলিম পাড়া এলাকায় একটি পাড়াকেন্দ্রে তিনি মিটিং এর জন্য যান। মিটিং শেষে বাসায় ফেরার পথে বিকাল আনুমানিক ৩:৩০টার দিকে সাগর চৌধুরী ও অজ্ঞাত এক ব্যক্তি তাকে পথরোধ করে জোরপূর্বক মোটরসাইকেলে তুলে বাসায় নিয়ে গিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এ সময় নিজেকে রক্ষার চেষ্টা করলে সাগর চৌধুরী তাকে বেপরোয়াভাবে মারধর করে জখম করে। পরে তার চিৎকার শুনে আশেপাশের লোকজন তাকে উদ্ধার করে। এ সময় সাগর চৌধুরী তাকে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে সেখান থেকে পালিয়ে যায়। এরপর খবর পেয়ে তার ভাই ও আরেকজন তাকে হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা করায়।

গুইমারা থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মিজানুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ভুক্তভোগী নারী মঙ্গলবার সাগর চৌধুরীকে আসামী করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেছেন। মামলার পর থেকে আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

উল্লেখ্য, এর আগে ২০১৮ সালের ২৯ সেপ্টেম্বর সাগর চৌধুরী তার স্ত্রী মাধবী রায় চৌধুরী ওরফে পিংকিকে (২৫) মারধর এবং গলাটিপে হত্যার অভিযোগে দায়ের করা মামলায় দীর্ঘদিন কারাগারে ছিলেন। কারাগার থেকে জামিনে বের হয়েই তিনি ওই শিক্ষিকাকে নানা কু-প্রস্তাব দিয়ে উত্যক্ত করে আসছিলেন বলে অভিযোগ শিক্ষিকার।


সিএইচটি নিউজে প্রকাশিত প্রচারিত কোন সংবাদ, তথ্য, ছবি ,ভিডিও, কনটেন্ট ব্যবহার করতে হলে কপিরাইট আইন অনুসরণ করে ব্যবহার করুন।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.